Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, ১৮ রজব ১৪৪০ হিজরী।

সব রোগী নিরাপদে অন্যত্র স্থানন্তর

সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৫ এএম | আপডেট : ১২:৪৮ এএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটে হাসপাতালের নতুন ভবনের দ্বিতীয় তলার স্টোর রুমে এ আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। অগ্নিকান্ডের পর হাসপাতালের প্রায় ১২ শতাধিক রোগীকে অন্যত্র স্থানন্তর করা হয়। তবে পুরো নির্বাপনে কাজ চলছে। আগুনের ঘটনা তদন্তে হাসপাতাল ও ফায়ার সার্ভিস কর্তপক্ষ আলাদা দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

এদিকে, অগ্নিকান্ডের খবর ছড়িয়ে পড়লে হাসপাতালে থাকা রোগী, স্বজন এবং চিকিৎসক ও নার্সদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে আইসিউতে থাকা ১০ রোগীসহ ১২ শতাধিক রোগীকে ঢাকা মেডিক্যালসহ আশপাশের বিভিন্ন ক্লিনিকে স্থানন্তর করা হয়
আগুনের খবর পেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তারা তাৎক্ষণিক রোগীদের স্থানন্তর ও চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সহযোগিতা করেন।
সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক উত্তম কুমার বলেন, হাসপাতালে আনুমানিক ১২ শতাধিক রোগী ছিল। তাদের সবাইকে নিরাপদে বের করা সম্ভব হয়েছে। ১০০টি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতাল সূত্র জানায়, রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত শতাধিক রোগী ঢামেকে আসে। তাদের বেশিরভাগই ব্রেন স্ট্রোকসহ নানা ধরণের সার্জারির রোগী বলে জানা গেছে। ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, সোহরাওয়ার্দী থেকে আসা রোগীদেরকে যথাযথ গুরুত্বসহকারে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আমি নিজেই তাদেরকে তদারকি করছি।
ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আলী আহাম্মেদ খান বলেন, ১৬টি ইউনিট আড়াই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তিনি বলেন, ভেতরে এখনো ধোঁয়া আছে, ফায়ার সার্ভিস ও হাসপাতালের কর্মীরা কোন কক্ষে আগুন আছে কিনা সেটি যাচাই করছে।
এদিকে, আগুনের ঘটনা তদন্তে হাসপাতাল ও ফায়ার সার্ভিস আলাদা তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। ফায়ার সার্ভিসের কমিটিকে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে এছাড়া সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের কমিটিকে আগামী ৩ থেকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অগ্নিকান্ড


আরও
আরও পড়ুন