Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫, ১৬ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

বরেণ্য কথা সাহিত্যিক শফীউদ্দীন সরদারের ইন্তেকাল

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৩:৪২ পিএম

দেশের বরেণ্য কথা সাহিত্যিক, সাবেক প্রথম শ্রেনির ম্যাজিস্ট্রেট ও অধ্যক্ষ শফীউদ্দীন সরদার আর নেই। আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল ৮টায় নাটোর শহরস্থ নিজস্ব বাসভবন সরদার মঞ্জিলে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্না ইলাহে রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। তিনি স্ত্রী, চার পুত্র ও পাঁচ কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। আজ বাদ মাগরিব নাটোর শহরের গাড়িখানা মসজিদ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে মরহুমের লাশ গাড়িখানাস্থ কবরস্থানে দাফন করা হবে।
খ্যাতনামা শিক্ষাবিদ ও কথাসাহিত্যিক শফীউদ্দীন সরদার গত বেশ কিছুদিন ধরে কিডনি ও ফুসফুসজনিত জটিলতায় চিকিৎসাধীন ছিলেন।
খ্যাতনামা কথাসাহিত্যিক শফীউদ্দীন সরদার ইখতিয়ার উদ্দীন মুহাম্মদ বিন বখতিয়ার খলজির বঙ্গবিজয় থেকে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় পর্যন্ত সময়কালের উপর ঐতিহাসিক উপন্যাসসহ গল্প, কবিতা এবং পাঠ্যবই মিলে ৫৪টি গ্রন্থ রচনা করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে বখতিয়ারের তলোয়ার, গৌড় থেকে সোনার গাঁ, বার পাইকার দূর্গ, দাবানল, যায় বেলা অবেলায়, শেষ প্রহরী, সূর্যাস্ত, চলন বিলের পদাবলী, রাজনন্দিনী প্রভৃতি পাঠক মহলে বেশ সমাদৃত হয়েছিল।
রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ, রাজশাহী কলেজসহ বিভিন্ন সরকারি কলেজে অধ্যাপনার পর তিনি রানী ভবানি মহিলা কলেজ, বানেশ্বর ডিগ্রী কলেজসহ বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি সরকারের প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রজীবন থেকে তিনি সাহিত্যচর্চা করতেন। অবসর জীবনের পুরোটা সময় নাটোরে বসেই এই গুণী লেখক নিরলসভাবে সাহিত্য চর্চা করে গেছেন। ১৯৩৫ সালের ১ মে জন্মগ্রহণকারী সাহিত্যিক শফীউদ্দীন সরদার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাস এবং ইংরেজী সাহিত্যে ডাবল এম এ করার পর ইউনিভার্সিটি অফ লন্ডন থেকে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন। জীবনের একটি বড় অংশ সাহিত্য চর্চা করে এই গুনী লেখক দেশের সাহিত্য ভান্ডারে বহু অমূল্য সৃষ্টি রেখে গেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইন্তেকাল

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন