Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

বিস্ময়ের ঘোর কাটছেই না তামিমের

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

মহাকাব্যিক, অবিশ্বাস্য, স্বপ্নকে জয় করা এক ইনিংসের সাক্ষি হয়েছে মিরপুরের শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম। ‘আজ কিছু হতে চলেছে’- আগে ভাগেই কি এমন কোন আলামত পেয়েছিলেন ২৪ হাজার ধারণক্ষমতার হোম অব ক্রিকেটে এদিন হাজির ২৫ হাজার ৯৯৩ জন দর্শক!
৬১ বলের ইনিংসে চার মেরেছেন দশটি, কিন্তু ছক্কা মেরেছেন আরও একটি বেশি। অবিশ্বাস্য ব্যাটিংয়ে তাই রান হয়েছে ১৪১। গেলবার বিপিএলের ফাইনালের টি-টোয়েন্টির রাজা ক্রিস গেইল করেছিলেন এমন ব্যাটিং। সত্যিই কি তিনি গেইল হয়ে উঠেছিলেন, নিজের গায়ে চিমটি কেটে যেন বুঝতে হচ্ছে তাকে। ম্যাচ শেষে বললেন এখনো আছেন ঘোরের মধ্যে। গত শুক্রবার মিরপুরের ভরপুর গ্যালারি মাত করে তামিম ব্যাটকে করেন উত্তাল। দলকে ১৯৯ রান পাইয়ে দেওয়ার পর ফিল্ডিংয়ে নেমেও নিয়েছেন ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ দুই ক্যাচ। ১৭ রানে জিতে দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তামিম হয়েছেন সেরা।

অফ স্পিনারের বল স্নগ সুইপ। পেসারদেরকে পুল করে গ্যালারিতে পাঠানো, এগিয়ে এসে সোজা চালানো দারুণ সব শটে এগারোটি ছক্কা। বিপিএলের কোন ম্যাচে কোন বাংলাদেশি এতগুলো ছক্কা মারতে পারেননি। এমনকি এক ইনিংসে এত এত ছকা আসেনি গেইল ছাড়া অন্য কারো ব্যাটেই। ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে, এখনও বিস্ময়ের ঘোর কাটইে না তামিমের নিজেরই। জানালেন স্থির হয়ে হাইলাইটস দেখে বুঝবেন এদিন কি করেছেন তিনি, ‘সত্যি কথা বলতে আমি এখনো ঘোরে আছি। আমি বুঝতে পারছি না কীভাবে ব্যাট করেছি। আমি বাসায় ফিরে আবার হাইলাইটসটা দেখব। একটা সময় বিজয়ের আউটের পর অস্থির হয়ে পড়েছিলাম। পরে শান্ত হয়ে আবার শুরু করি। আমি নিশ্চিত হাইলাইটস দেখার পর বুঝতে পারব কি করেছি।’

এত রান করার পরও স্বস্তিতে ছিলেন না। প্রতিপক্ষ ঢাকা ডায়নামাইটসও শুরু থেকেই তুলেছিল ঝড়। এক পর্যায়ে ম্যাচের লাগাম নিয়েছিলে তারাই। দল যখন ভীষণ বিপদে তখন আবার ত্রাতা তামিম। সাকিব আল হাসান আর কাইরন পোলার্ডের ভীষণ দরকারি দুই ক্যাচ জমিয়েছেন লঙ অন থেকে অনেকখানি দৌড়ে গিয়ে। কেবল ব্যাটিং নয় ফিল্ডিং, মাঠে উপস্থিতি সব মিলিয়েই তামিম ছিলেন রাজা। নিজের কাছেও তাই কঠিন লড়াই জেতার তৃপ্তি, ‘সত্যি কথা বললে অবিশ্বাস্য উইকেট ছিল। একটা সময় ২০০ রানও কম মনে হচ্ছিল। ফাইনালে যেকোন ক্যাচ, সহজ ক্যাচ বা কঠিন ক্যাচ তা অনেক । একটা জিনিস আমি হয়ত দুরন্ত গতি ফিল্ডার না কিন্তু যেকোনো পরিস্থিতিতে ভয় পাই না। এটাও সত্যি কথা আমি হয়তো কোনো না কোনো দিন ক্যাচ মিস করবো। কোনো না কোনোদিন ভালো ক্যাচ নিব। আমি সব সময় চেষ্টা করি সুযোগ লুফে নিতে।’

নিজে করেছেন ৬১ বলে অপরাজিত ১৪১, দলের অন্যরা মিলে করেছেন ৫৯ বলে ৪৭। অতিরিক্ত থেকে এসেছে ১১ রান। তার স্ট্রাইক রেট ২৩১.১৪, বাকিদের কারও স্ট্রাইক রেট এমনকি ৮৬ ছুঁতেও পারেনি। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১০টি চার, ১১টি ছক্কা। দলের অন্য চার ব্যাটসম্যান মিলে বাউন্ডারি ৩টি, ছক্কা ১টি। শেষ ১০ ওভারে কুমিল্লা তুলেছে ১২৬ রান, তামিমের ব্যাট থেকেই এসেছে তার ১০৩ রান। শেষ ৬ ওভারে দল করেছে ৮৫, তার ৭১ রানই তামিমের। দলের প্রায় ৭১ শতাংশ রান করেছেন একাই। শেষ ১০ ওভারে একাই করেছেন দলের প্রায় ৮২ শতাংশ রান! ওপরের এই পরিসংখ্যানগুলো অবিশ্বাস্য নয়। কিন্তু বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের জন্য একরকম ছিল অভাবনীয়। তার ব্যাটিং দেখে কখনও মনে হয়েছে ‘হাইলাইটস।’ কখনও ছড়িয়েছে বিস্ময়, ভিডিও গেমস নয় তো! বিদেশিদের কাছে স্লান দেশিরা। ফাইনাল মঞ্চ নিজের করে নিয়ে সমস্ত দেশি ব্যাটসম্যানদের হয়ে যেন খেললেন তামিম, ‘ইনিংসের সবচেয়ে ভালো ব্যাপার যেটি ছিল, আপনারা নরম্যালি দেখেন, বড় ম্যাচে সবসময় বিদেশি ক্রিকেটাররাই ভালো খেলে, পারফর্ম করে। সেমিফাইনাল-ফাইনালে তারাই ম্যাচ জেতায়। আজ একজন বাংলাদেশি জিতিয়েছে, এটিই আমার সেরা অর্জন আজকে। কত রান করেছি, কত কিছু করেছি, এসব ব্যাপার না। কিন্তু বাংলাদেশের একজন ক্রিকেটার আজ ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিয়েছে। এর চেয়ে বড় কিছু আমার কাছে আর হতে পারে না।’



 

Show all comments
  • রিদওয়ান বিবেক ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪০ এএম says : 0
    ওয়ানডেতে একটি ট্রিপল সেঞ্চুরিকে লক্ষ্য ধরে তামিমের এগিয়ে যাওয়া উচিত।সেটা যে দলের বিপক্ষেই হোক।
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪০ এএম says : 1
    একদিনের ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি করার ক্ষমতা বর্তমানে শুধু রোহিতের আছে। তামিমের এখনো অনেক দূর যেতে হবে!
    Total Reply(0) Reply
  • সাবের হোসেন ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 1
    টেস্টে ট্রিপল এর সম্ভাবনা আছে বাংলাদেশীদের মধ্যে বর্তমানে মুশফিক এবং মোমিনুল এর। তামিম এখানেও অনেক পিছিয়ে আছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Aminul Haque ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    এগিয়ে যাও তামিম,তোমার জন্য শুভ কামনা রইলো। তোমার নান্দনিক ব্যাটিং আমাকে সব সময় মুগ্ধ করে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mahfuz Hossain ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    তামিম ভাই দেশের সম্পদ
    Total Reply(0) Reply
  • Moni Babu ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    Tamim is the best batsman in Bangladesh
    Total Reply(0) Reply
  • Md Asraful Azad ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    স্যালুট তামিম ইকবাল কে
    Total Reply(0) Reply
  • Emran Hossen ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    অভিনন্দন কুমিল্লা কে স্বাগতম কুমিল্লা দলকে ধন্যবাদ তামিম ভাই সহ দলের সবাইকে অভিনন্দন
    Total Reply(0) Reply
  • Faisal Hamid ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    The great legend.
    Total Reply(0) Reply
  • মানিকুজ্জামান রতন ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    খুব ভাল লাগল
    Total Reply(0) Reply
  • আইয়ুব আলী ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১৭ পিএম says : 0
    বাংলাদেশের প্রতিটি খেলা এমন হওয়া উচিত
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন