Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

কেশবপুরে গরু চুরির অভিযোগে গণপিটুনিতে একজন নিহত

কেশবপুর উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:০০ পিএম

কেশবপুরে গরু চুরি করতে গিয়ে গণপিটুনির শিকার হয়ে আনিন নাঈম (২৪) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। এঘটনায় থানায় হত্যা মামলা হয়েছে।
নিহত আনিন নাঈম উপজেলার নতুন মুলগ্রামের মশিয়ার রহমান সরদারের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ভান্ডারখোলা এলাকায় প্রতি রাতেই বিভিন্ন বাড়িতে গরু চুরি হচ্ছিল। গরু চুরি ঠেকাতে এলাকাবাসীরা প্রতি রাতেই পাহারা দিয়ে আসছিলো। সোমবার রাতে হাড়িয়াঘোপ গ্রামের আবদুস সোবহানের বাড়িতে গরু চুরি করতে আসলে এলাকাবাসীরা খবর পেয়ে চোরকে ধাওয়া দেয়। পালিয়ে যাওয়ার সময় চোরটি ভান্ডাখোলা গ্রামে রাস্তার পাশে একটি টিউবওয়েলে বেধে পড়ে যায়। এলাকাবাসীরা সেখানে তাকে মারপিট করলে সে নিহত হয়।
এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহিন জানান, গণপিটুনিতে আনিন নাঈম নামের এক চোর নিহত হয়েছে। পার্শ্ববর্তী কলারোয়া থানাসহ বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে একাধিক চুরির মামলা রয়েছে। কেশবপুর থানায় নিহতের বিরুদ্ধে একটি চুরি মামলা রয়েছে। মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশ খবর পেয়ে উপজেলার ভান্ডারখোলা গ্রামের তিন রাস্তার মোড়ে জনৈক হাবিবুর রহমানের দোকানের সামনে রাস্তার ওপর পড়ে থাকা লাশ উদ্ধার করে। লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২শ৫০শয্যা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা মশিয়ার রহমান সরদার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ৫০ থেকে ৬০ জনের নামে মামলা করেছে।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ