Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

প্রতিরক্ষায় পাকিস্তান স্বয়ংসম্পূর্ণ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা উৎপাদন মন্ত্রী পারভেজ খাত্তাক বলেছেন যে, তার দেশ প্রতিরক্ষা উৎপাদনের ক্ষেত্রে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে এবং আন্তর্জাতিক বাজারও দখল করছে। দুবাই থেকে দেশে ফিরে নওশেরায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, দুবাই প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ প্রমাণ করে যে দেশটি প্রতিরক্ষা উৎপাদনের ক্ষেত্রে নৈপুণ্য অর্জন করেছে। খাত্তাক বলেন, প্রতিরক্ষা প্রদর্শনীতে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রতিনিধিরা পাকিস্তানের প্যাভিলিয়নের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং এর উৎপাদনের প্রশংসা করেন। পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যে অনেক শক্ত তাও প্রমাণিত হয়েছে দুবাই প্রদর্শনীতে অংশ গ্রহণের মধ্য দিয়ে। এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ভারতের যুদ্ধংদেহী মনোভাব ও হুমকির থোরাই কেয়ার করে পাকিস্তান। ভারতের যে কোন আগ্রাসনের সমুচিত জবাব দেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি ভারতের প্রতি কাশ্মিরে সন্ত্রাস বন্ধ করার আহবান জানান। মন্ত্রী বলেন, অধিকৃত কাশ্মিরে নিরপরাধ বেসামরিক লোকজনের উপর ভারতীয় বাহিনী যে নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছে তার মধ্য দিয়ে নয়া দিল্লির চক্রান্ত প্রকাশ হয়ে পড়েছে। কাশ্মির বিরোধ নিরসনকে পাকিস্তান-ভারত সম্পর্কের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে উল্লেখ করে প্রতিরক্ষা উৎপাদন মন্ত্রী ভারত সরকারের প্রতি কাশ্মীরী জনগণকে আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার প্রদানের আহবান জানান। এসএএম।



 

Show all comments
  • ইসরাফিল মজুমদার ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:২৯ এএম says : 0
    ভারত হলো সুবিদাবাধী দল,দুই দলের মাঝে ঝগড়া লাগিয়ে পায়দা লুটে তারা,যা করে ছিল ১৯৭১সালে ওদের থেকে সাবধান।
    Total Reply(0) Reply
  • Zakir Hossin ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১৬ এএম says : 0
    পাকিস্তান জিন্দাবাদ
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Bakar ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১৮ এএম says : 3
    ভারতের মিলিটারি পাওয়ার এখন যেখানে সেইে জায়গায় পাকিস্তানে যেতে ৩০ বছর লাগবে ।
    Total Reply(1) Reply
    • Badrul Alam ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:৪১ এএম says : 0
      I doubt it. India has got very few weapons built in her country. 90% of fighter and bombers come from either Russia or France. So money is the only factor to equalise the difference. Besides that Pakistan is buiding weaponry in the country. The difference will soon be in Pakistan's advantage.
  • Mahmudul Hassan Saikat ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:১৯ এএম says : 0
    সামরিক শক্তিতে ভারত বিশ্বে চতুর্থ আর পাকিস্তান ১৫ তম। তাছাড়া ভারতের বিপুল পরিমান দক্ষ জনশক্তি আর অর্থনৈতিক শক্তি বিদ্যমান যা দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধের জন্য অপরিহার্য। ভারতের প্রতিরক্ষা বাজেট পাকিস্তানের সামগ্রিক বাজেটের ০৩ গুন।
    Total Reply(1) Reply
    • Badrul Alam ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:৪১ এএম says : 0
      Nuclear weapons replaced those conventional ones. If used, nuclear weapons will leave devastating effect on those two countries. Bangladesh will also suffer radioactivity problem for sometime. Both the countries should avoid nuclear weapons at any cost. But that will not happen if full scale war is started.
  • Md Rayhan Islam Rimon ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
    Agiye jayo Pakistan,amra achi tomar sathe,kono maluder sathe amader na somprko chilo na ase na thakbe.
    Total Reply(0) Reply
  • Md Golam Kibria ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    Ami muslim , amar hate nayer torbari soda sorboda thakbe, jekhane onnay onachar obichar jobor dokhol agrason sekhanei ami ,, ami chiro bidrohi kobir besuro notun sur,, amar torbarir aghate dhongso hobe sob Osur,,ami matal uttal bongob sagorer urmimala,, amar vaier buker jokto amar mone jaliese moron jala,, onek merese ebar oder pala,, ghore diasi tala, firbona firbona .... kasmir hamara pakistan hamara arob hamara ,,,,,,,,,,,,,, islam jinda hota hay har karbala bath hay.............. Allama Iqbal ka nay jindegi atahay........
    Total Reply(0) Reply
  • নাম জয় দেব টাইটেল ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৫ এএম says : 0
    যারা বিচার করতে পারেন তারা গুগলে গিয়ে 10 most power full nations লিখে সার্চ করুন। তাহলে সব পরিস্কার হয়ে যাবে। এসব আবোদা দের কথা বাদ দিন
    Total Reply(0) Reply
  • Izaz Mahmud Pipul ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৫ এএম says : 0
    অনেক হয়ছে এবার একটু থামুন।আগে একটু চিন্তা করুন ইন্ডিয়া পাক যুদ্ধ হলে আমাদের কোনো" ক্ষতি হবে কিনা?
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Khan ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 1
    ভারতীয চ্যানেল বাংলাদেশে বদ্ধ চাই একমত আছেন কে কে?
    Total Reply(0) Reply
  • Jewel Taizul ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
    কাশ্মীর স্বাধীনতা সাভ'মৌমত্ব ঘোষণা না দিলে ইন্ডিয়ার পরিনতি হবে ভয়াবহ! যা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল হয়ে থাকবে! ইন্ডিয়া গ্রাম শহর খালি করার সময় পাবেনা , মুসলিমের উপর অত্যাচারিদের পতন খুবই নিকটে! বডা'রে নিরিহ মানুষ খুনি মাদক ব্যবসায়ী ইন্ডিয়ানরা ১০০০ মাইল দুরে থাক, তোমাদের পতনের জন্য অপেক্ষা কর,,
    Total Reply(0) Reply
  • শাদাব খান ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৭ এএম says : 0
    মুসলিম এর সবচেয়ে বড় শক্তি হল ঈমান।।এই শক্তির কাছে যে কোন কাফির হার মা
    Total Reply(0) Reply
  • Shahin ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:১৩ পিএম says : 0
    সামরিক দিক থেকে ভারত বিশ্বের চতুর্থ আর পাকিস্তান সতেরো, দুই পক্ষ যদি সম্পূর্ণ শক্তি ব্যবহার করতে পারে তাহলে পাকিস্তান নিশ্চিত হারবে, যদি ও যুদ্ধের হার জিত পুরো পুরি শক্তির উপর নির্ভর করে না। আর ভারত কি সত্যিই পাকিস্তানের চেয়ে শক্তিশালী? ভারত পাকিস্তানের চেয়ে চার গুণ বড়, ভারতের আর্মির কি পাকিস্তানের চার গুণ বেশি শক্তি আছে? ভারত জনসংখ্যায় পাকিস্তানের চেয়ে ছয় গুণ এগিয়ে, ভারতের কি পাকিস্তানের চেয়ে ছয় গুণ বেশি শক্তি আছে? যুদ্ধ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় কথা হলো,সাহসীরাই জিতবে।এ ক্ষেত্রে তো ভারত শত কিলোমিটার পেছনে! সবচেয়ে বড় এবং শক্তিশালী সেনাবাহিনী, ছোট সেনাবাহিনীর কাছে নির্মম ভাবে পরাজয়ের ইতিহাস পৃথিবীতে অনেক আছে। দুইটা পরমানু শক্তিধর দেশ,আজ যারা যুদ্ধের জন্য এতো নাচছে, যুদ্ধের পর নিজ পায়ে হেঁটে চলার জন্য দুনিয়াতে থাকবে কিনা এটা তারা ভাবছে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Osman goni ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:৪২ এএম says : 0
    Pakistani 1 jon sena bharotio 50 jon senar mukabilay sokhkhom,karon gorur dud khawa jatir sathe gorur mut khawa jati kokhono pareni,itehas bole
    Total Reply(0) Reply
  • ash ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫০ এএম says : 0
    MAYBE INDIA STRONGER THEN PAKISTAN ! BUT PAKISTAN IS NOT ALONE, CHINA LOOKING FOR CHANCE TO ATTAK INDIA, IF THAT HAPEN INDIA WILL BE MANY PART, THATS FOR SURE
    Total Reply(0) Reply
  • জাকির আহমেদ রাজু ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭:৫৯ এএম says : 0
    ইদানীং সংবাদ মাধ্যমে বাংলাদেশ ভারত সীমান্তে কোন নিরিহ বাংলাদেশীকে আর মেরে ফেলার সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে না। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে ভারত পাকদের ভয়ে হাগু দিছে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উচিৎ পাক বাহিনীর মত শক্ত অবস্থান নেওয়া।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান

১৯ মার্চ, ২০১৯
১৭ মার্চ, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ