Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১১ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

পাঁচদিন আগে কম্বোডিয়া যাবে জাতীয় দল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫২ পিএম

প্রায় পাঁচ মাস পর ফিফা আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী ৯ মার্চ কম্বোডিয়ায় স্বাগতিকদের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে মাঠে নামবে ইংলিশ কোচ জেমি ডে’র শিষ্যরা। এই ম্যাচ খেলার পাঁচদিন আগেই কম্বোডিয়া যাবে বাংলাদেশ জাতীয় দল। এমনটাই সোমবার জানালেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ। তিনি বলেন, ‘যেহেতু বর্তমানে দেশে ঘরোয়া সর্বোচ্চ লিগের খেলা চলছে। তাই লিগ বন্ধ করে আমাদের ক্যাম্প করার কোনো সুযোগ নেই। তাই কোচ জেমি লিগের ম্যাচ দেখে দল নির্বাচন করে খেলোয়াড়দের নিয়ে ৫ দিন আগেই কম্বোডিয়া চলে যাবেন এবং সেখানেই ম্যাচের পূর্ব মূহূর্ত পর্যন্ত দলকে অনুশীলন করাবেন।’

জাতীয় ফুটবল দল সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে গত বছরের ১০ অক্টোবর। কক্সবাজারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনালে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে হারের পর জাতীয় দলের কোনো কার্যক্রমই নেই। এর মধ্যে বাফুফে ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলার চেষ্টা করেও প্রতিপক্ষ পায়নি। অবশেষ ঠিক দীর্ঘ ৫ মাস পর ফের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নামছে লাল-সবুজরা। যদিও কম্বোডিয়ার বিপক্ষে ফিফা প্রীতি ম্যাচের আগে কোনো ক্যাম্প করতে পারছেন না বাংলাদেশের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে। কারণ বর্তমানে দেশের ছয় ভেন্যুতে চলছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) খেলা। জেমি এখন ভেন্যু থেকে ভেন্যুতে ছুটে বেড়াচ্ছেন কম্বোডিয়া ম্যাচের জন্য জাতীয় দলের খেলোয়াড় বাছাই করতে। বিপিএলের দশম পর্ব শেষ হবে ৫ মার্চ। ওই দিনই কোচ জেমি ডে তার দল নিয়ে যাবেন কম্বোডিয়া। সেখানেই তিন দিন অনুশীলনের পর স্বাগতিকদের বিপক্ষে মাঠে নামবে তার দল।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ২০ ধাপ এগিয়ে কম্বোডিয়া। ফিফার সর্বশেষ র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ যেখানে ১৯২তম স্থানে রয়েছে, সেখানে কম্বোডিয়া অবস্থান ১৭২তম। র‌্যাঙ্কিংয়ে পিছিয়ে থাকলেও কম্বোডিয়ার বিপক্ষে অতীত রেকর্ড লাল-সবুজদের পক্ষেই। এখন পর্যন্ত দুই দেশ তিনটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। যার দুটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। একটি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

২০০৬ সালে এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ সামনে পায় কম্বোডিয়াকে। ওই ম্যাচে বাংলাদেশ ২-১ গোলে জয় পেয়েছিল। পরের বছর ভারতের দিল্লিতে নেহরু কাপে দু’দলের ম্যাচটি ১-১ ব্যবধানে ড্র হয়েছিল। ২০০৯ সালে ফিফা প্রীতি ম্যাচে কম্বোডিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে তাদের বিপক্ষে দ্বিতীয় জয়টি পেয়েছিল বাংলাদেশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় দল

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
৩১ আগস্ট, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ