Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আখেরি মোনাজাত আজ

টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব

মো. দেলোয়ার হোসেন ও মো. হেদায়েত উল্লাহ, টঙ্গী থেকে | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

টঙ্গী তুরাগ নদীর তীরে গতকাল সোমবার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিন তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বিদের গুরুত্বপূর্ণ বয়ান ও নফল নামাজ, তাসবিহ তাহলিল, জিকির-আসগারের মাধ্যমে ইজতেমার অতিবাহিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে (দুপুরের আগেই) আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এবারের ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। আখেরি মোনাজাতে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের শীর্ষ মুরব্বি ও ইজতেমার জিম্মাদার মাওলানা শামীম আহমদ দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করবেন।
বৈরী আবহাওয়া ঠান্ডা কনকনে বাতাস আর গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে মুসল্লিরা ময়দানের দিকে ছুটছেন ভিজে একাকার বিছানাপত্র, কাপড়-চোপড় নিয়ে। কাদাময় পথ চরম পিচ্ছিল, ময়দানে পানির স্রোত, এমনি বৈরী আবহাওয়া পরিস্থিতির মধ্যে রোববার থেকে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের মাওলানা সা’দ পন্থীদের বিশ্ব ইজতেমা। বাদ ফজর ভারতের মাওলানা মো. ইকবাল হাফিজের আম-বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় ইজতেমার দ্বিতীয় অংশের আনুষ্ঠানিকতা। এ বয়ান বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল্লাহ মুনসুর।
জানা গেছে, গতকাল সোমবার বাদ ফজর বয়ান করেন মাওলানা মুরসালিন, নিজামুদ্দিন মারকাজ। বাংলায় অনুবাদ করেন মাওলানা আবদুল্লাহ মনসুর কাসেমি। সকাল সাড়ে ৯টায় তালিমের মুয়াল্লীমদের উদ্দেশ্যে বয়ান করেন মুফতি রিয়াছত আলী, নিজামুদ্দিন মারকাজ। সকাল ১০টায় প্রতি খিত্তায় তালিম শুরু হয়। বাদ জোহর বয়ান করেন মুফতি শাহজাদ, নিজামুদ্দিন মারকাজ। বাংলায় অনুবাদক করেন মাওলানা মনির বিন ইউসুফ। বাদ আছর বয়ান করেন, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, আহলে শুরা, বাংলাদেশ। বাদ মাগরিব বয়ান করেন, মাওলানা শওকত, নিজামুদ্দিন মারকাজ। বাংলায় তরজমা করেন মাওলানা মুফতী জিয়া বিন কাসেম।
আগেরদিন রোববার বাদ ফজর ভারতের মাওলানা ইকবাল হাফিজ উর্দুতে বয়ান করেন, তা বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল্লাহ মুনসুর। বাদ জোহর বয়ান করেন নিজামুদ্দিন মারকাজের মুরব্বি মাওলানা আবদুল বারী। বাংলায় তরজমা করেন মাওলানা মুনির বিন ইউসুফ। বাদ আসর বাংলাদেশের মাওলানা মোশাররফ হোসেন। বাদ মাগরিব বয়ান করেন দিল্লীর মাওলানা শামীম আহমদ। অনুবাদ করেন বাংলাদেশের মাওলানা আশরাফ আলী। আজ মঙ্গলবার বাদ ফজর বয়ান করবেন, ইকবাল হাফিজ, নিজামুদ্দিন মারকাজ। বাংলায় তরজমা করবেন, মুফতি উসাম ইসলাম।
বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে এক মুসল্লির মৃত্যু
বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নেয়া মো. ইসমাইল হোসেন (৬০) নামে এক মুসল্লি ীর মৃত্যু হয়েছে। গত রোববার দিবাগত রাত ১টার দিকে বার্ধক্যজনিত রোগে তিনি নিজ খিত্তায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। ওই মুসল্লিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। তিনি বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া উপজেলার লেবু খানের ছেলে। এই নিয়ে দুই পর্বের ইজতেমায় ৭ মুসল্লির মৃত্যু হলো।
গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর জানান, শনিবার মধ্যরাতে ইজতেমা ময়দান সাদপন্থী মুরুব্বিদের কাছে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। মাঠে টুকটাক সমস্যা থাকলেও তা রোববার সকালেই সমাধান করা হয়েছে। তবে ইজতেমা এলাকায় আইনশৃঙ্খলাসহ সব ব্যবস্থাপনা আগের মতোই বহাল রয়েছে।
সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গতকাল সোমবার আখেরি মোনাজাত হওয়ার কথা থাকলেও মাঠ পরিস্থিতি ও বৈরী আবহাওয়াসহ কয়েকটি কারণে ইজতেমার সময় ১ দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন মুরব্বিরা। পরে এ বিষয়ে আবেদন করেন প্রশাসনের কাছে। ইজতেমার অন্যতম মুরুব্বি আশরাফ আলী বলেন, মাশোয়ারার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইজতেমার আখেরি মোনাজাত আজ মঙ্গলবার নির্ধারণ করা হয়েছে।
গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান জানান, ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের সার্বিক নিরাপত্তা, যানজট নিরসনসহ সার্বিক বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। ইজতেমা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে।
আমরা আল্লাহর অনুসারি অন্য কারো নই : ইজতেমায় আগত একাধিক মুসল্লি জানান, আমরা কারো অনুসারি নয়, আমরা কেবল আল্লাহ অনুসারি। এই বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে আমাদের মধ্যে কোন প্রকার মতবেদ নেই। গত পর্বে ইজতেমা ময়দানে জায়গা না হওয়ায় আমরা এ পর্ব এসেছি।
তারা আরো জানায়, এই বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে যারা মতবেদ সৃষ্টি করেছে তাদের ইমান শক্তিশালী নয়। এর আগে ইজতেমা নিয়ে যারা একে অপরের রক্ত জড়িয়েছে তারা কোন ভাবেই আল্লাহরর অনুসারী হতে পারে না। আমরা যারা মুসলমান আল্লাহকে বিশ্বাস করি এই বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে আমাদের মধ্যে কোন প্রকার মত বিরোধ থাকা উচিত নয়।
ট্রেন সার্ভিস : টঙ্গীর রেলওয়ে স্টেশনের কর্মকর্তা মো. হালিমুজ্জামান জানান, আখেরি মোনাজাতের দিন মুসল্লিদের সুষ্ঠুভাবে যাতায়াতের জন্য ১১ জোড়া বিশেষ ট্রেনসহ ১২০টি ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রাবিরতি করবে।
যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা : পুলিশ জানিয়েছে, আখেরি মোনাজাতে মুসল্লিদের যাতায়াতের সুবিধার্থে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচলে গাজীপুর ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সোমবার মধ্যরাত থেকে আজ মঙ্গলবার রাত ৮টা পর্যন্ত আবদুল্লাহপুর থেকে ভোগড়া বাইপাস এবং মীরের বাজার থেকে টঙ্গী স্টেশন রোড পর্যন্ত উভয়মুখী রাস্তায় সব প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন সূত্র জানায়, ২ দিনের লাখো মুসল্লির ফেলে যাওয়া আবর্জনা পরিষ্কারসহ পানি, গ্যাস এবং পয়ঃনিষ্কাশন করে মাঠ প্রস্তুত করেছেন।
ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান : বিশ্ব ইজতেমা চলাকালীন সময় ভ্রাম্যমান আদালত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ভোক্তা সংরক্ষণ আইন ও মটর যান আইনে অভিযান চালিয়ে নগদ ৬ হাজার টাকা জরিমানা করেন দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইজতেমা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ