Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী।

হাওড়ে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি : ৩৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দুদকের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৯ পিএম

হাওড়ে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি, অনিয়ম ও কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ৩৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রের অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অনুমোদিত চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়েছে ৩৪ জনকে। অন্যদিকে নতুন করে আসামি করা হয়েছে ছয়জনকে। কমিশন থেকে রোববার এ অভিযোগপত্র অনুমোদন দেয়া হয় বলে দুদক সূত্রে জানা গেছে।

২০১৭ সালের ২ জুলাই হাওড়ে ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে সুনামগঞ্জ জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ১৫ কর্মকর্তা এবং ৪৬ ঠিকাদার ও প্রতিষ্ঠানসহ মোট ৬১ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছিল দুদক। কমিশনের সহকারী পরিচালক মো. ফারুক আহমেদ বাদী হয়ে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ওইদিনই সুনামগঞ্জ পাউবোর বরখাস্ত হওয়া নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আফছার উদ্দীন ও মো. বাচ্চু মিয়াকে গ্রেফতার করে দুদক।

অভিযোগপত্রে মামলা দায়েরের সময় উল্লেখ করা হয়, যে ২৭ জনের নাম রয়েছে তারা হলেন, পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী (অতিরিক্ত মহাপরিচালকের দপ্তর) মো. আফছার উদ্দীন, সহকারী প্রকৌশলী (বি.বাড়িয়া) মো. খলিলুর রহমান, উপসহকারী প্রকৌশলী (ঢাকা) মো. শহিদুল্লাহ, উপসহকারী প্রকৌশলী ( নেত্রকোনা) ইব্রাহিম খলিল উল্লাহ খান, উপসহকারী প্রকৌশলী (কক্সবাজার) খন্দকার আলী রেজা, উপসহকারী প্রকৌশলী (ঢাকা) মো. শাহ আলম, উপসহকারী প্রকৌশলী (সাতক্ষীরা) মোহাম্মদ মাহমুদুল করিম, উপসহকারী প্রকৌশলী (ঢাকা) মো. মোছাদ্দেক ও উপসহকারী প্রকৌশলী (ঝালকাঠি) সজিব পাল, ঠিকাদার মো. আফজালুর রহমান, পার্থ সারথী পুরকায়স্থ, শেখ মো. মিজানুর রহমান, আবুল মহসীন মাহবুব, নিয়াজ আহমেদ খান, মিলন কান্তি দে, খান মো. ওয়াহিদ রনি, মো. সোয়েব আহমেদ, মো. ইউনুস, মো. আব্দুল কাইয়ুম, মো. আতিকুর রহমান, মো. গোলাম সরোয়ার, মো. নুরুল হক, মো. শাহরিন হক মালিক, মোকসুদ আহমেদ, মো. সাইদুল হক, কাজি হাসিনা আফরোজ ও শেখ আশরাফ উদ্দিন।
এছাড়া অভিযোগপত্রে নতুন যোগ হওয়া অন্য ছয় আসামি হলেন, পাউবোর সিলেট সার্কেলের সহকারী প্রকৌশলী লিংকন সরকার, উপবিভাগীয় প্রকৌশলী (বি.বাড়িয়া) রঞ্জন কুমার দাস, সহকারী প্রকৌশলী (সুনামগঞ্জ) অনিক সাহা, উপসহকারী প্রকৌশলী ইমরান হোসেন, নিহার রঞ্জন দাস ও ঠিকাদার মোহাম্মদ ইউনুস অ্যান্ড ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেডের ও পরিচালক (কনস্ট্রাকশন) মো. শরিফুল ইসলাম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুর্নীতি

১৬ জানুয়ারি, ২০১৯
৮ অক্টোবর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ