Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ০৭ চৈত্র ১৪২৫, ১৩ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ফের ম্যানইউর কোচ ফার্গুসন!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৮:৪৭ এএম | আপডেট : ৮:৪৯ এএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে সোনালী অধ্যায়ের পর ২০১৩ সালে অবসর নেন ক্লাবটির কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন। কিংবদন্তি স্কটিশ কোচের অধীনেই প্রথম ইংলিশ ক্লাব হিসেবে এক মৌসুমে ট্রেবল জিতেছিল ইউনাইটেড। ওই অর্জনের ২০তম পূর্তি উপলক্ষে আবারও ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বিশেষ ম্যাচে কোচ হিসেবে দেখা যাবে তাকে।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ১৩টি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জেতেন ফার্গুসন। ১৯৯৯ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে ঘুরে দাঁড়ানো ২-১ গোলের জয়ে এক মৌসুমে তৃতীয় বড় শিরোপা ঘরে তুলেছিল ম্যানইউ। বায়ার্ন মিউনিখকে হারিয়ে ইতিহাস গড়েছিল তারা। ওই সাফল্যের ২০ বছর পার হতে চলেছে এবার। তাই বিশেষ পুনর্মিলনী ম্যাচের আয়োজন করেছে ম্যানইউ। ২০ বছর আগে ন্যু ক্যাম্পের ওই ফাইনালে খেলা খেলায়াড়রা এ ম্যাচে অংশ নেবেন। ফাইনালে জয়সূচক গোল পাওয়া ম্যানইউর বর্তমান ভারপ্রাপ্ত কোচ ওলে গুনার সুলশারকেও মাঠে দেখা যেতে পারে।

আগামী ২৬ মে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ম্যানেইউ একাদশ স্বাগত জানাবে বায়ার্ন মিউনিখ লিজেন্ডসকে। এই ম্যাচ থেকে পাওয়া অর্থ জমা হবে ম্যানইউ ফাউন্ডেশনে, যা ব্যয় করা হবে দাতব্য কাজে। আর এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে ছয় বছর পর আবারো ম্যানইউর ডাগআউটে দেখা যাবে ৭৭ বছর বয়সি ফার্গুসনকে।

২০ বছর আগে ওই ঐতিহাসিক সাফল্যের পথে আর্সেনালের সঙ্গে এক পয়েন্টের ব্যবধানে প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় ম্যানইউ। শীর্ষ লিগের প্রতিদ্বন্দ্বী মিডলসবোরো, লিভারপুল, চেলসি ও আর্সেনালকে হারিয়ে ফাইনালে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের বিপক্ষে জিতে এফএ কাপের শিরোপা নিশ্চিত করে তারা।

চ্যাম্পিয়নস লিগে তাদের রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা হয় ফাইনালে। বায়ার্ন ও বার্সেলোনার সঙ্গে গড়া ‘গ্রুপ অব ডেথ’ পার করে তারা চারটি ড্র করেও। এরপর ইন্টার মিলান ও জুভেন্টাসকে হারিয়ে শিরোপার লড়াই নিশ্চিত করে বায়ার্নের বিপক্ষে। ৯০ মিনিট পর্যন্ত ১-০ গোলে পিছিয়ে ছিল ম্যানইউ। কিন্তু যোগ করা তিন মিনিটে শেরিংহ্যাম ও বর্তমান কোচ সুলশারের গোলে ট্রেবল নিশ্চিত করে রেডডেভিলসরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন