Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

বিশ্ব ইজতেমা শুরু

মুখরিত তুরাগ তীর

মো. দেলোয়ার হোসেন ও মো. হেদায়েত উল্লাহ, টঙ্গী থেকে : | প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

টঙ্গীর তুরাগ তীরে আজ থেকে শুরু হচ্ছে তাবলিগ জামাতের ৪ দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা। ইজতেমা উপলক্ষে টঙ্গী তুরাগ তীর এখন মুখরিত। দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেছেন।
নির্মাণ করা হয়েছে ইজতেমা অনুষ্ঠানের জন্য প্রায় এক বর্গ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিশাল প্যান্ডেল। মাঠ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত। প্রস্তুতি কাজ শেষ হওয়ার পর স্থানীয় এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি মুরুব্বীদের নিয়ে ইজতেমা মাঠ পরিদর্শন করেন। মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, টঙ্গীর ইজতেমা ময়দান এখন পুরোপুরি প্রস্তুত।
এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি ইজতেমা ময়দানে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর মেট্রোপুলিশ কমিশনার ওয়াইএম বেলালুর রহমান, ধর্ম সচিব আনিসুর রহমান, ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের স্বাস্থ্য সেবায় রয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন, হামদর্দ, ইবনে সিনা, র‌্যাব, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন, যমুনা ব্যাংক, ইসলামিক মিশনসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থা। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী তার সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় বলেন, তাবলীগ জামাতের দু’পক্ষের মুরুব্বীদের মধ্যে যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছিল তা নিরসন করে একটানা ৪ দিনের বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠানের সক্ষম হয়েছি।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দলে দলে মুসল্লিরা দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেছেন। আ’ম বয়ানের মধ্য দিয়ে আজ সকাল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ব ইজতেমার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। মাত্র ৭ দিনের আয়োজনে বিশ্ব ইজতেমা মাঠের প্রস্তুতি কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবির ও গাজীপুর মেট্রো পুলিশ কমিশনার ওয়াইএম বেলালুর রহমানের সহযোগিতায় স্থানীয় এমপি জাহিদ আহসান রাসেলের নেতৃত্বে ইজতেমা মাঠের বিশাল এ আয়োজন মাত্র ৭ দিনের মাথায় সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছেন। এর সাথে পুরোপুরি সহযোগিতায় ছিলেন তাবলীগ জামাতের যোবায়ের পন্থী তাবলীগ অনুসারী মুসল্লিরা।
একটানা ৪ দিনব্যাপী বিশ্ব এজতেমা হলেও দু’গ্রুপের ভাগে থাকছে দু’দিন করে বিশ্ব ইজতেমার নিয়ন্ত্রণ। প্রথম ভাগে থাকছে যোবায়ের পন্থী তাবলীগ অনুসারী মুসল্লিদের নিয়ন্ত্রণে। দ্বিতীয় দু’দিন থাকছে সা’দ পন্থী ওয়াসেকুল ইসলামের নেতৃত্বে। এবারের ইজতেমায় আখেরি মোনাজাত থাকছে দু’বার। প্রথম বার আখেরি মোনাজাত হবে শনিবার আছর নামাজের পর। দ্বিতীয় আখেরি মোনাজাত হবে সোমবার আছর নামাজের পর। ইজতেমার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দু’গ্রুপের মধ্যে মতানৈক্য দেখা দিলে গত জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব এজতেমা মাঠে সংঘর্ষের ঘটনায় এজতেমা অনুষ্ঠান স্থগিত হয়ে যায়। ওই সংঘর্ষের ঘটনায় দুই মুসল্লি নিহত ও ৫ শতাধিক মুসল্লি গুরুতর আহত হন। পরবর্তীতে সরকার প্রধান শেখ হাসিনার বিশেষ আগ্রহে স্থানীয় এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এবং ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ এমপির নেতৃত্বে দু’পক্ষকে এক সাথে এনে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের কার্যক্রম শুরু করেন। বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে ও বিআরটিসি মুসল্লিদের আনা-নেয়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এজতেমা মাঠের সংস্কার কাজ এবং সেবামূলক কার্যক্রম নিশ্চিত করেছে। বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং এর জন্য এজতেমা মাঠে ৫টি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন, গাজীপুর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাব, আনসার ও ভিডিপির কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশ প্রশাসনের ১৫টি ওয়াচ টাওয়ার, র‌্যাবের ১০টি ওয়াচ টাওয়ার, মুসল্লিদের জন্য ৩৫০টি অস্থায়ী টয়লেট নির্মাণ, ওযু, গোসল, পয়:নিষ্কাশন ও সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ১৩টি গভীর নলকূপ থেকে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রতিদিন ৩ কোটি ৫৪ লক্ষ গ্যালন সুপেয় পানি সরবরাহের ব্যবস্থাও রয়েছে। এছাড়া রয়েছে আকাশ ও নৌ-পথে পুলিশ, র‌্যাবের নিয়মিত টহল। নিরাপত্তা চাঁদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে টঙ্গী শিল্পনগরী পুরো শহরটিকে।
ইজতেমায় দুই মুসল্লির মৃত্যু :
টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমায় আগত দুই মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মারা যান একজন বুধবার রাতে মারা যান অপরজন। এরা হচ্ছেন-ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রাজ্জাক জব্বার (৪২) ও নাটোর জেলার মোহাম্মদ আলী (৫৫)। বৃহস্পতিবার জানাজা শেষে এদের লাশ গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মাঠের জিম্মাদার আদম আলী।



 

Show all comments
  • Abu Noman ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৮ এএম says : 0
    ত্যাগের মনোভাব নিয়ে আলোচনা ও সমঝোতার মাধ্যমে তাবলীগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে একটি অটুট ঐক্য গড়ে উঠবে, এটাই প্রত্যাশিত।
    Total Reply(0) Reply
  • Fahim ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৮ এএম says : 0
    তাবলীগ জামাতের ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমার শুভ সূচনা ও সফল পরিসমাপ্তির জন্য আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করি।
    Total Reply(0) Reply
  • Ibrahim ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১০ এএম says : 0
    মাওলানা যোবায়ের এবং সাদ কান্দলভির অনুসারীরা পরস্পরের প্রতি কোনো রকম আক্রমনাত্মক ভ‚মিকা পালন করবেন না, শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্ট হয় এমন কোনো বক্তব্য তাবলীগের বয়ানে বা মাঠের বাইরে কোনো পক্ষ থেকে যেন না আসে সেদিকে সকলেই সচেষ্ট থাকবেন বলে আশা করছি
    Total Reply(0) Reply
  • Al Amin ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১১ এএম says : 0
    ধর্মীয় ভাব মর্যাদা ও ইসলামের সুমহান শিক্ষাকে ধারণ করে দুই পক্ষ পারস্পরিক সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য ও শান্তি-শৃঙ্খলা রেখে শান্তিপূর্ণভাবে বিশ্ব্ ইজতেমার ঐতিহ্য অনুসারে সফল পরিসমাপ্তি ঘটবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।
    Total Reply(0) Reply
  • Tawhid ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১২ এএম says : 0
    বাংলাদেশ এবং ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীরা এখন তাবলীগ জামাতের সুমহান ঐতিহ্য ও ঐক্যে ফাঁটল ধরাতে সক্ষম হয়েছে। বিভক্ত বিশ্বইজতেমা সেই ফাঁটলেরই বহি:প্রকাশ। ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের প্রত্যাশা হচ্ছে, বিভক্তি ও মতবিরোধের ফেতনা-ফ্যাসাদের পথ পরিহার করে তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীরা আবারো ঐক্যবদ্ধ হয়ে দ্বীনের দাওয়াতের কর্মপন্থা নির্ধারণে সক্ষম হবেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিশ্ব ইজতেমা

২৪ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন