Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২১ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

বিমানবাহিনী প্রধানের সঙ্গে ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

বাংলাদেশ বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাতের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল বীরেন্দর সিং ধানোয়া।
আইএসপিআর সূত্র জানায়, ঢাকায় বিমানবাহিনী সদর দপ্তরে এ সাক্ষাৎ অনুষ্টিত হয়। সাক্ষাতকালে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী প্রধান ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধানের সঙ্গে পারস্পরিক কুশলবিনিময় করেন এবং বাংলাদেশ সফরের জন্য এয়ার চিফ মার্শাল বীরেন্দর সিং ধানোয়াকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এ ছাড়া তারা বাংলাদেশ ও ভারতের বিমানবাহিনীর মধ্যকার বিদ্যমান সম্পর্ক আরও জোরদার করার লক্ষ্যে পারস্পারিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এর আগে সকালে ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধান ঢাকা সেনানিবাসের শিখা অনির্বাণে যান এবং সেখানে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে একাত্তরের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শাহাদৎ বরণকারী সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ভারতীয় বিমান বাহিনী প্রধান বিমানবাহিনী সদর দপ্তরে এসে পৌঁছালে বিমানবাহিনীর একটি চৌকস কন্টিনজেন্ট তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। তিনি গার্ড পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। এ ছাড়া তিনি বিমানবাহিনী সদর দপ্তর প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপণ করেন।
বাংলাদেশে অবস্থানকালে ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সেনা সদর, নৌসদর, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ, ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ, বিমানবাহিনী ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান, বিমানবাহিনী ঘাঁটি জহুরুল হক পরিদর্শন করবেন। গত রোববার ভারতীয় বিমানবাহিনী প্রধান সস্ত্রীক ৩ সদস্যের প্রতিনিধি দলসহ ৫দিনের সরকারি সফরে বাংলাদেশে আসেন। ভারতের বিমানবাহিনী প্রধানের এ সফর দুই দেশের বিমানবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান সুসম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করা যায়।
বিদায় নিচ্ছেন বিশ্বব্যাংকের আবাসিক পরিচালক
কূটনৈতিক সংবাদদাতা : প্রায় তিন বছর বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংকের আবাসিক পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন চীনের নাগরিক কিমিয়াও ফান। একই সঙ্গে নেপাল ও ভুটানের দায়িত্বেও ছিলেন। এবার ঢাকা থেকে বিদায় নিচ্ছেন তিনি। গতকাল সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে এসেছিলেন। যদিও সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কেবিনেট মিটিং ও বিকালে সংসদে যোগ দেওয়ায় সাক্ষাৎ হয়নি।
এর আগে গত রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার আগে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে বিদায়ী বৈঠকে মিলিত হন কিমিয়াও ফান। বাংলাদেশে আসার আগে বেলারুশ, মলদোভা ও ইউক্রেইনে বিশ্বব্যাংকের আবাসিক প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৯১ সালে বিশ্বব্যাংকে যোগ দেন তিনি।
কিমিয়াও ফান গত রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে গত এক দশকে তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশের অসাধারণ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের ভুয়সী প্রশংসা করেন। সে সময় ফান বলেন, বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। ঘনবসতির দেশ হওয়া সত্তে¡ও বাংলাদেশ অসাধারণ অগ্রগতি অর্জন করেছে।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৭৫-এর পর এ উন্নয়ন সামরিক শাসকদের হাতে চরমভাবে অবহেলিত হয়েছে। বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়নে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য হলো একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ হওয়া। আমরা সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন করতে চাই। বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতেও বিরাট অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। তার সরকার বেসরকারি খাতে সকল ক্ষেত্র উন্মুক্ত করে দিয়েছে।

 

 



 

Show all comments
  • ash ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:৪২ পিএম says : 0
    JUST WESTING TIME !!!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিমানবাহিনী


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ