Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

মার্কিন হামলায় নিহত ৫০

সিরিয়ার প্রতি ইঞ্চি ভূমি জঙ্গিমুক্ত করা হবে : তুর্কি মন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সিরিয়ার দেইর আজজর প্রদেশে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় অন্তত ৫০ বেসামরিক নিহত হয়েছেন। বিগত ২৪ ঘণ্টায় এই প্রাণহানি হয় বলে স্থানীয় সূত্রকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস্থা। সিরিয়ায় ২০১১ সালে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধে আড়াই লাখ মানুষ নিহত হয়েছেন। বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ১০ লাখের বেশি মানুষ। সিরিয়ার চলমান সংকট নিয়ে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান বিপরীতধর্মী। বর্তমান প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। এ জন্য তারা আসাদ সরকারের বিদ্রোহ ঘোষণাকারী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে অস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করছে এবং ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালাচ্ছে। তবে আসাদ সরকারের দাবি, আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে যুক্তরাষ্ট্র মূলত বিদ্রোহীদের সহযোগিতা করতে সরকারি বাহিনীর ওপর হামলা চালায়। আর রাশিয়া বাশার আল আসাদকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। আসাদ সরকারের সমর্থনে রাশিয়া-ইরানও আইএস এবং বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালাচ্ছে। সিরিয়া সংকটকে কেন্দ্র করে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র ছায়াযুদ্ধে মেতে উঠেছে বলে অনেকেই মনে করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা বলেন, প্রদেশের বোগোজ শহরে আইএস জঙ্গিদের লক্ষ্য করেই ওই হামলা চালানো হয়। হামলা নিয়ে এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি মার্কিন জোট। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তায় ওই অঞ্চলর দখল নেয় পিকেকে। সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র ও ফরাসি বাহিনীর হামলায় আইএসর বিরুদ্ধে অভিযান চারায় তারা। বর্তমানে শুধু বোগোজ শহরেই আইএসের উপস্থিতি রয়েছে। অপর এক খবরে বলা হয়, সিরিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল মিকদাদ দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেছেন, তার দেশের প্রতি ইঞ্চি ভূমি জঙ্গিদের কাছ থেকে পুনরুদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত সন্ত্রাস বিরোধী লড়াই চালিয়ে যাবে সিরিয়ার সেনাবাহিনী। লেবাননের আল-মানার টিভিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ প্রত্যয় জানান। ফয়সাল মিকদাদ বলেন, সিরিয়ার সেনাবাহিনীর নিজের সক্ষমতা ও শক্তিমত্তার প্রতি পূর্ণ আস্থা রয়েছে এবং তারা চলমান সহিংসতা শেষে দেশের প্রতিটি স্থান পুনরুদ্ধার করবে। সিরিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তার দেশের প্রতিটি অলি-গলি জঙ্গিমুক্ত হতে আর বেশি দেরি নেই। চূড়ান্ত বিজয়ের পর সিরিয়ার জনগণ বিশ্বের বুকে আবার আগের মতো মাথা উচু করে দাঁড়াতে পারবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। সিরিয়ার সেনাবাহিনী আট বছরের যুদ্ধ শেষে বর্তমানে দেশের প্রায় গোটা এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। আনাদোলু, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মার্কিন হামলায় নিহত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ