Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, ১৮ রজব ১৪৪০ হিজরী।

নতুন প্রজন্মের মাঝে ভাষা দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরতে একদল তরুণদের মহতী উদ্যোগ

নেছারাবাদ (পিরোজপুর) থেকে মোঃ হাবিবুল্লাহ | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৩ পিএম

নতুন প্রজন্মের মাঝে ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগ ও মাতৃভাষার তাৎপর্য ছড়িয়ে দিতে পিরোজপুরে অব্যবহৃত শহীদ মিনার ধোয়া-মোছা সহ সংস্কারের উদ্যোগ উদ্যোগ নিয়ে মাঠে কাজ করছে পিরোজপুর ইয়ূথ সোসাইটি সংগঠন। শহরের একদল তরুণদের প্রতিষ্ঠিত পিরোজপুর ইয়ূথ সোসাইটি নামে সংগঠনটি ভাষার মাসে শহরের অবহেলা অযত্নে পড়ে থাকা শহীদ মিনারগুলো ধোয়া মোছা সহ স্ব-উদ্যোগে তার সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। পিরোজপুর শহরে অনেকগুলো শহীদ মিনার থাকলেও নির্ধারিত কয়েকটি শহীদ মিনার ছাড়া ব্যবহার করা হয়না। তাই ভাষা শহীদদের যথার্থ সম্মান জানানোর জন্য অবহেলায় পড়ে থাকা ওইসব শহীদ মিনারে একুশ পালনের জন্য সেগুলো ধোয়া মোছার কাজ করে যাচ্ছে জোড় গতিতে। শহীদ মিনার ধোয়া-মোছার পাশাপাশি বেশ কয়েকদিন থেকে তারা কোনটার নষ্ট হওয়া আংশিক অংশের নির্মাণেরও কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনের নিজ অর্থায়নে। এ লক্ষ্যে তারা পিরোজপুরের সর্বপ্রথম নির্মিত শহীদ মিনারটির কাজ শুরু করেছেন। সংগঠনের তরুণরা নিজেদের হাতেই ধোয়ামোছা, রং-করা, প্লাস্টার সহ যাবতীয় কাজ করেছে। তরুণদের এ মহতী উদ্যোগের খবর পেয়ে কাজ শুরুর প্রথম দিনই তাদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে সেখানে ছুটে গিয়েছে শহরের মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি সহ বিশিষ্ট জনেরা।
গত কয়েকদিন ধরে শহরের বিভিন্ন স্থানে চোখে পরেছে পিরোজপুর ইয়ূথ সোসাইটি নামের যুব সংগঠনের লাল টি-শার্ট পরিহিত তরুণের কর্মকাণ্ড।
জানাযায়, ১৯৫২ সালে দেশে এ দেশের একদল তরুণ তাদের জীবনের বিনিময় জাতীর মুখে তুলে দিয়েছিল বাংলাভাষা। জীবন উৎসর্গকারী সেইসব শহীদের পরিচিতি ভাষা শহীদ নামে।তবে তাদের সেই আত্মত্যাগ ও বাঙ্গালী জাতীর মাতৃভাষার ইতিহাস সম্পর্কে এ সময়ের নতুন প্রজন্মের অনেকেই ধারনা পরিষ্কার নয়। আর এ কারণেই নতুন প্রজন্মের মাঝে সেই ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগ ও মাতৃভাষার তাৎপর্য ছড়িয়ে দেবার উদ্যোগ নিয়েছে পিরোজপুর এ তরুণরা।
পিরোজপুর ইয়ূথ সোসাইটির চিফ কো-অডিনেটর মো: হাসিবুল ইসলাম হাসান জানান, ভাষার এ মাসে ভাষা শহীদের আত্মত্যাগ ও ভাষা দিবসের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়া এবং শহরের বিভিন্ন স্থানে অরক্ষিত ও অব্যবহৃত শহীদ মিনার গুলো সংস্কার করার জন্যই তাদের এই উদ্যোগ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নেছারাবাদ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ