Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১১ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে পঞ্চগড়ের কাদিয়ানী সম্মেলন বন্ধ করুন

ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব

রাজশাহী ব্যুরো: | প্রকাশের সময় : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:২৩ এএম

বিশ্বনবী মুহাম্মাদ (সা.) কে শেষ নবী ও রাসূল হিসাবে অস্বীকারকারী কাদিয়ানী স¤প্রদায়ের পঞ্চগড় আহমদনগরে আয়োজিত জাতীয় ইজতেমার নামে ঈমান বিধ্বংসী কার্যক্রম বন্ধের জোর দাবি জানিয়েছেন ‘আহলেহাদীস আন্দোলন বাংলাদেশ’ এর আমীর প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব।
তিনি বলেন, ইহূদী-খ্রিস্টান চক্রের লালিত-পালিত মিথ্যা নবুওয়াতের দাবিদার মির্যা গোলাম আহমাদ কাদিয়ানী প্রতিষ্ঠিত আহমাদিয়া স¤প্রদায়কে মুসলিম উম্মাহ ‘কাফির’ হিসাবে স্বীকৃতি দিয়েছেন।
এ যাবত পৃথিবীর অন্তত ৪০টি মুসলিম দেশে এদেরকে অমুসলিম ঘোষণা করা হয়েছে। ১৯৭৪ সালে ‘রাবেতা আলমে ইসলামী’র উদ্যোগে মক্কায় অনুষ্ঠিত ১৪৪টি রাষ্ট্র ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং ১৯৮৮ সালে ইরাকে অনুষ্ঠিত ‘ওআইসি’ শীর্ষ সম্মেলনে এদেরকে ‘কাফির’ ঘোষণা করা হয়। বাংলাদেশে ১৯৮৫ সালে এবং ১৯৯৩ সালে সুপ্রীম কোর্টের দু’টি মামলার রায়ে এদেরকে ‘অমুসলিম’ হিসাবে গণ্য করা হয়। ১৯৯৭ সালের ২৭শে ফেব্রুয়ারীতে ঢাকার সোবহানবাগ মসজিদে অনুষ্ঠিত বিরাট মুসল্লী সমাবেশে প্রেসিডেন্ট শাহাবুদ্দীনের উপস্থিতিতে মসজিদে নববীর সম্মানিত খতীব ড. আব্দুর রহমান আল-হুযায়ফী এদেরকে ‘কাফির’ ঘোষণা করে বলেন, এদেরকে যারা মুসলমান মনে করে তারাও ‘কাফির’। সরকারের নিকট দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, এদেরকে অনতিবিলম্বে ‘কাফির’ ঘোষণা করে কাদিয়ানী বিতর্ক শেষ করতে হবে। অমুসলিম সংখ্যালঘু হিসাবে অন্যদের ন্যায় তারাও দেশে বসবাস করুক, আমাদের আপত্তি নেই।



 

Show all comments
  • Hafizur Rahman ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৮:১১ এএম says : 0
    এদেরকে অনতিবিলম্বে ‘কাফির’ ঘোষণা করে কাদিয়ানী বিতর্ক শেষ করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ