Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

লড়াইও করতে পারল না বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

অনেকটা অনুমিতই ছিল। তবে আশাও ছিল কিছুটা লড়াইয়ের। নিউজিল্যান্ডের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে মুখ থুবড়ে পড়া ব্যাটিং আর নিজেদের নখদন্তহীন বোলিংয়ে অধরাই থেকে গেল বাংলাদেশের জয়। প্রথম ওয়ানডেতে বড় হারে সিরিজ শুরু করলো মাশরাফির দল।

গতকাল নেপিয়ারে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ২৩২ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ছোট পুঁজি নিয়ে জিততে যে বোলিং, ফিল্ডিং দরকার ছিল তার কোনোটিই করতে পারেনি বাংলাদেশ। ২ উইকেটে ৩৩ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে নিউজিল্যান্ড। মার্টিন গাপটিলের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে ভর করা ৮ উইকেটের এই জয়ে ৩ ম্যাচের সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

১১৬ বলে আট চার ও চার ছক্কায় ১১৭ রানে অপরাজিত থাকেন গাপটিল। তার সঙ্গে ৯৬ রানের জুটি গড়া রস টেইলর ৪৯ বলে ছয় চারে অপরাজিত থাকেন ৪৫ রানে। এছাড়া আরেক ওপেনার হেনরি নিকোলাস খেলেন ৫৩ রানের ধৈর্য্যশীল ইনিংস। বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট নেন মাহমুদউল্লাহ ও মিরাজ। উইকেট না পেলেও মিতব্যায়ী ছিলেন মাশরাফি। ৮.০ ওভার হাত ঘুরিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক দিয়েছেন ৩৩ রান।

নিউজিল্যান্ডে গিয়ে প্রথম টস ভাগ্যে জিতেছেন মাশরাফি মুর্তজা। তবে ব্যাট করতে নেমে কিউই গতি আর সুইংয়ের সামনে শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকে সফরকারীরা। নয় ওভারে ৪২ রান তুলতেই হারিয়ে বসে প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে। মাত্র ৫ রানে তামিমকে হারিয়ে খাবি খাওয়া শুরু, আত্মাহুতির মিছিলে একের পর এক সামিল হয়েছেন লিটন দাস (১), মুশফিকর রহিম (৫), মাহমুদউল্লাহ রিয়ান (১৩)। স্রোতের বীপরিতে কিছুটা লড়াইয়ের আভাস দিয়ে থেমেছেন সৌম্য সরকার। তবে পরিস্থিতির বিচারে অস্থির সব শটে টেনে নিতে পারেন নি বেশিদূর। ২২ বলে ৫টি চার ও এক ছক্কায় থেমেছেন ৩০ করে।

যে কাজটি দরকার ছিল, সেই কাক্সিক্ষত জুটির দেখা পায় ৬ষ্ঠ উইকেটে এসে। কিছুটা আশা দেখাচ্ছিলেন সাব্বির-মিঠুন। তবে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাব্বির সঙ্গ দিতে পারেন নি বেশিক্ষণ, তার ১৩ রানের বিদায়ে ভাঙে ২৩ রানের জোড়। বাড়ে বিপর্যয়।

সেখান থেকে বাংলাদেশকে টেনে তুললেন মোহাম্মদ মিঠুন। দুই অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে সঙ্গে নিয়ে পাড়ি দেন বন্দুর এই পথ। অষ্টম উইকেটে রেকর্ড জুটি গড়লেন সাইফউদ্দিনের সঙ্গে। ৫৮ বলে ৪১ রান করেন সাইফ। নবম ওভারে ক্রিজে যাওয়া মিঠুন ৯০ বলে পাঁচ চারে ফিরেন ৬২ রান করে। অষ্টম উইকেটে এই জুটি যোগ করে ৮৪ রান। বাংলাদেশের ইতিহাসে যা সর্বোচ্চ। আর তাতেই মান বাঁচানো স্কোর পায় মাশরাফির দল। তবে শেষরক্ষা হয়নি।

নিউজিল্যান্ডের দুই বাঁহাতি বোলার ট্রেন্ট বোল্ট ও মিচেল স্যান্টনার সুইংয়ে নেন ৩টি করে উইকেট। গতি দিয়ে ভোগান ২ উইকেট নেওয়া লকি ফার্গুসন।

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড, ১ম ওয়ানডে
নেপিয়ার, টস : বাংলাদেশ
বাংলাদেশ ইনিংস রান বল ৪ ৬
তামিম ক লাথাম ব বোল্ট ৫ ৬ ১ ০
লিটন বোল্ড হেনরি ১ ৮ ০ ০
সৌম্য ক এন্ড ব হেনরি ৩০ ২২ ৫ ১
মুশফিক বোল্ড বোল্ট ৫ ১৪ ১ ০
মিঠুন বোল্ড ফার্গুসন ৬২ ৯০ ৫ ০
মাহমুদউল্লাহ ক টেইলর ব ফার্গুসন ১৩ ২৯ ০ ০
সাব্বির স্ট্যাম্প ব স্যান্টনার ১৩ ২০ ২ ০
মিরাজ ক নিশাম ব স্যান্টনার ২৬ ২৭ ৩ ১
সাইফউদ্দিন ক গাপটিল ব স্যান্টনার ৪১ ৫৮ ৩ ০
মাশরাফি অপরাজিত ৯ ১৪ ১ ০
মুস্তাফিজ বোল্ড বোল্ট ০ ৬ ০ ০
অতি. (লেবা ৫, নো ১, ও ১৬, পেনা ৫) ২৭
মোট (অলআউট, ৪৮.৫ ওভার) ২৩২
উইকেট পতন : ১-৫ (তামিম), ২-১৯ (লিটন), ৩-৪২ (মুশফিক), ৪-৪২ (সৌম্য), ৫-৭১ (মাহমুদউল্লাহ), ৬-৯৪ (সাব্বির), ৭-১৩১ (মিরাজ), ৮-২১৫ (সাইফউদ্দিন), ৯-২২৯ (মিঠুন), ১০-২৩২ (মুস্তাফিজ)।
বোলিং : হেনরি ৯-১-৪৮-২, বোল্ট ৯.৫-০-৪০-৩, গ্যান্ডহোম ৫-০-১৯-০, ফার্গুসন ১০-১-৪৪-২, স্যান্টনার ৮-০-৪৫-৩, নিশাম ৭-০-২৬-০।
নিউজিল্যান্ড (লক্ষ্য ২৩৩) রান বল ৪ ৬
গাপটিল অপরাজিত ১১৭ ১১৬ ৮ ৪
নিকোলাস বোল্ড মিরাজ ৫৩ ৮০ ৫ ০
উইলিয়ামসন এলবি ব মাহমুদউল্লাহ ১১ ২২ ১ ০
টেইলর অপরাজিত ৪৫ ৪৯ ৬ ০
অতিরিক্ত (লেবা ৩, ও ৪) ৭
মোট (২ উইকেট, ৪৪.৩ ওভার) ২৩৩
উইকেট পতন : ১-১০৩ (নিকোলাস), ২-১৩৭ (উইলিয়ামসন)।
বোলিং : মাশরাফি ৮.৩-০-৩৩-০, সাইফউদ্দিন ৭-০-৪৩-০, মুস্তাফিজ ৮-০-৩৬-০, মিরাজ ৮-১-৪২-১, সাব্বির ৭-০-৪১-০, মাহমুদউল্লাহ ৫-০-২৭-১, সৌম্য ১-০-৮-০।
ফল : বাংলাদেশ ৮ উইকেটে পরাজিত।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : মার্টিন গাপটিল (নিউজিল্যান্ড)।
সিরিজ : ৩ ম্যাচে ১-০তে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন