Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

শান্তি ও নারী স্বাধীনতায় তালেবানদের অঙ্গীকার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

প্রায় দেড় দশক ধরে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার পর এবার শান্তি চাইছে আফগানিস্তানের কট্টর ইসলামপন্থী সংগঠন তালেবান। রাশিয়ার মস্কোয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একটি আলোচনা সভায় যোগ দিয়ে শান্তি এবং নারী স্বাধীনতার কথা বলেছেন তালেবানের শীর্ষ নেতা শের মোহাম্মাদ আব্বাস স্টানিকজাই। তবে বৈঠকে রাশিয়া ও আফগানিস্তান সরকারের কোনো প্রতিনিধি অংশ নেয়নি বলে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
আফগানিস্তানে শান্তি ফেরানোর ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে স্টানিকজাইয়ের বক্তব্য, অস্ত্রের শক্তি দিয়ে পুরো আফগানিস্তান দখলে নেওয়ার কোনো পরিকল্পনা তালেবানের নেই। কারণ, এতে আফগানিস্তানে শান্তি আসবে না। তবে বিদেশি সেনারা আফগানিস্তানের মাটি না ছাড়া পর্যন্ত তালেবান কোনো যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে উপনীত হবে না।
আফগানিস্তানে ১৯৯৬-২০০১ সাল পর্যন্ত ছিল কট্টর তালেবান শাসন। নারীদের দমন-পীড়নের জন্য কুখ্যাতি পেয়েছিল তালেবান। কিন্তু নারীদের স্বাধীনতার কথা বললেন এবার খোদ সেই তালেবানেরই শীর্ষ নেতা স্টানিকজাই। তার বক্তব্য, দেশে তালেবানের প্রভাব বাড়ছে বলে মেয়েদের ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। তালেবান ইসলামিক আইন এবং আফগান সংস্কৃতির ভিত্তিতে নারীদেরকে তাদের অধিকার দেবে। তারা স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়েও পড়াশোনা করতে পারবে। চাকরিও করতে পারবে।
গত বুধবার বৈঠক শেষে আফগানিস্তান থেকে চলতি বছরের মে মাসের আগেই অর্ধেক মার্কিন সেনা সরানোর বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চয়তা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন তালেবানের শীর্ষ আলোচক আব্দুস সালাম হানাফি। কাতারে তালেবানের দফতরের উপ-প্রধানের দায়িত্ব পালন করা আব্দুস সালাম বলেন, মার্কিন কর্মকর্তারা তাদেরকে প্রতিশ্রæতি দিয়েছেন যে, চলতি ফেব্রæয়ারি মাস থেকেই আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা শুরু হবে।
তবে তালেবান নেতা মার্কিন সেনা সরানোর বিষয়ে এমন তথ্য দিলেও মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা তালেবানের দাবিকে অস্বীকার করেছেন। পেন্টাগনের মুখপাত্র রব ম্যানিং জানিয়েছেন, তালেবানের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত থাকলেও আফগানিস্তানে মোতায়েন মার্কিন সেনা প্রত্যাহার ও বিন্যাসে পরিবর্তন আনার কোনো নির্দেশ এখনো পেন্টাগনকে দেয়া হয়নি।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি সম্প্রতি আফগান বংশোদ্ভূত শীর্ষস্থানীয় মার্কিন কূটনীতিক জালমাই খালিলজাদকে আফগানিস্তান বিষয়ক বিশেষ দূত নিয়োগ করে যুক্তরাষ্ট্র। তার নেতৃত্বে তালেবানের সঙ্গে কয়েকটি বৈঠক করেছে মার্কিন প্রতিনিধি দল। তালেবান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে গেলেও আফগান সরকারের সঙ্গে সংলাপে বসতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। সূত্র : আল-জাজিরা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শান্তি


আরও
আরও পড়ুন