Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ওয়াহেদ ম্যানশনে কেমিক্যাল ব্যবসার অনুমতি ছিল না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৩ পিএম

চকবাজারের চুড়িহাট্টায় হাজী ওয়াহেদ ম্যানসনে কেমিক্যাল ব্যবসার জন্য কোনো ধরনের অনুমতি ছিলো না। এমনকি ওই এলাকায় নিমতলী ট্র্যাজিটির পর কেমিক্যাল ব্যবসার জন্য কোনো লাইসেন্স দেওয়া হয়নি। বাংলাদেশ বিস্ফোরক পরিদফতরের কর্মকর্তারা এ তথ্য জানান।
পরিদফতরের প্রধান বিস্ফোরক পরিদর্শক শামসুল আলম বলেন, নিমতলী অগ্নিকান্ডের পর থেকে ওই এলাকায় কেমিক্যাল ব্যবসার জন্য একটি লাইসেন্সও দেয়া হয়নি। ওই এলাকায় বিস্ফোরক পরিদফতরের লাইসেন্সধারী কোনো গুদামও নেই। যে ভবনটিতে আগুন লেগেছিল সেটিতেও রাসায়নিক দ্রব্য ও দাহ্য পদার্থ রাখার অনুমতি ছিল না।
কেমিক্যালের কারনে আগুনের ভয়াবহতা বেশি হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্লাস্টিক দানার আগুনও খুব ভয়াবহ হয়। যেখানে প্লাস্টিক ফাইবার, পারফিউম বা শত শত স্প্রে থাকে, সেখানে আগুন লাগলে তা নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। তবে, বিস্ফোরক পরিদফতর রাসায়নিকের গুদাম করার ক্ষেত্রে অনুমতি দিলেও প্লাস্টিক বা রাবারের কারখানা করার ক্ষেত্রে কোনো অনুমতি লাগে না।
বিস্ফোরক পরিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, ২০১০ সালে পুরান ঢাকার নিমতলীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে শতাধিক মানুষ পুড়ে নিহত হবার ঘটনার পর উচ্চমাত্রার দাহ্য পদার্থ মজুতে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিলো। তারপরেও চকবাজারে যে অগ্নিকান্ড হয়েছে সেটি উচ্চ মাত্রার রাসায়নিক দাহ্য পদার্থের কারণেই।
কর্মকর্তারা জানান, নিমতলীর ঘটনার পর এ ধরণের দাহ্য পদার্থের দোকান বা গোডাউন তখন সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিলো। পাশাপাশি ২৯টি কেমিক্যালের কোনো গুদামে না রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। এসব উচ্চ মাত্রার দাহ্য পদার্থ ব্যবসায়ীরা যাতে না রাখে সেজন্য গত সপ্তাহে সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে অভিযান চালানো হয়েছিলো। এ সময় উচ্চ মাত্রার কেমিক্যাল রাখার প্রমাণ পাওয়ার পর ব্যবস্থাও নেয়া হয়েছে। লাইসেন্স স্থগিত করেছে সিটি কর্পোরেশন। তারপরেও ব্যবসায়ীরা নিয়ম মানছে না। নিষেধাজ্ঞা মানলে বা এটি বাস্তবায়ন করা গেলে আজ এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না বলে কর্মকর্তারা মনে করছেন।
চকবাজার রাসায়নিক ও প্লাস্টিকের ব্যবসার একটি বড় কেন্দ্র। এখানে সব ধরনের ব্যবসা করার অনুমতি দেয় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ