Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

গাপটিলের কাছেই সিরিজ হারল বাংলাদেশ

২২৬ রানেই শেষ বাংলাদেশ!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:৪২ এএম | আপডেট : ১১:০৮ এএম, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

নেপিয়ারের ভূত তাড়া করে ফিরল ক্রাইস্টচার্চেও, ব্যাটসম্যানদের আত্মাহুতির প্রতিযোগীতায় এদিনও টিকে রইলেন মোহাম্মদ মিঠুন। আজ সঙ্গী হিসেবে পেলেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাব্বির রহমানকে। তাতেই কষ্টে-শিষ্টে দুইশ’ পেরুনো সংগ্রহ পেয়েছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে শনিবার বাংলাদেশ অলআউট হয়েছে ২২৬ রানে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে আজও সেঞ্চুরি পেয়েছেন মার্টিন গাপটিল। সেই ৮ উইকেটের জয়ও ধরা দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের। মাত্র ৩৬.১ ওভারই দুই উইকেট হারিয়ে ছোট্ট লক্ষ্য পেরিয়ে যায় স্বাগতিকরা। সিরিজে ফেরা তো দূরের কথা, নিদেনপক্ষে লড়াইটুকুও করতে পারণো না মাশরাফির দল। উল্টো ৩ ম্যাচ সিরিজে হোয়াইটওয়াশের লজ্জার সামনে বাংলাদেশ।

ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি পাওয়া গাপটিল এদিন খেলেছেন ১১৮ রানের ঝলমলে ইনিংস। মুস্তাফিজুর রহমানের বলে লিটনের তালুবন্দী হবার আগে ৮৮ বলের ইনিংসটি সাজিয়েছেন ১৪টি চার ও ৪টি ছক্কায়। কেন উইলিয়ামসন ফিফটি তুলে ছিলেন ৬৫ রানে অপরাজিত। ২১ রান করে দলকে জয়ের বন্দরে ভিড়িয়েছেন রস টেইলর।

তবে শুরুতে হেনরি নিকোলাসকে ফিরিয়ে গতির জবাবটা ভালোই দিয়েছিলেন মুস্তাফিজ।

এর আগে সকালের ঘণ্টাখানেক বৃষ্টি নিউজিল্যান্ডের গ্রীষ্মেও বাংলাদেশকে এনে দেয় শীতের জবুথবু অনুভূতি। টসের সময় তাপমাত্রা ছিল ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। উইকেট খানিকটা ঘাসের ছোঁয়া। আগে ব্যাটিং করতে চাইবে না এখানে কোনো দলই। টসে হেরে সেই কঠিন পরীক্ষাতেই নামতে হলো বাংলাদেশকে।

মেঘলা আকাশ, তীব্র বাতাস। স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া, কনকনে ঠাণ্ডা। এমন প্রতিকূল কন্ডিশনেই টস হেরে নামতে হলো ব্যাটিংয়ে। অনুমিত ভোগান্তিও সঙ্গী হলো শুরুতে। ত্রাতা হয়ে এলেন আবারও মোহাম্মদ মিঠুন। রানের দেখা পেলেন সাব্বির রহমানও। তবে দুজনের কেউই বড় করতে পারলেন না ইনিংস। বড় হলো না তাই দলের রানও।

তামিম প্রথম রানের দেখা পেয়েছেন ১৫ বল খেলে। তার পরও ছিলেন সাবধানী। তবু শেষ রক্ষা হয়নি। আউট হয়েছেন ২৮ বলে ৫ রান করে। আগের ম্যাচেও তামিম করেছিলেন ৫ রান। লিটন যেমন দুই ম্যাচেই ফিরেছেন ১ রান করে।

হতাশার পুনরাবৃত্তির পালায় ফিরেছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌম্য সরকারও। দুইশতম ওয়ানডেতে দুইবার ক্যাচ দিয়ে বেঁচেছেন মুশফিক। ৫ রানে তার ক্যাচ ছেড়েছেন টড অ্যাস্টল, ১৩ রানে রস টেইলর। এরপরও থেমেছেন ২৪ রানে। আগের ম্যাচে ৩০ রানের পর সৌম্য এবার ২২।

ব্যর্থতার মিছিলে যখন সামিল মাহমুদউল্লাহও, একশ’র আগেই (৯৩) বাংলাদেশের নেই ৫ উইকেট। বিপর্যস্ত দলকে আবারও ভরসা জোগালেন মিঠুন। তকে সঙ্গ দিলেন নিষেধাজ্ঞা কমানোর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা সাব্বির।

টানা দ্বিতীয় ফিফটিতে ৬৯ বলে ৫৭ করেছেন মিঠুন। তার সঙ্গে জুটিতে দলকে উদ্ধার করা সাব্বির সাতে নেমে করেছেন ৬৫ বলে ৪৩। স্কোরটা এই পর্যন্ত আসায় বড় অবদান আছে প্রতিপক্ষেরও। চারটি ক্যাচ ছেড়েছেন কিউইরা। আর ১৭টি ওয়াইডসহ অতিরিক্ত থেকে এসেছে ২৩ রান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন