Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭, ১১ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

২৭-২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা-জাকার্তা পিটিএ আলোচনা

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ঢাকার সঙ্গে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা (পিটিএ) বিষয়ক চুক্তি করতে অনেক আগেই প্রস্তাবনা দিয়েছে জাকার্তা। ইন্দোনেশিয়ার এই আগ্রহে ইতিবাচক মনোভাব জানিয়ে চলতি মাসের ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় এ বিষয়ে আলোচনা শুরু হতে যাচ্ছে। আর এই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে কিভাবে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা (পিটিএ) বিষয়ক চুক্তি করার পথে এগিয়ে যাওয়া যায়।
কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেটনো এল পি মারসুদির গত ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় ঝটিকা সফর করেন। ওই সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠকে উভয় পক্ষ আগামী ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি পিটিএ বিষয়ক চুক্তি বিষয়ে আলোচনা শুরু করতে সম্মত হয়।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ইন্দোনেশিয়ার ব্যবসায়ী ও পর্যটকদের বাংলাদেশের ভিসা পেতে হলে বেশকিছু জটিলতায় পড়তে হয়। সামনের বৈঠকে ভিসা সহজ করার বিষয়েও আলোচনা করা হবে।
ঢাকার ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত রিনা পি সোমারনো এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, গত বছর ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফরে দুই দেশের ব্যবসায়ী স¤প্রদায়ের মধ্যে বাণিজ্যিক যোগাযোগ বাড়াতে এবং অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটাতে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি করতে দুই দেশ আলোচনা শুরুর বিষয়ে একমতে পৌঁছেছে।
শুধু ইন্দোনেশিয়াই নয়, অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি হলে দুই দেশই উপকৃত হবে বলে জানান রাষ্ট্রদূত রিনা পি সোমারনো। তিনি বলেন, অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনা করতে দুই দেশের প্রতিনিধিরা শিগগিরই বৈঠকে বসবেন। দুই দেশ খুব দ্রুত এই বিষয়ে একটি চুক্তিতে পৌঁছতে পারবে বলে আমি বিশ্বাস করি। এই চুক্তি দুই দেশের জন্যই বাণিজ্য উন্নয়নে সহায়ক হবে। দুই দেশের বাণিজ্য, আমদানি, রফতানি বাড়াতে এই চুক্তি সহায়তা করবে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, পোশাক, পাট ও পাটজাত পণ্য, চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ ও ফার্নিচার ইত্যাদি পণ্য ইন্দোনেশিয়ায় রফতানি করে থাকে বাংলাদেশ। অন্যদিকে, পাম অয়েল, কয়লা, কাগজ, প্লাস্টিকের কাঁচামাল ও রাসায়নিক, যন্ত্রপাতি, চশমা, কাঠসহ বিভিন্ন পণ্য এবং রেলের উন্নতমানের কোচ বাংলাদেশ আমদানি করে ইন্দোনেশিয়া থেকে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইন্দোনেশিয়া


আরও
আরও পড়ুন