Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

দেশে প্রথম সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ পরিচালনা করবে ইউএস-বাংলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৮:৪৫ পিএম

খুব শিগগিরই বিশ্বের সর্বাধুনিক এয়ারক্রাফট বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এর বিমান বহরে যুক্ত হচ্ছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, আন্তর্জাতিক এয়ারক্রাফট লিজিং কোম্পানী এয়ারক্যাপ ও দি বোয়িং কোম্পানী এর যৌথ ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স পরিচালনা করবে। এয়ারক্যাপ হচ্ছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ ও সক্রিয় বাণিজ্যিক এয়ারক্রাফট ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান। যাদের মালিকানায় হাজারেরও অধিক এয়ারক্রাফট আছে এবং আরো ৩শ’ এয়ারক্রাফট ক্রয় প্রক্রিয়ায় আছে। মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এ ঘোষনা দেওয়া হয়।

ইউএস-বাংলা বাংলাদেশে প্রথম বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে। যা ২০১৮ সালের বিমান পরিবহন সেবায় অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এর অন্তর্ভূক্তিকরণের সিদ্ধান্ত নেয়ায় এয়ারলাইন্সের অগ্রযাত্রা লক্ষ্যনীয়। ইউএস-বাংলার বিমান বহরে এমন কোনো এয়ারক্রাফট ব্যবহৃত হয় না, যে এয়ারক্রাফট বর্তমানে উৎপাদন প্রক্রিয়ার মধ্যে নেই।

খুব শিগগিরই দু’টি ব্র্যান্ড নিউ এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের এয়ারক্রাফট ইউএস-বাংলার বিমান বহরে যুক্ত হতে চলেছে। যাত্রী সাধারণের চাহিদা অনুযায়ী, ইউএস-বাংলা-ই প্রথম কোনো বেসরকারী এয়ারলাইন্স, যা ফ্যাক্টরী থেকে সরাসরি এয়ারক্রাফট সংগ্রহ করতে যাচ্ছে।

বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সর্বকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় জেট বিমানটিতে সর্বশেষ প্রযুক্তি সরবরাহ করে বোয়িং ৭৩৭। ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সংযুক্ত অত্যাধুনিক কেবিন ডিজাইন ও ইন-ফ্লাইট এন্টারটেননমেন্ট সিস্টেম বিশ্বব্যাপী নতুন নতুন গন্তব্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তুলনামূলক কম খরচ, পরিবেশবান্ধব ও সময়ের কারনে বিশ^ব্যাপী এয়ারালাইন্স কোম্পানীর কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠছে।

সূত্র মতে, বিশে^র অনেক নামকরা এয়ারলাইন্স ইতিমধ্যে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফট ব্যবহার শুরু করেছে। উল্লেখযোগ্য এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে রয়েছে- মালয়শিয়া এয়ারলাইন্স, টার্কিশ এয়ারলাইন্স, ওমান এয়ার, কাতার এয়ারওয়েজ, ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স, আমেরিকান এয়ারলাইন্স, চায়না ইস্টার্ণ, চায়না সাউদার্ণ, জেট এয়ারওয়েজ, স্পাইস জেট, ফ্লাই দুবাই সহ আরো অনেক এয়ারলাইন্স।

এছাড়া আগামী ৩১ মার্চ থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম গন্তব্য ভারতের চেন্নাইতে সপ্তাহে তিনদিন ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশী কোনো এয়ারলাইন্স সরাসরি বাংলাদেশ থেকে চেন্নাই ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে।

২০১৪ সালের ১৭ই জুলাই ‘ফ্লাই ফাস্ট- ফ্লাই সেফ’ স্লোগান নিয়ে ২টি ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে অভ্যন্তরীন রুটে যাত্রা শুরু করেছিলো। বর্তমানে চারটি বোয়িং ও তিনটি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ সহ মোট সাতটি এয়ারক্রাফট রয়েছে ইউএস-বাংলার বিমান বহরে। ইউএস-বাংলার সময়ানুবর্তিতা, নিরাপত্তা নির্দেশনা এবং কর্মীদের দক্ষতার কারনে গত সাড়ে চার বছরের অধিক সময়ে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ৫৭ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছে। ফ্লাইটের অনটাইম পারফরমেন্স শতকরা ৯৮ দশমিক ৭। অভ্যন্তরীণ সকল রুট ছাড়াও বর্তমানে সিংগাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজু, দোহা, মাসকাট ও কলকাতা রুটে ইউএস-বাংলা ফ্লাইট পরিচালনা করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউএস-বাংলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ