Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, ১৮ রজব ১৪৪০ হিজরী।

শেখ হাসিনার বিকল্প নেই

চাকরির বয়স ৩৫ বছর গুজব

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

দল বা সমসাময়িক বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী যদি শারীরিকভাবে সুস্থ ও সবল থাকেন তাহলে তার কোনো বিকল্প ভাবার দরকার নেই। এছাড়া তিনি যেতে চাইলেও দলের নেতাকর্মীরা তাকে ছাড়বেন কিনা, সেটা চিন্তাভাবনা করতে হবে।
গতকাল আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। রাজনীতি ছেড়ে দিলে শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ার গ্রামে গিয়ে থাকবেন বলে অভিব্যক্তি ব্যক্ত করেছেন, এ বিষয়ে দল কি ভাবছে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি এর আগেও বিদায় নিতে চেয়েছিলেন। আমাদের দলের কাউন্সিলর ও নেতাকর্মীদের চাপের মুখে তিনি ঘোষণা দিয়েও সরে যেতে পারেননি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী অনেকদিন ধরেই বলছেন যে, আর কত? আসলে বাস্তবতা হচ্ছে যে, এখনো শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প আমাদের পার্টিতে নেই এবং তার কোনো বিকল্প বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনেও নেই।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ৭৫’ পরবর্তীকালে গত ৪৩ বছরে তাকে কেউ অতিক্রম করতে পারেনি। তিনি সবাইকে অতিক্রম করে গেছেন এবং নিজেকেও। সে জন্য আমরা এবং রাজনৈতিক বিশ্লষকরা তাকে ‘স্টেটসম্যান’ বলেন। পলিটিশিয়ানরা ভাবেন পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে, কিন্তু শেখ হাসিনা ভাবেন পরবর্তী জেনারেশন নিয়ে। সেই জেনারেশনের ভাবনাটাও সুদূরপ্রসারী, সেটা ২০৪১ সালের সীমারেখায় সীমিত নেই, সেটা চলে গেছে ২১০০ সালের ডেল্টা প্ল্যানে। এ চিন্তা যারাই করেন যাদের মধ্যে রাষ্ট্রনায়কোচিত দূরদর্শী চিন্তা ভাবনা কাজ করে। তিনি আরও বলেন, গত ৪৩ বছরে দক্ষতায়, যোগ্যতায়, সততায় শেখ হাসিনাকে কেউ অতিক্রম করতে পারেনি। এই ৫ বছরে তিনি যদি শারীরিকভাবে সুস্থ ও সবল থাকেন, আমার মনে হয় তার বিকল্পের চিন্তাভাবনার দরকার নেই। ৫ বছর পরে শেখ হাসিনা রাষ্ট্র পরিচালনায় অক্ষম হবেন, অসমর্থ হবেন -এটা আমরা এই মুহূর্তে ভাবতে পারি না। ওবায়দুল কাদের বলেন, আর শেখ হাসিনা ছাড়তে চাইলেও সময় পরিস্থিতি তাকে ছাড়বে কি না, নেতাকর্মীরা তাকে ছাড়বে কি না -সেটাও তো আমাদের চিন্তা ভাবনা করতে হবে।
‘আগামী মাসে চাকরিতে আবেদনের বয়স ৩৫ বছর করে দেওয়া হবে’ এমন খবরকে গুজব জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ নিয়ে আমি কোনো কথা বলিনি। প্রথমে আমি এটা জানিয়ে রাখছি। এটা তারাই গুজব ছড়াচ্ছে। নিউজের মধ্যে আমার কোনো ভয়েস আছে? ভয়েস না থাকলে হয় কী করে! এটা ফলস অ্যান্ড ফেব্রিকেটেড!
জামায়াত ৭১ এর জন্য ক্ষমা চাইলে কতটুকু দায়মুক্ত হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমি এতকিছু বুঝি না, আমার বক্তব্য হচ্ছে এখনও তারা ক্ষমা চায়নি। এখনও তারা এটা অফিসিয়ালভাবে এপোলোজাইজ করেনি। আমি গতকাল বলেছি তারা এপোলোজাইজ করার আগে আমাদের কোনো মন্তব্য করা সমীচীন নয়। এপোলোজাইজ করার পর মানবতাবিরোধী-যুদ্ধাপরাধীদের বিচারপ্রক্রিয়া বন্ধ হবে না।
তিনি আরও বলেন, জামায়াত নেতার পদত্যাগ তার ব্যক্তিগত বিষয়। দলটির নেতাদের ইনটেনশন এখনও ক্লিয়ার না। ইনটেনশনটা আগে ক্লিয়ার হোক, তারপর মন্তব্য করা যাবে। জামায়াত নতুন নামে আসলে আওয়ামী লীগ তাদেরকে স্বাগত জানাবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। নতুন নামে, নতুন বোতলে পুরানো মদ আসলে পার্থক্য কোথায়! জিনিস তো একটাই। এগুলো আগে পরিষ্কার হওয়া দরকার, তার আগে আমরা কেনো মন্তব্য করতে যাব? এটা জামায়াতের কৌশলও হতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ