Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

পাকিস্তানি শিল্পীরা ভারতে নিষিদ্ধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৪:০২ পিএম

গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের গোরীপুরে সেন্যবহরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনায় দেশটির বিশেষায়িত বাহিনী সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) ৪৪ সদস্য নিহত হন। ঘটনার পরপরই এর দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ। এ নিয়ে পাকিস্তানি শিল্পীদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ভারতীয় চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো।
নারকীয় এ হামলার প্রতিবাদে ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ (এফডাব্লিউআইসিই) ও ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টরস এসোসিয়েশনসহ (আইএফটিডিএ) ২৪টি ফিল্ম অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা এক হয়ে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
আইএফটিডিএ’র সভাপতি অশোক পন্ডিত বলিউড চলচ্চিত্রে যেকোনো পাকিস্তানি অভিনেতাদের নেওয়ার কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। শুধু চলচ্চিত্র বা এ সংশ্লিষ্ট কাজেই নয়, মিউজিক কোম্পানিগুলোও এখন থেকে আর পাকিস্তানি গায়ক-গায়িকাদের সঙ্গে কোনো ধরনের চুক্তি করবে না। টি-সিরিজ, সনি মিউজিক, ভেনাস, টিপস মিউজিকসহ বেশ কয়েকটি মিউজিক কোম্পানি থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে।
ইতোমধ্যেই টি-সিরিজ তাদের সবগুলো ইউটিউব চ্যানেল থেকে পাকিস্তানি শিল্পীদের ভিডিও নামিয়ে ফেলেছেন বলেও খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় জাতীয় দৈনিকগুলো। এমনকি ভবিষ্যতে পাকিস্তানি শিল্পীদের নিয়ে আর কাজ না করারও ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটি। শুধু তাই নয়, সংস্থাটি থেকে সম্প্রতি পাকিস্তানি সংগীতশিল্পী রাহাত ফতেহ আলি খান ও আতিফ ইসলামের সঙ্গে বেশ কিছু কাজ করেন। কিন্তু এমএনএসের সতর্কতার পর সেগুলোও নামাতে পরোয়া করেননি প্রতিষ্ঠানটি।
ভয়াবহ এ সন্ত্রাসী হামলার পর বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শাবানা আজমি ও তার গীতিকার স্বামী জাভেদ আখতার দুই দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় স্থগিত করার আহ্বান জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য, তিন বছর আগে জম্মু ও কাশ্মীরের উরি বেস ক্যাম্পে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় পাকিস্তানের সব অভিনেতা ও সংগীতশিল্পীকে নিষিদ্ধ করেছিল ভারত। মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার (এমএসএন) হুমকির মুখে নির্মাতা-প্রযোজক করণ জোহরের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করা ফাওয়াদ খানের অংশটি মুছে ফেলা হয়েছিল। পরে উত্তেজনা প্রশমিত হলে ভারতের নির্মাতারা ধীরে ধীরে পাকিস্তানি গায়ক ও শিল্পীদের ডাকা শুরু করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তানি


আরও
আরও পড়ুন