Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

নদীবিষয়ক হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন না হলে ভূমিদস্যুরা বেপরোয়া হয়ে উঠবে

ইসলামী আন্দোলন ঢাকা উত্তর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

 আবহমানকাল থেকে বাংলাদেশ নদী মাতৃক দেশ। কিন্তু আজ তা শুধু কাগজে আছে, বাস্তবে তেমন নেই। হাতে গোনা কয়েকটি নদী ছাড়া অন্য সব নদী দখলদারদের অবকাঠামোর নিচে চাপা পড়ে গেছে। নদী বাঁচলে দেশ বাঁচবে, দেশ বাঁচলে মানুষ বাঁচবে। মানবিক সমাজ বাঁচা-মরার সাথে যেই নদ-নদীর সম্পর্ক, সেই নদ-নদীকে দখলমুক্ত করে জীবন্ত করার ব্যাপারে ৩ ফেরুয়ারি মহামন্য হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছে আমরা তাকে স্বাগত জানাই। তবে হাইকোর্টের দেয়া এই রায় যদি বাস্তবায়ন করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ গড়িমসি করে তাহলে আইনের প্রতি তথা হাইকোর্টের প্রতি মানুষ অশ্রদ্ধা জানাবে এবং এ জাতীয় রায়কে ছেলে খেলা মনে করবে। নদী রক্ষার্থে আদালত যে ১০টি নির্দেশনা দিয়েছে তা দ্রæত বাস্তাবায়ন করে সারা দেশে বিরাজমান ৪৫০টি নদী, খাল ও জলাশয় অবৈধ দখলমুক্ত করে জীবন্ত করার ব্যবস্থা করুন। ইতোপূর্বে এরকম রায় আমরা অনেক দেখেছি। বিভিন্ন সময় দেয়া আদালতের রায় ও নির্দেশনা বাস্তাবায়নে কর্তৃপক্ষ তালবাহানা করেছে। ফলে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থা ও দফতরগুলোর গৃহিত পদক্ষেপ এবং সে সব পদক্ষেপের আইনগত দুর্বলতা ও ফাঁকফোঁকর দিয়ে অপরাধীরা পার পেয়ে গেছে। এবারও যেন এমন না হয়।
গতকাল বিকেল রাজধানীর ভাটারাস্থ আসসাঈদ মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর উত্তরের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন প্রস্তুতি সভায় সভাপতির বক্তব্যে নগর-উত্তর সভাপতি প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ উপর্যুক্ত কথা বলেন। নগর সেক্রেটারি মাওলানা আরিফুল ইসলামের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আলহাজ আনোয়ার হোসেন, আলহাজ হারুন অর রশিদ, হাফেজ মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মুফতি মাছউদুর রহমান, হাফেজ নিজাম উদ্দীন, প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দীন, ডা. মুজিবুর রহমান, মুফতি ফরিদুল ইসলাম, হাজী আলাউদ্দীন, মাওলানা জাকারিয়া প্রমুখ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ