Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সেনবাগে ২ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

সেনবাগ (নোয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের কল্যান্দী বাজার, ভূঁইয়ার দিঘী রাস্তার মাথা ও সেবারহাট বাজারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে নির্মাণ করা দোকান পাট ও বাজারের ফুটপাত দখল করে নির্মাণ করা স্থাপনা আবারো উচ্ছেদ করেছে ভ্রাম্যামান আদালত।
গত বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে তিনটা পর্যন্ত ওই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন, সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) রক্তিম চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন, নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের (এসডিও) সামছুউদ্দিন ও সেনবাগ থানা এসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, বাখাবাদ গ্যাসের লোকজন, সেনবাগ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বিদ্যুৎ কর্মী, ও বন বিভাগের বিপুল সংখ্যক কর্মী উপস্থিত ছিলেন। এসময় ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের রাস্তার উত্তর পাশে খালের ওপর ও দক্ষিন পাশের বাজারের ফুটপাত সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে দখল করে নির্মাণ করা দোকান পাট বুলডেজার দিয়ে গুড়িয়ে দিয়ে উচ্ছেদ করে। এরআগে গত ১ ফেব্রুয়ার অনুরুপ ভাবে ছমির মুন্সির হাট,সেনবাগ রাস্তার মাথা ও হাজনী খাল এলাকায় শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছিলো।
ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহাকারি কমিশনার (ভূমি) রক্তিম চৌধুরী উচ্ছেদের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নির্বিগ্নে যানবাহন চলাচল ও জননিরাপত্তা বিধানে এবং সরকারি সম্পত্তি উদ্ধাওে জেলা প্রশাসনের নিদের্শে অভিযানটি পরিচালনা করা হয়।
তিনি জানান, এখন থেকে খালপাড় সহ কোন সরকারি জায়গা অবৈধ ভাবে আর কেউ দখল জবর দখল করতে পারবেনা। যদি কেউ দখল করার চেষ্টা করে তা হলে অনুরুপ ভাবে উচ্ছেদ ও জেল জরিমানা করা হবে।
তবে খাল পাড় থেকে উচ্ছেদ হওয়া ব্যবসায়ীরা জানান, মাত্র ২৪ ঘন্টার নোটিশে তাদেরকে উচ্ছেদ করা হয়। তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, তারা নিরিহ খাল পাড়ে টুকটাক খুদ্র ব্যবসা করে পরিবারের সদস্যদের দুই বেলা খাবার ও ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার খরছ যোগান। কিন্তু সরকার তাদের বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না করে উচ্ছেদ করায় তারা পথে বসার উপক্রম হয়েছেন। তাই তাদের সরকারের নিকট একটিই দাবি যেন বিকল্প কর্মস্থানের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উচ্ছেদ


আরও
আরও পড়ুন