Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।

শহীদদের প্রতি প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর বিনম্র শ্রদ্ধা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭:০৮ এএম | আপডেট : ৯:৪২ এএম, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

একুশে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষাশহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপরই পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী, আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের সুর বাজতে থাকে। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর পর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় প্রধান হিসেবে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
ভাষা আন্দোলন দমন করতে ১৯৫২ সালের আজকের এই দিনে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান সরকার ঢাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। ছাত্ররা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মিছিল করেন। সেই মিছিলে গুলি চলে। গুলিতে শহীদ হন সালাম, রফিক, বরকত, জব্বার। তাঁদের স্মরণেই দেশবাসী এই শহীদ মিনারের সামনে এসে বিনম্র শ্রদ্ধা জানায়। শ্রদ্ধা-ভালোবাসার ফুলে ছেয়ে যায় মিনারের বেদি।

একুশের প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় চার স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় ছয় হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়। ঢাকা শহরের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য আরও ১০ হাজার পুলিশ সদস্য নিয়োজিত আছে। বুধবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে বেশ কিছু সড়কে ডাইভারশন দেওয়া হয়। চানখাঁরপুল, বকশীবাজার, নীলক্ষেত, পলাশী, শাহবাগ, হাইকোর্ট ক্রসিং, রোমানা চত্বর এলাকা দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকার ছাড়া কোনো গাড়ি ঢুকতে দেয়া হয়নি। এসব এলাকায় তল্লাশি চৌকি বসানো হয়। শহীদ মিনারে যাওয়ার প্রতিটি প্রবেশ ফটকে পর্যাপ্ত আর্চওয়ে বসানো হয়। হ্যান্ড মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে দর্শনার্থীদের দেহ তল্লাশি ও হ্যান্ডব্যাগ পরীক্ষা করা হয়।



 

Show all comments
  • Mohammed Shah Alam Khan ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:১১ এএম says : 0
    প্রতিবছরের মতকরে এবারও দেশের প্রধান ও সরকার প্রধান একত্রে মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। সাথে সমগ্র জাতী এই দিনটাকে ভাব গম্ভীর ভাবে সম্মানের সাথে উপলব্ধি করছে। এই আত্মত্যাগই আমাদেরকে স্বাধীনতার জন্যে জীবন দেয়ার প্রেরনা দিয়েছিল তাই আমরা ’৭১ সালে ঝাপিয়ে পরেছিলাম মুক্তিযুদ্ধে এবং ছিনিয়ে এনেছিলাম আমাদের ভাষা ও স্বাধীনতা। তাই এই একুশ হচ্ছে আমাদের প্রেরনা এই একুশ হচ্ছে আমাদের উদ্দীপনা এই একুশ হচ্ছে আমাদের সাহস আর এই একুশ হচ্ছে আমদের স্বাধীনতার অঙ্কুর। আল্লাহ্‌ আমদেরকে আমাদের ঐতিহ্য বাংলা ভাষা বাঙালী জাতীয়তা বোদকে আরও মজবুত করে দিন। আমিন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: একুশে

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন