Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

মাশরাফিকে হারিয়ে ফাইনালে তামিম

স্পোর্টস রিপোর্টার, মিরপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:০৪ পিএম

অনেকটা সময় ক্রিজে কাটালেও প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারেননি ক্রিস গেইল। ছন্দে থাকা রাইলি রুশোও চড়াও হতে পারলেন না বোলারদের ওপর। তবে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দারুণ এক ফিফটিতে রংপুর রাইডার্সকে লড়াই করার মত পুঁজি এনে দিলেন বেনি হাওয়েল। তবে এভিন লুইসের দুর্দান্ত ব্যাটিং, এনামুল হকের অবদন্য জুটি আর শেষদিকে শামসুর রহমান শুভর হার না মানা ইনিংসে সেটিকেও মামুলি বানিয়ে চ্যাম্পিয়নদের হারিয়েই বিপিএলের ফাইনালে উঠেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।
গতকাল সন্ধ্যায় মিরপুরের প্রথম কোয়ালিফায়ারে ৫ উইকেটে ১৬৫ রান তুলে শিরোপাধারী রংপুর। ৮ উইকেট আর ৭ বল হাতে রেখেই ফাইনালের মঞ্চে আসীন ২০১৫ সালের চ্যাম্পিয়নরা। হেরেও সুযোগ আছে রংপুরের। সেক্ষেত্রে আগামীকাল দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটসকে হারাতে হবে মাশরাফির দলকে।
ফাইনালে যেতে কুমিল্লার দরকার ছিল ১৬৬ রান। সে লক্ষ্যে পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে আসে ৪৪। তামিম ইকবালকে (১৭) হারানোর পর লুইসের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেট ৯০ রানের জুটি গড়েন বিজয় (৩২ বলে ৩৯)। দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন লুইস (৫৩ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে ৭১)। শামসুর অপরাজিত ছিলেন ১৫ বলে ৩৪ রান করে।
এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লের মধ্যে মেহেদী মারুফ (১) আর মোহাম্মদ মিঠুনকে (৩) হারিয়ে অথৈ পাথারে পড়া রংপুরকে দেখে শুনে এগিয়ে নিতে থাকেন গেইল। রানের জন্য ছটফট করতে গিয়েই দু’বার জীবনও পান, কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি, ফেরেন ৪৪ বলে ৪৬ রান করে।
ফিল্ডিংটা ভালো হয়নি কুমিল্লার। হাত ফস্কে হয়েছে বেশ কয়েকটি বাউন্ডারি। সেই সুযোগ নিয়ে সেখান থেকে রুশোর সঙ্গে ৭৬ রানের জুটিতে দলকে পথ দেখান হাওয়েল। ২৮ বলে পাঁচ ছক্কা ও তিন চারে ৫৩ রানে অপরাজিত থাকেন এই ইংলিশ অলরাউন্ডার। ৩১ বলে চারটি চার ও দুটি ছক্কায় ৪৪ রান করে ফিরেন রুশো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তামিম

৪ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন