Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।

বিপদের বন্ধু সউদী-পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে বিপুল ও বিলাসবহুল আয়োজনের মাধ্যমে স্বাগত জানিয়েছে পাকিস্তান। এতে টলোমলো অর্থনীতি ও রিজার্ভশূন্য ইসলামাবাদ যে বিদেশি বিনিয়োগের ওপর নির্ভরশীল, তা খুব একটা ফলাও করে প্রকাশ পায়নি। পাকিস্তানি আকাশে যুবরাজের বিমান ঢোকার পরেই সেটির নিরাপত্তায় দুই পাশে সামরিক বিমানের বহর দিয়ে ঘিরে ছিল। রাজকীয় গাড়িবহরের শোভাযাত্রা ও অনুষ্ঠানাদি ঘণ্টার পর ঘণ্টা সরাসরি স¤প্রচার করে দেশটির টেলিভিশন চ্যানেল। এতে দুই দেশের মধ্যে দুই হাজার কোটি ডলারের বিনিয়োগ চুক্তি ও সমঝোতা সই হয়েছে। ইসলামাবাদের কাছে এখন দুই মাসের আমদানি করার মতো বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ আছে। দেশটির অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ক্রমাগত দুর্বল হয়ে পড়ছে, পাশাপাশি ঋণের আকারও ক্রমাগত ঢাউস হচ্ছে। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঙ্গে পাকিস্তানের ঋণসহায়তার দেরদরবার ধীরগতিতে এগোচ্ছে। কাজেই বিদেশি বিনিয়োগের জন্য মুখিয়েই ছিল পারমাণবিক শক্তিধর দেশটি। যুবরাজকে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক নিশান-ই-পাকিস্তানে ভূষিত করেছেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। এ ছাড়া মোহাম্মদ বিন সালমানকে স্বর্ণের ধাতু-আবৃত সাবমেশিন গান উপহার দিয়েছেন সিনেটের প্রধান। ইমরান খান বলেন, সই হওয়া সমঝোতাগুলো দুই দেশের সম্পর্কের বৃদ্ধির প্রতিফলন ঘটাচ্ছে। কিন্তু আমার কাছে মনে হচ্ছে, এটি কেবল শুরু। এদিকে গত বছর সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাÐের ঘটনায় বৈশ্বিক চাপ ও ক্ষোভের মুখে সউদী আরবের বিপদের বন্ধুর দরকার ছিল। পাকিস্তান সন্দেহাতীতভাবে যুবরাজকে অতিবিগলিত শ্রদ্ধা জানিয়েছে। কিন্তু কর্মকর্তারা বলছেন, দুই দেশের এ চুক্তিগুলো অর্থনৈতিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাকিস্তানের সঙ্গে চুক্তি সই নিয়ে সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের বলেন, এটি কোনো দাতব্য না, বিনিয়োগ। এতে দুপক্ষই লাভবান হবে। রূপকল্প-২০৩০ কৌশল অনুসারে অপরিশোধিত তেল ও উন্নয়ন প্রকল্পের বাইরেও সউদী আরব তার বিনিয়োগে বৈচিত্র্য আনতে যাচ্ছে। সউদী-পাকিস্তানের মধ্যে এ যাবতকালের সবচেয়ে বড় চুক্তিটি সই হয়েছে রোববার। এতে বেলুচিস্তানের গাওধার বিমানবন্দরে এক হাজার কোটি ডলারের পরিশোধনাগার স্থাপন করবে সউদী কোম্পানি আরামকো। যাতে প্রায় পাঁচ বছর সময় লাগবে। এ ছাড়া ছোট ছোট চুক্তির মধ্যে রয়েছে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস প্ল্যান্ট, বিকল্প জ্বালানি প্রকল্প, খাদ্য ও কৃষি খাতের বিনিয়োগ, যা দ্রæতই ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান

১৯ মার্চ, ২০১৯
১৭ মার্চ, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ