Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ভিত্তিহীন অভিযোগ বন্ধ করুন

পুলওয়ামা হামলার পর ভারতকে পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি প্রতিবেশী ভারতের প্রতি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।
অধিকৃত কাশ্মিরের পুলওয়ামা জেলায় আত্মঘাতী হামলায় পাকিস্তান জড়িত বলে ভারত অভিযোগ করার পর কোরেশি বলেন পাকিস্তান সব সময় প্রতিবেশীদের সঙ্গে শান্তির পক্ষে কথা বলে আসছে এবং ভারতের প্রতি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শান্তির মনোভাবের রেকর্ড রয়েছে। পুলওয়ামা হামলায় ৪৪ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, যারা এই হামলার সঙ্গে জড়িত তাদেরকে উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে। পাকিস্তানকে দেয়া মোস্ট ফেভার্ড ন্যাশন (এমএনএফ) বাণিজ্য মর্যাদা বাতিল করেছে নয়া দিল্লি।
জার্মানির মিউনিখে এক সংবাদপত্রকে দেয়া সাক্ষাতকারে কোরেশি বলেন, পাকিস্তান সবসময় আফগান তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনার কথা বলেছে এবং দেশটি চলমান আফগান শান্তি প্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে যুদ্ধকবলিত দেশটিতে শুধু তাদের সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির জন্যেই শান্তি গুরুত্বপূর্ণ নয় আঞ্চলিক উন্নয়ন ও স্থিতিশীলতার জন্যও আফগান শান্তি অপরিহার্য। তিনি বলেন, আফগান সংঘাত নিরসনে পাকিস্তানের অবস্থান বিশ্ব স্বীকার করছে।
মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে জার্মানি গিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী কোরেশি। বর্তমান বিশ্ব যেসব নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে সেগুলো নিয়ে আলোচনার জন্য বিভিন্ন দেশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।
তিনি বলেন, এই সম্মেলন বর্তমান চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় ব্যাপকভিত্তিক ও যৌথ কৌশল প্রণয়নে সাহায্য করবে। সূত্র : সাউথ এশিয়ান মনিটর।



 

Show all comments
  • Faruq Faruq ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১৯ এএম says : 0
    রেন্ডিয়া মিথ্যা বাদি নতুন কিছু নয়।
    Total Reply(0) Reply
  • PL Belal ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:১৯ এএম says : 0
    ফেরাউন এত ক্ষমতাধর ছিল এবং এত বয়স পেয়েছিল যে, মানুষ মনে করতে থাকলো এর মনে হয় মৃত্যু নেই। তাই ফেরাউন তার ক্ষমতা এবং অধীককাল রাজত্ব করার দরুন অহংকার করতে লাগল ও নিজেকে খোদা বলে দাবি করা শুরু করে দিল। কিন্তু সবাই জানি, সেই ফেরাউনের শেষ পরিণতি কি হয়েছিল। আজকের যুগে এই #ইন্ডিয়া এবং ইন্ডিয়ার বাপ আমেরিকা ফেরাউনের রুপ ধারণ করেছে। কিন্তু সে ভুলেগেছে, মহান ক্ষমতাধর, মহাপরাক্রমশালী, সমস্ত বাদশার বাদশা আল্লাহর নিকট একজন নির্যাতিত ব্যক্তির ( কাশ্মীরীদের) "আহ্" শব্দটা ডাইরেক্ট পৌছে যায় এবং জালেমের শাস্তি তিনি দুনিয়া থেকেই দেওয়া শুরু করেন, যেমন ইতিহাস সাক্ষী। অবশ্যই অচিরেই আল্লাহর সাহায্য আসবে। সেদিন ইন্ডিয়ার কোনো জালেম, কোনো মূর্খ, কোনো হিন্দুই আল্লাহর পাকড়াও থেকে বাঁচতে পরবে না। জেনে রেখ, "আল্লাহর পাকড়াও বড় কঠিন"! অবশ্যই "গাজওয়ে হিন্দ" হবে এবং মুসলিমদের বিজয় হবে ইনশাল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply
  • Golam Rabbani ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:২০ এএম says : 0
    ঠিক,কাশ্মীরে ভারতই অবৈধ দখলদার।আর এই অবৈধ দখলদার ভারত যতদিন কাশ্মীর থেকে বিতাড়িত না হবে,ততদিন এধরনের অনাকাংখিত ঘটনা ঘটতে থাকবে।ভারত যত দ্রুত এই বিষয়টি মেনে নেবে,তত দ্রুতই কাশ্মীরে শান্তি ফিরে আসবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Selim Rahman ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:২০ এএম says : 0
    ভারতের আসন্ন নির্বাচনের আগে নিজেদের তৈরী নাটক মমঞ্চায়ন।
    Total Reply(0) Reply
  • Emon Akonda ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:২০ এএম says : 0
    পাকিস্তান যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে, তারা প্রতিটি ট্যাংকের উপর একটি করে গরু রাখবে, ভারতীয় সৈন্যরা তখন কি করবে,গুলি করবে নাকি গোমূত্র পান করবে!?!?
    Total Reply(0) Reply
  • Edward Gills South Asian Monitor ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:২১ এএম says : 0
    কাশ্মীরের অপর অংশ "আকসাই চীন" কার দখলে যেন??? আকসাই চীনের দখল ছেড়ে তারপর এইধরনের বিবৃতি দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Aung Thuwai Ching Marma ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:২১ এএম says : 0
    ভারত নিয়ে বলাবলি,কিন্তু---পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে বলতে গেলে সেনাবাহিনী ভাল।
    Total Reply(1) Reply
    • আবু আব্দুল্লাহ ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:৩৬ পিএম says : 0
      পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে বলতে গেলে সেনাবাহিনী ভাল, অবশই ভাল, কারন সেনাবাহিনী সেখানে কোনো অন্যায় করছেনা কোনো জুলুম নির্যাতন করছেনা
  • আবু আব্দুল্লাহ ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৬ পিএম says : 0
    বলুন পাকিস্তানের কারণে পাকিস্তানিরা যদি আমাদের সাথে না নিতেন আমরা কাশ্মীরের মত এখন ও হিন্দিদের লাত্তি খেতাম
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন