Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ০৮ চৈত্র ১৪২৫, ১৪ রজব ১৪৪০ হিজরী।

আলেম নামে একদল ঈমানকে হরণ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে -ছারছীনার পীর ছাহেব

মো. আবদুর রহমান: | প্রকাশের সময় : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

আমীরে হিযবুল্লাহ ছারছীনা শরীফের হযরত পীর ছাহেব আলহাজ হযরত মাওলানা শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ বলেছেন, আমরা মুসলমান। বছরের যে কোন সময় আমরা কোনো না কোনো মাহফিলে যাই। ওয়াজ মাহফিলে আসা দুনিয়ার কোনো উদ্দেশ্যে নয়। একমাত্র আল্লাহকে পাওয়ার এবং আল্লাহওয়ালা হওয়ার জন্য। শুধু তাই নয় এখানে এসে একজন সাধারণ মানুষ ওয়াজ শুনে তদানুযায়ী আমল করে আল্লাহওয়ালা হয়ে আল্লাহর খাস ওলীতে পরিণত হওয়া।
পীর ছাহেব আরও বলেন, বর্তমান জমানা ফেতনার জমানা। এই জমানায় আলেম নামে একদল লোক মানুষের ঈমানকে হরণ করার জন্য উঠে পড়ে লেগে আছে। তারা সুন্নাতকে খাটো করার এক অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। সুদ-ঘুষ হারাম অথচ এরা কোনো পরোয়া করছে না। তারাবীহ নামাজ ২০ রাকায়াতকে আট রাকায়াত, ফরজ নামাজ বাদ মোনাজাত, জানাজার নামাজের পর মোনাজাত, মিলাদ-ক্বিয়াম ইত্যাদি নিয়ে বিভিন্নভাবে কটাক্ষ করছে। তাদের থেকে দূরে থাকতে হবে। হক্কানী আলেমদের অনুসরণ করবেন। যেহেতু হক্কানী আলেমগণ হলেন নবীর ওয়ারিশ তথা উত্তরাধিকারী।
গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজবাদ আখেরী মোনাজাত পরিচালনার পূর্বে বক্তৃতায় তিনি উল্লেখিত বক্তব্য রাখেন। বরগুনার আমতলীর আমড়াগাছিয়া খানকায়ে ছালেহিয়া কমপ্লেক্সের তিনদিন ব্যাপী মাহফিলের সমাপনী বক্তব্যে দেশ ও মুসলিম উম্মাহর জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। হাজার হাজার মুসল্লীদের উপস্থিতিতে মাহফিলের শেষ দিনে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জমইয়তে হিযবুল্লাহর সিনিয়র নায়েবে আমীর ও হযরত পীর ছাহেবের বড় ছাহেবজাদা আলহাজ হযরত মাওলানা শাহ্ আবু নছর নেছারুদ্দীন আহমদ হুসাইন, নায়েবে আমীর আলহাজ হযরত মাওলানা মির্জা নূরুর রহমান বেগ, পীর ছাহেবের ছোট সাহেবজাদা আলহাজ হযরত মাওলানা শাহ্ আবু বকর মোহাম্মদ ছালেহ নেছারুল্লাহ, আমতলী উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম দেলওয়ার হোসেন, পৌর মেয়র মো. মতিয়ার রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান, নেছারাবাদ পৌরসভার মেয়র জিএম ফারুক, আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন মিলনসহ আমতলী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।



 

Show all comments
  • Mynuddin Joy ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৩ এএম says : 1
    সবার মুখেই দাড়ি, পরনে লম্বা কুর্তা, টান টান ওয়াজ। তাই আমরা যারা আমজনতা, তারা আসলে অসহায়। কারা হক আর কারা বাতেল সেটাই বুঝি না।
    Total Reply(0) Reply
  • সাদ বিন জাফর ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৪ এএম says : 1
    আসলেই ঈমান যে কে হরণ করছে তা বুঝা বড় মুশকিল। বাংলায় একটা প্রবাদ বাক্য আছে চোরের মার বড় গলা। আলেমদের ৈঐক্যবদ্ধ হওয়া দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • জিয়াউল হক ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৬ এএম says : 1
    সামগ্রিক ভাবে কথা সত্যই। আজ নামধারী আলেমরাইতো ইসলামের যত ক্ষতি করছে। এদের বেশিরভাগই পেটপুজারি। এদের থেকে সাবধান হওয়া উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 1
    যতদিন এদেশের আলেম সমাজ কুরআন ও সহিহ হাদিসের ছায়াতলে আসতে পারবে না ততদিন আন্ত:সংঘাত লেগেই থাকবে।
    Total Reply(0) Reply
  • সিরাতে মুসতাকিম ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৮ এএম says : 1
    এজন্যই তো মহানবী (স.) বলেছেন, আলেমদের দিয়ে জান্নাত উদ্বোধন করা হবে আবার তাদের দিয়েই জাহান্নাম উদ্বোধন করা হবে। এই হাদিস থেকে আপনাদেরও সতর্ক হওয়া উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • হতভাগা মুসলিম ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 1
    আপনাদের কথা শুনে জাতীয় কবির কথা মনে পড়ে গেল- 'বিশ্ব যখন এগিয়ে চলেছে আমরা তখন বসে বিবি তালাকের ফতোয়া খুঁজেছি কুরান-হাদিস চষে ৷'
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১৫ এএম says : 1
    আলেম সমাজের কাঁদা ছোড়াছুড়িতেই বরং ঈমান হরণ হচ্ছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছারছীনার পীর ছাহেব


আরও
আরও পড়ুন