Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ভারত হামলা করলে চূড়ান্ত জবাব দেবে সেনাবাহিনী

জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির বৈঠকে ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পাকিস্তানের সেনাবাহিনীকে ভারতীয় বাহিনীর যে কোনো হামলার চ‚ড়ান্ত ও পূর্ণাঙ্গ জবাব দেয়ার কর্তৃত্ব দিয়েছেন। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের পুলওয়ামা জেলায় গত ১৪ ফেব্রæয়ারি ভারতীয় সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সেস বা সিআরপিএফ’র বহরে সন্ত্রাসী হামলার পর পাক-ভারত উত্তেজনা যখন তুঙ্গে তখন ইমরান খান পাক সামরিক বাহিনীকে এই কর্তৃত্ব দিলেন। একইসঙ্গে তিনি পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানগুলোকে দেশ থেকে সন্ত্রাসবাদ এবং চরমপন্থার শিকড় উপড়ে ফেলা প্রচেষ্টা জোরদার করার নির্দেশনা দিয়েছেন। খবর জিও নিউজ ও পার্স টুডে।
গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা কমিটি বা এনএসসি’র বৈঠকে এসব নির্দেশনা ও কর্তৃত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন তিনি। বৈঠকে প্রশাসন ও সামরিক বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তার প্রশ্নে যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়ার সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষ হচ্ছে এনএসসি। ওই বৈঠকে ভ‚-রাজনৈতিক, জাতীয় নিরাপত্তা এবং পুলওয়ামা হামলার পর উদ্ভ‚ত পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকের পর এক বিবৃতি প্রদান করা হয়।
বৈঠকে ইমরান খান বলেন, পাকিস্তান যে তার জনগণকে রক্ষা করতে সক্ষম এবং এ ব্যাপারে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তা আমরা দেখিয়ে দিতে চাই। তিনি বলেন, পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীকে ভারতের যে কোনো আগ্রাসন বা অপচেষ্টার ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে মোক্ষম জবাব দিতে হবে। এ জন্য তিনি পাকিস্তান সশস্ত্র বাহিনীকে সর্বদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন।
বৈঠক থেকে সন্ত্রাসী হামলায় পাকিস্তানের জড়িত থাকার সমস্ত অভিযোগ নাকচ করা হয়। তিনি বলেন, ভারত সরকার কোনো প্রমাণ ছাড়াই এ হামলার দায়ভার পাকিস্তানের ওপর চাপাচ্ছে। এ ধরনের হামলার সঙ্গে জড়িত হয়ে পাকিস্তানের কী লাভ হবে?
ভারত সরকারকে তাদের চিন্তায় পরিবর্তন আনার আহŸান জানিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি স্পষ্ট ভাষায় ঘোষণা করতে চাই- পাকিস্তান এখন নতুন চিন্তাধারায় এগোচ্ছে। আমরা সবার সঙ্গে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে বিশ্বাস করি। ভারতেরও চিন্তার পরিবর্তন দরকার। ভারত যদি এভাবে পুরনো চিন্তাধারায় আচ্ছন্ন থাকে, তা হলে উভয় দেশের আগামীর পথচলা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।
সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে পাকিস্তান কঠোর অবস্থানে রয়েছে জানিয়ে ইমরান খান বলেন, সন্ত্রাস নির্মূলে ভারতের সঙ্গে কথা বলতে আমরা রাজি। সন্ত্রাসবাদ দমনে গত পনেরো বছর আমরা লড়াই করছি। ৭০ হাজারের বেশি মানুষ সহিংসতায় নিহত হয়েছে। সন্ত্রাসী কার্যক্রমে যদি পাকিস্তানকে কেউ ব্যবহার করে তা হলে সে পাকিস্তানেরই শত্রæ বলে মন্তব্য করেন ইমরান খান।
ভারতের পক্ষ থেকে অব্যাহত যুদ্ধের হুমকির বিষয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সবাই জানি যুদ্ধ শুরু করাটা সহজ ব্যাপার। কিন্তু তা শেষ করা মানুষের পক্ষে সম্ভব হয় না। যদি ভারত আগ বাড়িয়ে কোনো ভুল পদক্ষেপ গ্রহণ করে, তা হলেও পাকিস্তান বসে থাকবে না। বরং সমুচিত জবাব দেবে।
যুদ্ধ নয়, আলোচনার মাধ্যমেই শান্তি আসতে পারে জানিয়ে ইমরান খান আরও বলেন, ভারত সরকারকে এ বিষয়ে ভাবতে হবে যে, কাশ্মীরি তরুণরা এখন আর মৃত্যুকে ভয় পায় না। এর মূল কারণ বের করতে হবে। আফগানিস্তানে ১৭ বছর যুদ্ধের পর বিশ্ববাসী স্বীকার করছে যে আলোচনার মাধ্যমেই শান্তি আসতে পারে। আফগানিস্তানের মতো কাশ্মীর সমস্যাও আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হবে।

 



 

Show all comments
  • Kidab ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:৫১ এএম says : 0
    Kashmiri people must deserve freedom,India old mindset must be changed, How a Hindu dominated country keep depriving Kashmiri from their outmost freedom and independence
    Total Reply(0) Reply
  • md Nazrul islam ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫৪ এএম says : 0
    যুদ্ধ কোন শান্তি বয়ে আনে না ।আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে ।
    Total Reply(0) Reply
  • আবীর ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১০:৩৬ এএম says : 0
    ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত উত্তেজনা দিন দিন আন্তর্জাতিক খেলায় পরিণত হয়ে যাচ্ছে। এটা আন্তর্জাতিক খেলা।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abdus salam ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৮:০৫ এএম says : 0
    Ami prothomei bolbo britisder kotha. Ora barot borsoke 200 bosor sason korese. Emon kono nirzaton nai za Tara koreni. Indian Hindu abong namdari Muslim monafeq er sahazze muslimder sokol kisu dongser sessimai rekhe gese. Zabar somoy Muslim oddosito elakar kono prokar somadan Kore zaini. Ora emon kaz Kore gese Kashmir abong arakan prodese kokhono santi na ase. Ekbar chinta Kore dekhonto 1971 sale amader sadinota songgrame sahazzer por theke at ki upokaer korese. Amra zate konodin onnoti na korte pari sobsomoy tai Kore jasse. Sob sese bolte chai amader zemon sadinoter dorker silo temoni Kashmir abong arakan muslimdero sadinoter dorkar. Oder sadinotai pare ekmatro santi firie ante.
    Total Reply(0) Reply
  • Toriqul Islam ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    বাপের বেটার মতো কথা
    Total Reply(0) Reply
  • Lyric Faruq ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    একেই বলে ইন্ডিয়ার বাপ
    Total Reply(0) Reply
  • Sorwar Morshed ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    Welcome to fight
    Total Reply(0) Reply
  • Juventino Di Rosse ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
    ভারত স্বাধীনতা পেয়েছে, পাকিস্তান স্বাধীনতা পেয়েছে, বাংলাদেশ স্বাধীনতা পেয়েছে, তাহলে কাশ্মীর কেন স্বাধীনতা পাবেনা??? স্বাধীনতা চাওয়া কি কাশ্মীরের অপরাধ ??????? জঙ্গিবাহিনী হচ্ছে ওরা যারা কাশ্মীরকে স্বাধীনতা দিচ্ছেনা। সন্ত্রাসী বাহিনী হচ্ছে ওরা যারা কাশ্মীরকে স্বাধীনতা দিচ্ছেনা!!
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Hossain Chy ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৬ এএম says : 0
    এই মুহূর্তে ভারতীয় দালাল রা হুশিয়ার সাবধান, বাংলাদেশের ভিতরে। ভারত পাকিস্তানের কোন দালাল বসবাস করতে পারবে না। ভারত পাকিস্তান নিপাত যাক। বাংলাদেশ জিন্দাবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Riyad Rahman ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৭ এএম says : 0
    অসহায় কাশ্মীরদের ঘরে গিয়ে ভারতীয় সেনারা পৈশাচিক নির্যাতন চালাচ্ছে। সভ্যতার এই যুগে পশুর স্থান হতে পারে না। ধ্বংস হোক এই নর-পশুর দল
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abdullah ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৭ এএম says : 0
    বাংলাদেশে কোনো ভারতের দালাল থাকতে পারবে না
    Total Reply(0) Reply
  • Dalowar Hossin ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৮ এএম says : 0
    বাংলাদেশ বর্ডারে এক বাংলাদেশী কে ধাওয়া করতে গিয়ে বি এস এফের এক সদস্য পানিতে ডুবে মারা গেছে এরা নাকি পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধ করবে এইঠা কি ক্রিকেট খেলা পাইছো যে নো বলেরে রাইট বলে চালায় দিবা
    Total Reply(0) Reply
  • Sarika Samid ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৮ এএম says : 2
    সব কিছুর জন্য পাকিস্তান দাই এরা সারা পৃথিবী কে দংশ করে দিচ্ছে এদের কে সকল দেশ এক সাথে মিলে সায়েস্তা করা দরকার আর এদের সকল কিছু কে নিষিদ্ধ কারা দরকার
    Total Reply(0) Reply
  • Ras Khan ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:২৮ এএম says : 0
    হুঁশিয়ারি দিয়া লাব নাই এদের উপরে সরাসরি আক্রমণ চালাতে হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Rasel Khan ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
    এই সাম্রাজ্যবাদী নব্য ব্রিটিশ উপনবেশিক ভারত হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার মাস্তান ও ক্রিমিনাল অপশক্তি! দক্ষিণ এশিয়ার কেন্সারের ! এই ক্যান্সার ক্রমশই খারাপতর হচ্ছে ! মহাত্মা গান্ধীর সেই শান্তির ও অসহিংস ভারত আর নাই ! #১ কাশ্মীরি মানুষকে স্বাধীনতা বিবর্জিত করে তাদের ৭০ বছর ধরে শোষণ করছে , হত্যা করছে ! #২ দক্ষিণ এশিয়ার প্রতিটা দেশে অভ্ভন্তরীন গণতন্ত্রে হস্তক্ষেপ করে নিজেদের পোষা স্বৈরাচার বসাতে চাই সব সময় #৩ নিজের দেশেই মুসলিমদের গো-মাতার অজুহাতে ও সাম্প্রদায়িক বিষে অনবরত হত্যা, নিপীড়ন , বঞ্চনা করে আসছে ! বাংলাদেশ হওয়ার পর থেকে ভারত একের পর এক বাংলাদেশকে আঘাত ও স্বার্থ হানি করেছে ! #১ স্বাধীনতার পরপরই বাংলাদেশ থেকে কোলকারখানার ভারী মেশিনারি ও আর্মির ভারী ও ভালো সব অস্ত্র লুট করেছে ! #২ বাংলাদেশ থেকে ১৯৫ পাকি যুদ্ধ অপরাধী নিয়ে তাদের বিনিময় পাকিস্তান থেকে কোটি কোটি টাকা আদায় করেছে ! বাংলাদেশকে বিচার থেকে বঞ্চিত করেছে ও টাকা থেকে বঞ্চিত করেছে #৩ পার্বত্য চট্টগ্রামে সন্ত্রাসী বিচ্ছিন্নতাবাদী শান্তিবাহিনী অস্ত্র ও ট্রেনিং দিয়ে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে , হাজার হাজার সৈন্য মেরেছে ! #৪ বিডিআর দিয়ে বাংলাদেশের ৫৭ আর্মি অফিসের হত্যা করেছে #৫ বাংলাদেশের নদীর পানি হাইজ্যাক করে আটকিয়ে রেখেছে #৬ বাংলাদেশিদের অনবরত সীমান্তে প্রতিদিন হত্যা করে লাশের শ্বশান বানিয়েছে সীমান্ত গ্রামকে #৭ বাংলাদশের অভ্ভন্তরীন বেপারে হস্তক্ষেপ করে গণতন্ত্র হত্যা করেছে, ভুয়া জোচ্চোরি ভন্ড নির্বাচনকে সার্টিফাই দিয়ে ও একদলীয় স্বৈরাচার পৃষ্টপোষকতা করেছে ! #৮ রাজনৌতিক ব্ল্যাকমেল করে বাংলাদেশে একতরফা ও একচেটিয়া চুক্তির মাদ্ধমে ফ্রি ট্রানজিট, বন্দর, টিভি , সরকারি প্রজেক্ট ইত্যাদি দখল করেছে #৯ রাজনৌতিক ব্ল্যাকমেল করে বাংলাদশে একতরফা বাণিজ্য ও রপ্তানি করে বাংলাদেশের বাজার ও বেবসা দখল করে রেখেছে #১০ লাখ লাখ ভারতীয়দের অবৈধভাবে চাকরিতে ঢুকিয়েছে বাংলদেশী কোটি যুবক বেকার থাকে স্বর্তেও #১১ সুন্দরবন বিধ্বংসী রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র করেছে #১৩ তিতাস নদীকে ধ্বংস করে তার উপর ভারতের মালামাল বহন করার জন্য রাস্তা বানিয়েচে #১৪ বাংলাদেশ আর্মিকে গায়ের জোরে ভারতের নিন্ম মানের অস্ত্র কিনতে বাধ্য করেছে #১৫ রাজনৌতিক ব্ল্যাকমেল করে বাংলাদেশকে অপ্রয়োজনীয় ভাৰতীয় পণ্য , বিদ্যুৎ , সরঞ্জাম ও সার্ভিস কিনতে বাধ্য করছে ! #১৬ রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত বাংলাদেশকে বিরুদ্ধে জাতিসংঘে ভোট দিয়েছে, অথচ পাকিস্তান বাংলাদেশের পক্ষে ভোট দিয়েছে ! #১৭ রোহিংগাদের আশ্রয় না দিয়ে উল্টা বাংলাদেশে ঠেলে দিচ্ছে , বার্মাতে ঠেলে না দিয়ে #১৮ ভারতীয় বাঙালি মুসলিমদের আসাম ও কলকাতা থেকে খেদিয়ে বাংলাদেশে ঠেলে দিচ্ছে #১৯ বাণিজ্য ঘাটতি প্রতি বছর রেকর্ড ভেঙ্গে ভেঙ্গে অতিক্রম করেছে ! বছরে ভারত সব মিলিয়ে $১৪-১৫ বিলিয়ন ডলার বেবসা ও আয় করে , বিনিময় বাংলাদেশকে $৪০০ মিলিয়নে আটকিয়ে রেখছে ! বাংলাদেশে থেকে ভারত দ্বিতীয় বৃহত্তম রেমিটেন্স আয় করে ! কত যে বেবসা করে দেখেন ! তাই ভারতের ন্যায্য পাওনা ছিল একটা শিক্ষা পাবার ! মুক্তিকামী কাশ্মীর স্বাধীন হউক !! ৭০ বছর ধরে কাশ্মীরি মানুষেকে , নিরিহ জনগণকে হত্যা করে আসছে এই সাম্রাজ্যবাদ মুসলিম-ঘৃনাকারী ভাৰত ! তাই বোঝায় যায় বাংলাদেশকে প্রকৃত হুমকি ও শত্রু কে !
    Total Reply(0) Reply
  • John Gomes ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    পাকিস্তানের হারানোর কিছু নাই ।
    Total Reply(0) Reply
  • মোহাম্মাদ ইকবাল মাহমুদ খোকন ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    আক্রমন তো পাকিস্হানে করবে না | কাস্মিরের সাধারন মানুষের জীবনে নরক নেমে আসবে বা এসেছে |
    Total Reply(0) Reply
  • Neloy Zaman Messi ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    পাকিস্তানের সাথে যুদ্ধের নাম নিয়েই ভারতের লেজেগোবরে অবস্থা। ভারতের আবাল পোলাপান সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিন পাকিস্তানকে ধুলায় মিশিয়ে দিলেও তাদের সরকার ও সেনাবাহিনীর অবস্থা নাজুক। কাশ্মীরের পুলওয়ামায় স্বাধীনতাকামীদের আত্মঘাতী হামলায় ভারতের আধা সামরিক বাহিনীর ৪০ জনেরও বেশি জওয়ান নিহত হওয়ার প্রেক্ষিতে ভারতের সরকার ও উগ্র জনগণ পাকিস্তানের সাথে যুদ্ধের দামামা বাজানো শুরু করে দিয়েছে ৷ তাদের হম্বিতম্বি দেখে মনে হচ্ছিলো কালই বুঝি যুদ্ধ বাধিয়ে দিবে কিন্তু বাস্তবে ভারতের লেজেগোবরে অবস্থা। ভারতের লেজেগোবরে অবস্থা কেন বলছি বুঝার জন্য নিচে লক্ষ্য করুন ৷ পুলওয়ামায় হামলাকারী সন্দেহভাজন দুইজন স্বাধীনতাকামীদের ধরতে গিয়ে একজন অফিসারসহ ৫ জন সৈনিক নিহত হয় ৷ ভারতীয় সেনার হাতে ওইদিন দুই নিরীহ কাশ্মীরিও নিহত হয়। পাকিস্তানকে ভয় দেখানোর জন্য ভারতীয় বিমানবাহিনীর মহড়ায় দুই বিমানের সংঘর্ষে এক পাইলট নিহত ও দুইটি যুদ্ধবিমান বিদ্ধস্ত হয়। যুদ্ধের আগেই ভারতীয় সেনাবাহিনী সরকারকে সতর্ক করে দেয়, তাদের কাছে যে গোলাবারুদ আছে তা দিয়ে মাত্র ১০ দিন যুদ্ধ চালানো সম্ভব। ভারতীয় উগ্র জনতা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কুশপুত্তলিকা দাহ করতে গিয়ে নিজেরাই আগুনে পুড়লো। শুনা যাচ্ছে যুদ্ধের ভয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে ছুটি নেওয়ার হিড়িক চলছে। অফিসার থেকে সাধারণ সৈনিক, ১০ হাজারেরও বেশি ছুটির দরখাস্ত পড়েছে যুদ্ধের ভয়ে। পাকিস্তানের কথা একটাই আক্রান্ত হলে পারমানবিক হামলা ৷ আর এতেই দাদা ও ভাদাদের পেট খারাপ হয়ে গেছে। ভারত শুধু বাংলাদেশকেই একাত্তরে সাহায্যের দোহাই দিয়ে তাদের মতো করে ব্যবহার করতে পারে। তাছাড়া ঐ পাড়ে চিন, পাকিস্তান, নেপাল কেউ তাদের ছাড় দিয়ে কথা বলে না। ভারত লাফালাফি করলেও যুদ্ধ করার সাহস নাই। তাদের বাহাদুরী শুধু কাশ্মীরের নিরিহ মানুষদের সাথেই।
    Total Reply(0) Reply
  • Gobinda Dey ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৯ এএম says : 2
    একাত্তরের মাইর পাকিস্তানের আর্মি এখনো ভুলতে পারিনি তাই ভয়ে কাঁপছে আর বড় বড় হুমকি দিচ্ছে
    Total Reply(0) Reply
  • মেহেদী হাসান ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৫:২১ পিএম says : 0
    ভারতের সাথে কোন যুদ্ধে পাকিস্তান লাভবান হয় নি। 65 সালে আজাদ কাশ্মীর দখল করলে ও 71 সালে পরিনতি ভালো হয় নি। কারগিল যুদ্ধে ভারত কিছু সেনা হারালো পাকিস্তানে গনতান্ত্রিক ব্যবস্থা ধ্বংস হয়েছে। তাই ভারতের চক্রান্তে পা না দিয়ে জঙ্গি দমনে জির টলারেনস নীতি অবলম্বন করা।
    Total Reply(0) Reply
  • ash ৭ মার্চ, ২০১৯, ৮:৪০ পিএম says : 0
    OFFCOURSE IMRAN KHAN SMART EDUCATED SCHOLAR !! HE IS NOT A TEA SELLER !! BUT IMRAN KHAN SHOULDNT BE TOO SOFT.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ