Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ঢাকার চতুর্থ না কুমিল্লার দ্বিতীয়?

বিপিএল ফাইনাল আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

৭ দলের রাউন্ড রবিল লিগ থেকে টিকল চার। সেখান থেকে এলিমিনেটর আর কোয়ালিফায়ার পেরিয়ে শিরোপার মঞ্চে দুই দল- ঢাকা ডায়নামাইটস আর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আজ সন্ধ্যায় মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি বিপিএলের তারকা সমৃদ্ধ দুই দল।
বিপিএলের প্রথম দুই আসরে চ্যাম্পিয়ান ছিল ঢাকা গøাডিয়েটসর। এরপরই ফিক্সিংয়ের দায়ে দলটি ও তাদের ফ্র্যাঞ্চইজি নিষিদ্ধ হয়। তৃতীয় আসরে নয়া ফ্র্যাঞ্চাইজি ঢাকা ডায়নামাইটস নামে বিপিএলে অংশ নেয়। তবে সেই আসরে চ্যাম্পিয়ান হয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। পরের আসরেই আবারো চ্যাম্পিয়ান হয়ে তাদের শক্তির জানান দেয় ডায়নামাইটরা। ৫ম আসরে ফাইনালে গেলেও চ্যাম্পিয়ান হয় রংপুর। সেই চ্যাম্পিয়ানদের বিদায় করেই গত আসরের রানার্স আপ ঢাকা এবার তৃতীয় বারের মত ফাইনাল নিশ্চিত করে। আজ তাদের সামনে সুযোগ কুমিল্লাকে হারিয়ে চতুর্থ শিরোপা ঘরে তোলার। আর কুমিল্লার সুযোগ থাকছে দ্বিতীয়বারের মত বিপিএল সেরার খেতাব জয়ের। দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে হেরে বিপিএল থেকে বিদায় নেওয়ার পর রংপুর রাইডার্স অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা তার একটি আক্ষেপের কথার পুনরাবৃত্তি করেছেন, বিশ্বমানের একজন পেস বোলিং অলরাউন্ডার যদি দলে থাকত! মাশরাফির যে জায়গায় আক্ষেপ, ঢাকা অধিনায়ক সাকিবের সেখানে তৃপ্তিই পাওয়ার কথা। তার দলে পেস বোলিং অলরাউন্ডার যে দুইজন। স্পিনিং অলরাউন্ডার হিসাব করলে সংখ্যাটা দাঁড়ায় চারজনে- আন্দ্রে রাসেল, কাইরন পোলার্ড, সুনীল নারিন ও সাকিব নিজে। প্রায় প্রতি ম্যাচেই এ চার জনের কেউ না কেউ জ্বলে উঠছেন। জয়ের মূলনায়কও হচ্ছেন। ঠিক তেমনি ভিক্টোরিয়ান্সের ক্ষেত্রেও। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, থিসারা পেরেরা ও শহীদ আফ্রিদির মতো অলরাউন্ডাররা দলের জয়ে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখছেন। আজ সন্ধ্যায় ফাইনালের আগে মূল আলোচনার বিষয়ই দুই দলের অলরাউন্ডার।
ঢাকার জয়ে বড় অবদানও রাখছেন এই অলরাউন্ডাররাই। দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে রংপুরের বিপক্ষে যেমন রাসেল আগে বল হাতে নিলেন ২ উইকেট। পরে ব্যাটিংয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নেমে খেললেন ১৯ বলে অপরাজিত ৪০ রানের ঝোড়ো ইনিংস। তার টানা তিন ছক্কায় ১৪৩ রানের লক্ষ্যটা ৫ উইকেট ও ২০ বল হাতে রেখে পেরিয়ে যায় ঢাকা।
ম্যাচে সাকিব একটি উইকেট নেওয়ার পর ব্যাটিংয়ে খেলেন ২০ বলে ২৩ রানের ক্যামিও ইনিংস। দারুণ তিনটি ক্যাচ ও ৮ বলে ১৪ রান করে অবদান রাখেন পোলার্ডও। আগের ম্যাচে অর্থাৎ এলিমিনেটরে নারিন হাত ঘুরিয়ে ৪ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাটিংয়ে ১৬ বলে ৩১ রান করে হন ম্যাচসেরা। চারজনের নামের পাশেই আছে একাধিক টি-টোয়েন্টি ট্রফি। সবচেয়ে বেশি টি-টোয়েন্টি খেলার রেকর্ড পোলার্ডের। তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও তিনিই।
ঢাকার প্রতিপক্ষ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, যাদের দলেও অলরাউন্ডারের অভাব নেই। শহীদ আফ্রিদি, থিসারা পেরেরার মতো অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার আছে কুমিল্লা দলে। আছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনে মতো তরুণ অলরাউন্ডারও। আফ্রিদি টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই দারুণ বোলিং করছেন। ১২ ম্যাচে নিয়েছেন ১৬ উইকেট। শুধু উইকেটসংখ্যা দিয়ে তার বোলিং বোঝা যাবে না। কমপক্ষে ৩০ ওভার বোলিং করা কিংবা ১৫ উইকেট নেওয়া বোলারদের মধ্যে আফ্রিদির ইকোনমি রেটই কেবল ছয়-এর নিচে, ৫.৮৫। পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক কখনো আবার ব্যাট হাতে ঝড় তুলে দলের জয়ে রাখছেন অবদান। থিসারাও ব্যাটে-বলে অবদান রাখছেন। সাইফউদ্দিন দারুণ বোলিং করছেন টুর্নামেন্টজুড়ে।
আজ শিরোপা নিষ্পত্তিতেও বড় ভুমিকা রাখতে পারে দুই দলের এই অলরাউন্ডাররাই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিপিএল

২৯ জানুয়ারি, ২০১৯
২৯ জানুয়ারি, ২০১৯
১০ নভেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন