Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

আপনাদের জিজ্ঞাসার জবাব

| প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

প্রশ্ন : আল্লাহর নৈকট্য অর্জনে সুন্নতের বিকল্প আছে কি?

উত্তর : আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন, ‘যে রাসূলেরে আনুগত্য করলো সে পকৃতপক্ষে আল্লাহরই আনুগত্য করলো।’ (সূরা নিসা, আয়াত: ৮০)
রাসুল সা. ইরশাদ করেন, ‘যে আমার সুন্নতকে জীবিত করল, সে আমাকে ভালোবাসল। আর যে আমাকে ভালবাসল, সে আমার সাথে জান্নাতে থাকবে।’ (তিরমিজী শরীফ)

মুসলিম জাতির পারিবারিক, সামাজিক, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জীবনে সুন্নতের গুরুত্ব অপরিসীম। জীবনের প্রতিটি অধ্যায় সুন্দর ও সৌরভময় করতে মহানবী হযরত মুহাম্মদুর রসূলুল্লাহ (সা.) ৬৩ বছরের বর্ণাঢ্য জীবনে উম্মতকে দিয়েছেন সুন্দর ও উজ্জ্বলময় পথনির্দেশ, যা আমাদের নিকট সুন্নত নামে সুপরিচিত। ইসলামে এমন কোন বিষয় নেই, যে সম্পর্কে ইসলাম দিক নির্দেশনা দেয়নি। লেবাস-পোষাক, চুল, বিয়ে-সাদী, ওলীমা এবং অসুস্থতা, চিকিৎসা ও রোগীর সেবাতেও রাসূল সা: এর সুন্নত রয়েছে।
লেবাস-পোষাকের সুন্নত ১১টি

রাসূল (সা.) সাদা রঙের কাপড় পছন্দ করতেন। [শামায়িলে তিরমিযী, পৃ. ৫ ও সুনানে ইবনে মাজাহ, ১/২৫৫]
পাঞ্জাবি, শার্ট-কোর্ট ইত্যাদি পরিধান করার সময় প্রথমে ডান হাত আস্তিনে প্রবেশ করাবেন, তারপর বাম হাত। পাজামা ও প্যান্ট পরার সময়ও প্রথমে ডান পা তারপর বাম পা ঢোকাবেন। [সুনানে তিরমিযী, ১/৩০৬]
প্যান্ট, শেলোয়ার ও লুঙ্গি টাখনুর ওপরে রাখবেন। টাখনুর নিচে পরলে আল্লাহ অসন্তুষ্ট হন। রাসূল (সা.) বলেন, ‘শরীরের নিম্নাংশের কাপড়কে যারা টাখনুর নিচে নামিয়ে রাখে তাদের প্রতি আল্লাহ রহমতের দৃষ্টিতে তাকান না।’ [সহীহ আল-বুখারী, ২/৮৬১ ও সহীহ মুসলিম, ২/১৪৯]
নতুন কাপড় পরিধান করে নিচের দোয়াটি পড়বেন: আল্হাম্দু লিল্লা-হিল্লাযী কাছা-নী হা-যাচ্ছাওবা ওয়া রযাক্বানীহি মিন্ গায়রি হাওলিম্ মিন্নী ওয়া লা- কুয়্যা।

অর্থ: সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য যিনি আমাকে এই কাপড় পরিধান করিয়েছেন এবং কোন চেষ্টা-শক্তি ব্যতীত আমাকে রিয্ক দান করেছেন। [সুনানে আবু দাউদ, ২/২০২]
পাগড়ির নিচে টুপি রাখা সুন্নত। [মিরকাতুল মাফাতীহ, ৮/২১৫]
রাসূল (সা.)-এর নিকট পাঞ্জাবি খুবই প্রিয় ছিল। [সুনানে তিরমিযী, ১/৩০৬; সুনানে আবু দাউদ, ২/২০২ ও সুনানে ইবনে মাজাহ, ১/২৫৫-২৫৬]

কালো রঙের পাগড়ি বাঁধা সুন্নত। পাগড়ির প্রান্তস্থিত কারু ছেড়ে দেওয়া সুন্নত। [সুনানুন নাসায়ী, ২/২৯৯]
মাথায় টুপি দেওয়া সুন্নত। [মিরকাতুল মাফাতীহ, ৮/২১৫]
শার্ট ও পাঞ্জাবি ইত্যাদি খোলার সময় আস্তিন থেকে প্রথমে বাম হাত তারপর ডান হাত বের করবেন। প্যান্ট-শেলোয়ারের ক্ষেত্রেও প্রথমে বাম পা, তারপর ডান পা বের করবেন। [সুনানে তিরমিযী, ১/৩০৬]
জুতা-স্যান্ডেল প্রথমে ডান পায়ে পরবেন, তারপর বাম। [সহীহ আল-বুখারী, ২/৮৭০ ও সহীহ মুসলিম, ২/১৯৭]
খোলার সময় প্রথমে বাম পায়ের জুতা খুলবনে, তারপর ডান। [সহীহ আল-বুখারী, ২/৮৭০ ও সহীহ মুসলিম, ২/১৯৭]
চুল রাখার সুন্নতসমূহ

রাসূল (সা.)-এর চুল মোবারক কানের মধ্যমাংশ পর্যন্ত লম্বা ছিল। অন্য রেওয়ায়েত মুতাবেক কান পর্যন্ত ছিল। অন্য আরেকটি রেওয়ায়েতে একদম কানের লতি পর্যন্ত দীর্ঘ হওয়ার কথা বর্ণিত আছে। কানের লতির কাছাকাছি ছিল এমন বর্ণনাও পাওয়া যায়। [শামায়িলে তিরমিযী, পৃ. ৩, গুনয়াতুত তালিবীন, পৃ. ৪৩-৪৪ ও মিরকাতুল মাফাতীহ, ৮/২৭৯]
কানের লতি বা তার সামান্য নিচে পর্যন্ত পুরো মাথার চুল রাখা সুন্নত। পুরো মাথা ন্যাড়া করে ফেলাও সুন্নত। চুল কাটতে হলে পুরো মাথায় সমানভাবে কাটতে হবে। সামনে বা পিছনের দিকে লম্বা রেখে ইংলিশ স্টাইলে চুল রাখা বৈধ নয়। মাথার অর্ধাংশ ন্যাড়া করে অপর অংশে চুল রাখাও বৈধ নয়। সকল মুসলমানকে আল্লাহ হেফাজত করুন। [বেহেশতী জেওর, ১১/১১৫]
হাদীস শরীফে পাড়ি লম্বা করা এবং গোঁফ খাটো করার নির্দেশ আছে। [সহীহ আল-বুখারী, ২/৫৭৫ ও সহীহ মুসলিম, ২/১২৯] দাড়ি সেভ করা এবং এক মুষ্টি থেকে কম রাখা বা ফ্রেসকাট দাড়ি রাখা হারাম। [বেহেশতী জেওর, ১১/১১৫]
আল্লাহ পাক সকল মুসলমানকে হেফাজত করুন। এক মুষ্টি পরিমাণ দাড়ি রাখা ওয়াজিব। এটি সুন্নহ তথা হাদীস দ্বারা প্রমাণিত।
গোঁফ খুব ভালোভাবে কেটে ফেলা সুন্নত। ঝাঁটার মতো লম্বা গোঁফ রাখার ব্যাপারে হাদীসে শাস্তির কথা উল্লেখ আছে। [বেহেশতী জেওর, ১১/১১৫]

নাভীর নিচের লোম, বগলের লোম, গোঁফ ও নখ ইত্যাদি ভালোভাবে কেটে পরিস্কার পরিছন্ন থাকা বাঞ্চনীয়। ৪০ দিন পর্যন্ত এগুলো পরিস্কার না করলে গোনাহ হবে। [সহীহ আল-বুখারী, ২/৮৭৫]
চুল ধোয়া, তেল দেওয়া এবং চিরুনির সাহায্যে পরিপাটি করে রাখা সুন্নত। [আওজাযুল মাসালিক, ১২/২৬৮]
আঁচাড়নোর সময় ডানদিক থেকে শুরু করা সুন্নত। [বেহেশতী জেওর, ১১/১১৬ ও সহীহ আল-বুখারী, ১/৬১]
চুল আঁচড়ানোর জন্য বা অন্য কোনো প্রয়োজনে আয়না দেখলে নিচের দোয়া পড়া। [মিশকাতুল মাসাবীহ, ২/৩৮১ ও হিসনে হাসীন, পৃ. ৩৪৬।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন