Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ডাকসু নির্বাচন ২য় দিনেও মনোনয়ন সংগ্রহ করেনি বড় সংগঠনগুলো

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:১০ এএম


ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ও হল সংসদ নির্বাচনে মননোয়নপত্র বিক্রির ২য় দিনেও ফরম সংগ্রহ করেনি বড় ছাত্র সংগঠনগুলোর কেউ। এরআগে মঙ্গলবার থেকে বিশ^বিদ্যালয়ের সবকটি আবাসিক হলে রিটার্নিং কর্মকর্তাগণ বিনামূল্যে মনোনয়ন পত্র বিক্রি শুরু করেন। মনোনয়ন সংগ্রহ না করলেও প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে বিভিন্ন পক্ষের থেকে। মনোনয়ন বিক্রির প্রথম দিনেই কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ৫টি পদে ফরম নেন চরমোনাই পীরপন্থ’ী ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ। ২য় দিনে প্রচার প্রচারণার অংশ হিসেবে প্রথম বারেরমত মধুর ক্যান্টিনে অবস্থান নেন তারা। অন্যদিকে মনোনয়ন ফর্ম সংগ্রহ করতে দেখা গেছে স্বতন্ত্রপ্রার্থীদের। বিভিন্ন হল থেকে কেন্দ্রেীয় সংসদ ও হল সংসদের বিভিন্ন পদে মনোনয়ন নিচ্ছেন তারা। ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফর শেষে দেশে ফিরার পর কারা মনোনয়ন নিবেন সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। অন্যদিকে দাবি পূরণ না হওয়ায় মনোনয়ন ফর্ম নিয়ে এখনও কিছু বলছেন না ছাত্রদলের নেতারা। বাম ছাত্র সংগঠনগুলো ক্যাম্পাসে কর্মসূচি অব্যাহত রাখলেও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মনোনয়ন নিবেন বলে জানানো হয়েছে।
বাইরে ভোটকেন্দ্রের পক্ষে ৯১ শতাংশ শিক্ষার্থী
ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে ৯১ শতাংশ শিক্ষার্থী হলের বাইরে ভোটকেন্দ্র করার পক্ষে মত দিয়েছে। গত সাত কর্মদিবসে ছাত্র ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ‘হলে নয়, ডাকসুর ভোটকেন্দ্র অনুষদে চাই’ শিরোনামে ক্যাম্পাসে পরিচালিত গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালিত হয়। গতকাল বুধবার গণস্বাক্ষরের ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামানের কাছে তুলে দেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায় মোট ৩১৪৫ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৮৮১জন অনুষদে ভোটকেন্দ্র দেয়ার পক্ষে স্বাক্ষর করেন। যা মোট স্বাক্ষরের ৯১.৬১ শতাংশ। অন্যদিকে হলে ভোটকেন্দ্রের পক্ষে স্বাক্ষর করেন মাত্র ১৫৯জন শিক্ষার্থী। ১০৫জন শিক্ষার্থী তাদের স্বাক্ষর প্রদান করে এ বিষয়ে তাদের নিরপেক্ষ থাকার অবস্থান ব্যক্ত করেন। ফলাফল হস্তান্তর শেষে সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির কাছে ৬দফা দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি তুলে দেন। তাদের দাবিগুলো হলো, বিশেষ পরিস্থিতিতে হলে নয়, অনুষদে ভোটকেন্দ্র, সভাপতির ক্ষমতায় ভারসাম্য তৈরী করা, ডাকসুতে নির্বাচিতরা যেন কোন অনিয়ম চর্চা করতে না পারে সেজন্য অভিশংসন ব্যবস্থার নিয়ম রাখা, ফ্রি প্রদানকারী প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে প্রার্থী হবার সুযোগ দান, গণতান্ত্রিক সহাবস্থান নিশ্চিত করা ও ভোটকেন্দ্রে সাংবাদিকদের অবাধ প্রবেশ ও প্রচারের ব্যবস্থা করা।
প্রচারণায় কোটা আন্দোলনকারীরা
এদিকে ডাকসু নির্বাচনকে সামনে ক্যাম্পাসে লিফলেট বিতরণ করছে কোটা আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনবহুল বিভিন্ন চত্বরে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের পক্ষ থেকে প্রচারণায় অংশ নেন সংগঠনটির কমপক্ষে ২৫জন নেতাকর্মী। তাদের লিফলেটে ভয়মুক্ত নিরাপদ ক্যাম্পাস, মত প্রকাশের স্বাধীনতা, ছাত্রদের অধিকার আদায় ও মেধার ভিত্তিতে হলে সীট বন্টনের বিষয়গুলো গুরুত্ব পাচ্ছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ