Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, ১৮ রজব ১৪৪০ হিজরী।

শেষ ষোলোয় চেলসি-আর্সেনাল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষকে কোন সুযোগ না দিয়ে উয়েফা ইউরোপা লিগের শেষ ষোলয় জায়গা করে নিয়েছে প্রিমিয়ার লিগের দুই দল চেলসি ও আর্সেনাল। বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠিত ইউরোপের দ্বিতীয় শীর্ষ ক্লাব প্রতিযোগিতায় গানাররা ৩-০ গোলে হারায় বেলারুশের দল বাতে বরিসভকে। একই সুইডেনের ক্লাব মালমোর বিপক্ষেও একই ব্যবধানের জয় পায় মারিজিও সারির দল।

গত সপ্তায় মালমোর মাঠ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফেরে চেলসি। দুই লেগ মিলে ৫-১ ব্যবধানে এগিয়ে প্রতিযোগিতার পরের রাউন্ডে পা রাখলো বøুজরা। আর বাতের মাঠে প্রথম লেগে ১-০ গোলে হেরে বসা আর্সেনাল দুই লেগ মিলে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে তাদের সঙ্গী হয়েছে।

ঘরের মাঠ এমিরেটস স্টেডিয়ামে ফিরতি পর্বে ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই গোলের দেখা পেয়ে যায় আর্সেনাল। পিয়েরে এমেরিক আবেমেয়াংয়ের ক্রস বিপদমুক্ত করতে গিয়ে বল নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন বাতে ডিফেন্ডার জাখের ভলকভ। একের পর এক আক্রমণ শানিয়ে যাওয়া স্বাগতিকরা দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় ৩৯তম মিনিটে। গ্রানিত জাকার কর্নার কিকে জোরালো হেড নিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জার্মান সেন্টার ব্যাক মুস্তাফি। ৬০তম মিনিটে ৫ মিনিট আগে বদলি নামা সক্রেটিসের করা গোলটিও ছিল হেড থেকে পাওয়া। ম্যাচ শেষে খুশির কথা জানান গানার গুরু উনাই এমিরি, ‘আমরা এমন ফলই চেয়েছিলাম। আমরা আমাদের সমর্থকদের জন্যও এখানে ভাল খেলতে চেয়েছিলাম। আমরা আমাদের সেরাটা দিয়ে ফের টুর্নামেন্টে ফিরে এসেছি। দলটি বেশ ভাল খেলেছে।’

একই রাতের পরের ম্যাচে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে চেলসির শুরুটা ছিল ধীর। গোল পেতে ৫৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। এরপর উইলিয়ানের ভয়ঙ্কর ক্রস থেকে আলতো টোকায় দলকে এগিয়ে নেন ফরাসি স্ট্রাইকার অলিভার জিরুদ। ৭৩তম মিনিটে রাসমাস বেংটসন দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লে সেই সুযোগে পরের মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বার্কলি। ৮৪তম মিনিটে দারুণ গোলে ব্যবধান আরও বাড়ান ১৮ বছর বয়সী ক্যালাম হাডসন-ওডই। ম্যাচ শেষে হাডসন বলেন,‘সবাই আজ সত্যিই ভাল খেলেছে। আমরা এই ম্যাচটির জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছি। আমরা যেভাবে খেলেছি তাতে শেষ মুহুর্তে আমার দেয়া গোলটি ছিল বারতি পাওনা।’

একই রাতে আরেক ম্যাচে কার্লো আনচেলত্তির নেপোলি ২-০ গোলে হারায় সুইজ ফুটবল ক্লাব জুরিখকে। দুই ম্যাচে ৫-১ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ ষোলতে উঠেছে ইতালির দলটি। সানসিরোতে সিরি এ লিগের আরেক ক্লাব ইন্টার মিলান ৪-০ গোলে র‌্যাপিড ভিয়েনাকে হারিয়ে দুই ম্যাচে ৫-০ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ ষোল নিশ্চিত করে। এছাড়া সেল্টিককে ১-০ গোলে হারিয়ে দুই লেগ মিলে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে লা লিগার দল ভ্যালেন্সিয়াও শেষ ষোলোয় তাদের সঙ্গী হয়েছে।

এদিকে রিয়াল বেতিসের মাঠে স্বাগতিক দলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে দুই লেগে ৬-৪ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ ষোল নিশ্চিত করেছে ফরাসি ক্লাব রেনে। ইউরোপের কোন বড় আসরে এটিই দলটির সবচেয়ে বড় সাফল্য।

লিগের অন্য ম্যাচে প্রথম রাউন্ডে পিছিয়ে থাকা আরবি সালজবার্গ, ডায়নামো জাগ্রেব ও জেনিথ সেন্ট পিটার্সবার্গ জয় নিয়ে শেষ ষোলতে জায়গা পেয়েছে। অস্ট্রিয়ান ক্লাব সালজবার্গ ৪-০ গোলে ক্লাব ব্রাগাকে হারিয়ে ৫-২ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শেষ ষোলতে নাম লেখায়। ক্রেয়েশিয় চ্যাম্পিয়ন ডায়নামো ৩-০ গোলে ভিক্টোরিয়া প্লাজেনকে হারিয়ে ৪-২ গোলে এগিয়ে থেকে শেষ ষোল নিশ্চিত করে। জেনিথ পেছনে ফেলেছে ফেনারবাচকে। রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত ম্যাচে ৩-১ গোলে জয়ের মাধ্যমে দুই লেগে ৩-২ গোলের ব্যবধানে শেষ ষোলতে জায়গা করে নেয় জেনিথ।
এছাড়া ভিলারিয়াল ২-১ গোলে স্পোর্টিং সিপিকে, বেনফিকা ২-১ ব্যবধানে গ্যালাতাসারেকে এবং বুন্দেসলিগার ক্লাব বায়ার লেভারকুজেন ১-১ গোলে ক্লাসনোদারের সঙ্গে ড্র করলেও অ্যাওয়ে গোলের সুবাদে শেষ ষোলতে জায়গা করে নেয়। জার্মানির আইন্ট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্ট ৬-৩ ব্যবধানে শাকতার দোনেৎস্ককে পেছনে ফেলে শেষ ষোলতে পৌঁছেছে।

শেষ ষোলায় মুখোমুখি
চেলসি-কিয়েভ
ফাঙ্কফুর্ট-ইন্টার
জাগরেব-বেনফিকা
নাপোলি-সাল্জবুর্গ
ভ্যালেন্সিয়া-ক্রাসনোদার
সেভিয়া-প্রাগ
আর্সেনাল-রেনে
জেনিথ-ভিয়ারিয়াল

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন