Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

জাতীয় স্বার্থে ইনকিলাব বলিষ্ঠ ভূমিকা অব্যাহত রাখবে

সিলেটে প্রীতি সম্মিলনে সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন

রফিকুল ইসলাম সেলিম ও মিসবাহ উদ্দীন আহমদ, সিলেট থেকে | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

সংবাদপত্র কখনও পুরাতন হয়না উল্লেখ করে দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেছেন, সংবাদে নতুনত্ব এবং বৈচিত্র্য আনতে হবে। দৈনিক ইনকিলাব জাতীয় স্বার্থ সুরক্ষা এবং ইসলামী সংস্কৃতি ও মূল্যবোধের পক্ষে জনমত গঠনে বলিষ্ট ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামীদিনে এ ভূমিকা আরও জোরালো হবে। উন্নয়ন ও জনকল্যাণে সরকারের নেয়া পদক্ষেপ গুরুত্বের সাথে তুলে ধরার পাশাপাশি গঠনমূলক সমালোচনার উপরও জোর দেন তিনি। গতকাল বুধবার পূণ্যভূমি সিলেটে দৈনিক ইনকিলাব ব্যুরো প্রধানদের এক প্রীতি সম্মিলনে তিনি এসব কথা বলেন। শহরতলির খাদিমে এক্সেলসিয়র রিসোর্ট মিলনায়তনে আয়োজিত সম্মেলনে সারাদেশ থেকে আসা দৈনিক ইনকিলাব ব্যুরো ও আঞ্চলিক প্রধানগণ অংশ নেন।
দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেন, নতুন সরকারের নতুন পথচলায় উন্নত দেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয় রয়েছে। জনআকাঙ্খা পূরণে বেশকিছু পদক্ষেপও নেয়া হচ্ছে। জনগণের কল্যাণে সরকারের নেয়া পদক্ষেপ জোরালোভাবে তুলে ধরতে হবে। উন্নয়ন কর্মকান্ড এবং জনস্বার্থে পরিচালিত যেকোন উদ্যোগকে ইতিবাচকভাবে উপস্থাপন করার তাগিদ দেন তিনি। একইসাথে সরকারের ভুলত্রুটির গঠনমূলক সমালোচনার উপরও গুরুত্বআরোপ করেন ইনকিলাব সম্পাদক।
তিনি সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বিশেষ করে বুড়িগঙ্গা, কর্ণফুলিসহ নদী রক্ষায় অবৈধ দখল উচ্ছেদে সাঁড়াশি অভিযানকে ইতিবাচক উল্লেখ করে বলেন, এই পদক্ষেপ জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। নদী-পাহাড়সহ জীব বৈচিত্র্য রক্ষায় দৈনিক ইনকিলাব সবসময় বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে আসছে। এই ধারা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে। এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেন, জাতীয় স্বার্থে ইনকিলাব কখনও আপোস করেনি। আগামী দিনের পথচলায় দেশ ও জনগণের পক্ষে ইনকিলাবের ভূমিকা আরোও জোরদার হবে। উন্নয়ন, বিনিয়োগ, পর্যটনসহ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে ইনকিলাব সবসময় সোচ্চার রয়েছে। দুর্নীতি, মাদক, নৈতিক অবক্ষয়ের বিরুদ্ধে জনমত গঠন করছে। এই ধারা অব্যাহত রাখতে সারাদেশ থেকে আসা ইনকিলাব সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। একইসাথে তিনি ইনকিলাব সাংবাদিকদের কানেক্টটিভিটি কাজে লাগিয়ে উন্নয়ন, সমস্যা ও সম্ভাবনার প্রকৃত চিত্র তুলে ধরার তাগিদ দেন।
দৈনিক ইনকিলাবের ক্রীড়া সম্পাদক ও ইনকিলাব ব্যুরো চীফ ফোরামের উপদেষ্টা রেজাউর রহমান সোহাগ বলেন, জন্মলগ্ন থেকেই ইনকিলাব দেশ এবং জনগণের কল্যাণে আপোষহীন ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীনের নেতৃত্বে নিরন্তর এই পথচলা আগামী দিনে আরোও শাণিত হবে। নবগঠিত ব্যুরো চীফ ফোরামের সভাপতি ও যশোর ব্যুরো প্রধান মিজানুর রহমান তোতা বলেন, ইনকিলাবের পথচলা কখনই মসৃণ ছিল না। তবে আমাদের অগ্রযাত্রা কখনও থেমে থাকেনি। সম্পাদকের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে আমরা নিরন্তর এগিয়ে যাচ্ছি।
রাজশাহী ব্যুরো প্রধান রেজাউল করিম রাজু ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিন উল্লেখ করে বলেন, বর্ণাঢ্য এ সম্মিলনের মধ্যে দিয়ে ইনকিলাবের নতুন বসন্ত শুরু হল, এই পথচলা অব্যাহত থাকবে অনন্তকাল।
চট্টগ্রামের ব্যুরো প্রধান শফিউল আলম বলেন, আমরা এমন একজন সম্পাদক পেয়েছি যিনি গতকাল ও আজ নয়, শুধু আগামী নিয়েই ভাবেন। তার নেতৃত্বে দৈনিক ইনকিলাবের অগ্রযাত্রা আগামীতে আরোও সমৃদ্ধ হবে।
স্বাগত বক্তব্যে সিলেট ব্যুরো চীফ ফয়সাল আমীন বলেন, পূণ্যভূমি সিলেটের এই সম্মিলন ইনকিলাব সাংবাদিকদের পথচলায় নতুন প্রেরণা যোগাবে। দেশের অন্যতম জনপদ সিলেটে এমন আয়োজনের জন্য তিনি ইনকিলাব সম্পাদককে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। প্রীতি সম্মিলনে ব্যুরো চীফ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালি ব্যুরো প্রধান আনোয়ারুল হক আনোয়ার, চীফ কো-অর্ডিনেটর ও ব্যুরো চীফ ফোরামের কোষাধ্যক্ষ মো. রবিউজ্জামান, বরিশাল ব্যুরো প্রধান নাসিম উল আলম, বগুড়া ব্যুরো প্রধান মহসিন রাজু, ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান শামসুল আলম খান, কক্সবাজার ব্যুরো প্রধান শামসুল হক সারেক, খুলনা ব্যুরো প্রধান আবু হেনা মুক্তি, চট্টগ্রাম ব্যুরোর সিনিয়র রিপোর্টার রফিকুল ইসলাম সেলিম, ম্যানেজার (বিজ্ঞাপন) আনোয়ার সাদাত মুরাদ, সিলেট ব্যুরোর স্টাফ রিপোর্টার মিসবাহ উদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।
দৈনিক ইনকিলাবের অনলাইন সংস্করণের বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন ইনকিলাবের আইটি প্রধান সৈয়দ আহসানুর রহমান গালীব। দু’দিনব্যাপী এ সম্মিলনের প্রথম দিনে দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীনকে ব্যুরোচীফ ফোরামের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।


দৈনিক ইনকিলাব ব্যুরো চীফ ফোরামের আত্মপ্রকাশ
তোতা সভাপতি, আনোয়ার সম্পাদক
‘দৈনিক ইনকিলাব ব্যুরো চীফ ফোরামের’ আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীনকে প্রধান পৃষ্টপোষক এবং ক্রীড়া সম্পাদক রেজাউর রহমান সোহাগকে এ ফোরামের উপদেষ্ঠা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সিলেট শহরতলির খাদিমে এক্সেসিয়র রিসোর্টের সম্মেলনকক্ষে এক অনুষ্ঠানে সর্বসম্মতিক্রমে এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে যশোর ব্যুরো প্রধান মিজানুর রহমান তোতাকে সভাপতি ও নোয়াখালী ব্যুরো প্রধান আনোয়ারুল হক আনোয়ারকে সাধারণ সম্পাদক ও চীফ কো-অর্ডিনেটর মো. রবিউজ্জামানকে কোষাধ্যক্ষ করা হয়।
ফোরামের সদস্যরা হলেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান রেজাউল করিম রাজু, চট্টগ্রামের ব্যুরো প্রধান শফিউল আলম, বরিশাল ব্যুরো প্রধান নাসিম উল আলম, বগুড়া ব্যুরো প্রধান মহসিন রাজু, ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান শামসুল আলম খান, সিলেট ব্যুরো প্রধান ফয়সাল আমীন, কক্সবাজার ব্যুরো প্রধান শামসুল হক সারেক, খুলনা ব্যুরো প্রধান আবু হেনা মুক্তি, চট্টগ্রাম ব্যুরোর সিনিয়র রিপোর্টার রফিকুল ইসলাম সেলিম, দিনাজপুর আঞ্চলিক প্রধান মাহফুজুল হক আনার।



 

Show all comments
  • সফিক আহমেদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪১ এএম says : 0
    ইনকিলাব ছাড়া দেশে শতকরা ৯২ ভাগ মানুষের নিজস্ব কোন কাগজ নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • ইমরান ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪১ এএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবসহ অসংখ্য সৃষ্টির কারণে মাওলানা এমএ মান্নান (রহ) সাহেবকে যুগ যুগ ধরে এদেশের মানুষ স্বরণ রাখবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Jamal Uddin ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪২ এএম says : 0
    জন্মলগ্ন থেকে দৈনিক ইনকিলাব দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও ইসলামী আকিদা বিশ্বাসের ব্যাপারে আপোষহীন ভূমিকা পালন করে আসছে। ইনকিলাব কারো পক্ষের বা বিপক্ষের নয় ‘ইনকিলাব শুধুমাত্র দেশ ও জনগণের পক্ষে’ কথা বলে যাচ্ছে। তাই ইনকিলাব এখনো দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয়।
    Total Reply(0) Reply
  • জাবেদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪৩ এএম says : 0
    ইনকিলাব পদে পদে নানা প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও এ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের আকীদা-বিশ্বাসে যে কোনো আঘাতের বিরুদ্ধে সর্বদা সতর্ক, সজাগ। ইসলামকে নিয়ে মস্কারা করা, ইসলাম ও কোরআন হাদীসের অবমাননা করাকে ইনকিলাব কিছুতেই প্রশ্রয় দেয় না। যারা ইসলামের বিকৃতি-অপব্যাখ্যার মাধ্যমে সাধারণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত ও বিপদগামী করতে চায়, ইনকিলাব তাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থান নেয় এবং এসব ব্যাপারে আলেম সমাজকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানায়।
    Total Reply(0) Reply
  • Shahead Ahmed ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৩২ এএম says : 0
    ইনকিলাব আমারও পছন্দের পত্রিকা
    Total Reply(0) Reply
  • Fazlul Haque ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৩৬ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ। ইসলামি তাহজিব তামাদ্দুন রক্ষার মুখপত্র দেশের শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ইনকিলাবের জন্য রইল শুভ কামনা।
    Total Reply(0) Reply
  • ওমর সানি ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪০ এএম says : 0
    ইনকিলাব যতদিন তার নীতি নৈতিকতায় অটল থাকবে, ততদিন এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ তাদের পাশে থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রোমান কবির ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪০ এএম says : 0
    রোজ কেয়ামত পর্যন্ত যেন দৈনিক ইনকিলাবের এই সিলসিলা জারি থাকে- মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমিনের কাছে সেটাই প্রার্থনা করি।
    Total Reply(0) Reply
  • আবু নোমান ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাব তার দীর্ঘ পথচলায় সব সময় সত্য-সুন্দর এবং ইসলাম ও দেশের পক্ষে লেখনি চালিয়ে আসছে। সব ধরণের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে সব সময় সাহসী লেখনীর ধারা অব্যাহত রেখেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • সুলতান ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    ইনকিলাবের এই আপোষহীন ভুমিকা কারণেই আমরা শুরু থে আজ পর্যন্ত এর পাশে আছি
    Total Reply(0) Reply
  • নাহিদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    ইনকিলাব কারো পক্ষের বা বিপক্ষের নয়, ইনকিলাব শুধুমাত্র দেশ ও জনগণের পক্ষে কথা বলে যাচ্ছে। তাই ইনকিলাব এখনো দেশের মানুষের কাছে জনপ্রিয়।
    Total Reply(0) Reply
  • ফজলুল হক ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    মাওলানা এম. এ. মান্নান (রহঃ) যেভাবে এ দেশের ইসলাম, মুসলমান ও মাদ্রাসা শিক্ষার জন্য কাজ করে গেছেন ঠিক একইভাবে তার সুযোগ্য সন্তান এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবেও কাজ করছেন। এজন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করি, এই পরিবার ও তাদের সকল কর্মকাণ্ডের প্রতি তিনি যেন রহমত ও বরকত দান করেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Yeasin Mia ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    দেশ ও জনগণের পক্ষের পাঠকপ্রিয় দৈনিক ইনকিলাব নিয়ে বিভিন্ন সময় বহুমুখী ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত হয়েছে। কোনো কিছুতেই ইনকিলাবের উচ্চকণ্ঠ ও অগ্রযাত্রাকে রোধ করতে পারেনি।
    Total Reply(0) Reply
  • ওমর সানি ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    ইনকিলাব যতদিন তার নীতি নৈতিকতায় অটল থাকবে, ততদিন এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ তাদের পাশে থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • এমদাদুল হক ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:০৯ এএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবের মত অসংখ্য ভালো প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করায় দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবকে অসংখ্য ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • শাহাদাত স্বপন ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    খুবই ভালো খবর। আমি ইসলামের প্রতিনিধিত্ব করায় ইনকিলাব পত্রিকাকে খুবই পছন্দ করি। ইনকিলাবের উত্তরাত্তোর সফলতা কামনা করছি এবং সকলকে অভিনন্দন জাানচ্ছি।
    Total Reply(0) Reply
  • তাওহিদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    অভিনন্দন প্রিয় সম্পাদক বাহাউদ্দীন সাহেব ও ইনকিলাব পরিবারকে। সত্য সংবাদ প্রকাশে আরও সক্রিয়তা ও বলিষ্ঠতা কামনা করছি।
    Total Reply(0) Reply
  • হাবিব ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    যখন দেশের সিংহভাগ মিডিয়া প্রতিকূলতা, ক্ষমতা আর অর্থের প্রলোভনের মুখে নিজেদের স্বকিয়তা বিলিয়ে দিয়ে অশুভ শক্তির এজেন্ডা বাস্তবায়নে নিয়োজিত তখনও ইনকিলাব সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশে নিজেকে অটুট রেখেছে। আপনার কথায় আমরা আরো আশাবাদী হলাম।
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুল্লাহ নায়েম শুভ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    ইনকিলাব পরিবারের জন্য অনেক অনেক অভিনন্দন ও শুভ কামনা।
    Total Reply(0) Reply
  • প্রিন্স নুর ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    দেশের অধিকাংশ গণমাধ্যমে দেশের বাস্তব চিত্র উঠে আসছে না, পত্রিকা খুললেই শুধু চাটুকারিতা, চামচামি আর একপেশি সংবাদ ছাড়া কিছুই চোখে পড়ে না। এহেন পরিস্থিতিতেও ইনকিলাব এখনও সাহসিকতা ও সততার সাথে সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে বলে মনে করি। আমার মতো সাধারণ পাঠকের কাছে বিসয়টি বেশ তৃপ্তিরও। ইসলামের খেদমতে এগিয়ে যাক ইনকিলাব পরিবার।
    Total Reply(0) Reply
  • মীর মোর্শেদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৪৫ এএম says : 0
    ইনকিলাব তার ঐতিহ্যকে ধরে রাখুক- এটাই আমাদের প্রত্যাশা। কারণ এই পত্রিকার সাথে জড়িয়ে আছে দেশের গৌরবগাঁথা, অনেক নানা জানা অধ্যায়।
    Total Reply(0) Reply
  • রফিকুল ইসলাম ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ পিএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাব দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা এবং জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষণের পাশাপাশি ইসলামী ঐতিহ্য মূল্যবোধগুলোকে প্রচারের ক্ষেত্রে যেভাবে প্রাধান্য দিয়ে থাকে, তা অনন্য, অসাধারণ।
    Total Reply(0) Reply
  • এমদাদুল হক ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ পিএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবের মত অসংখ্য ভালো প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করায় দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবকে অসংখ্য ধন্যবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • লাভলু ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৭ পিএম says : 0
    এদেশের সংখ্যাঘরিষ্ট মানুষ দেশ প্রেম ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী। আর এটাই সত্যিকার বাংলাদেশের বাস্তবতা। ইনকিলাব মূল ধারার এই চেতনাকে লালন করে আসছে। তাইতো ইনকিলাব খাঁটি বাংলাদেশী পত্রিকা।
    Total Reply(0) Reply
  • Anwarul Hpque Anwar ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:১৬ পিএম says : 0
    সময়োপযোগী বক্তব্য। মাননীয় সম্পাদক সাহেবকে অসংখ্য ধন্যবাদ আজকের অনুষ্ঠানে তাঁর সূ-চিন্তিত ও বাস্তবমুখী বক্তব্য রাখার জন্য।
    Total Reply(0) Reply
  • বছির আহমেদ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:১৭ পিএম says : 0
    শ্রদ্ধেয় সম্পাদক, প্রথমেই আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আপনার পত্রিকা প্রতিকূল অবস্থায়ও সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রচার করে যাচ্ছে। আমরা এতে উপকৃত হচ্ছি। এছাড়া ইসলাম ও মুসলিমদের প্রতিনিধিত্ব করায় আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রতি আমাদের ইমানি ভালোবাসা তৈরি হয়েছে। ইনশা আল্লাহ আপনি সফল হবেন।
    Total Reply(0) Reply
  • সাহেদ শফি ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:১৯ পিএম says : 0
    মাওলানা মান্নান সাহেবের প্রতিষ্ঠিত আমাদের প্রিয় পত্রিকা ইনকিলাব ইসলামের খেদমত করে যাচ্ছে। অবশ্যই আল্লাহ তায়ালা এর প্রতিদান দেবেন, তার প্রতিষ্ঠানকে কবুল করবেন। আমীন
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুল মতিন ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:১৯ পিএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ হজরত মাওলানা এম. এ. মান্নান (রহঃ) যেভাবে এ দেশের ইসলাম, মুসলমান ও মাদ্রাসা শিক্ষার জন্য কাজ করে গেছেন ঠিক একইভাবে তার সুযোগ্য সন্তান এ এম এম বাহাউদ্দীন সাহেবেও কাজ করছেন। এজন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করি, এই পরিবার ও তাদের সকল কর্মকাণ্ডের প্রতি তিনি যেন রহমত ও বরকত দান করেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এ এম এম বাহাউদ্দীন

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ