Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

এবার মুখ খুললেন কোহলি-সরফরাজ

বিশ্বকাপে পাক-ভারত ম্যাচ

স্পোর্টস ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

কাশ্মীরে পুলওয়ামাতে জঙ্গী সংগঠনের সন্ত্রাসী হামলার প্রভাব পড়েছে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেটে। বিশ্বকাপে এবারের ম্যাচটি হবে হবে কী না, সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে তার আগে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বর্তমান ক্রিকেটাররাও পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলতে চাইছে না। আর পাকিস্তানি সাবেকদের মতো বর্তমান ক্রিকেটাররা ম্যাচটি খেলার পক্ষে। এতোদিন চুপ থাকলেও অবশেষে মুখ খুলেছেন দুই দেশের দুই অধিনায়ক।
ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি গণমাধ্যমে কথা বলেছেন। কোহলি জানান, ‘শহীদ ৪০ সৈনিকের আত্মার শান্তি কামনা করছি, তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। আমরা চাই যা দেশ চায়। আমাদের ক্রিকেট বোর্ড যেটা ভালো মনে করবে, সেই সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নেব। ১৬ জুন এখনও অনেক দেরি, বোর্ডের এবং দেশের সরকারের সকল সিদ্ধান্তের প্রতি আমরা যথাযথ সম্মান জানাবো।’
চুপ করে থাকেননি পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদও। তিনি গণমাধ্যমে নিজের মন্তব্য জানিয়েছেন এভাবে, ‘ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের জন্য পুরো বিশ্ব তাকিয়ে থাকে। আমি চাই ম্যাচটি আইসিসির ঘোষিত তারিখেই হোক। কোটি কোটি ক্রিকেট পাগল এই ম্যাচটির জন্য অপেক্ষায় আছে। হাইভোল্টেজ এই ম্যাচটি রাজনৈতিক শিকার হতে পারে না। পুলওয়ামা ঘটনা কাম্য নয়, এটা ন্যাক্কারজনক ঘটনা। কিন্তু পাকিস্তানের স্পোর্টসকে স্পোর্টসের মাঝেই সীমাবদ্ধ রাখা দরকার।’
ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই এরই মধ্যে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির দ্বারস্ত হওয়ার সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে বলে জানাচ্ছে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো। পুলওয়ামা হামলায় ৪০ জন ভারতীয় জওয়ান শহীদ হওয়ার পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছেন অনেকেই। শুধু ক্রিকেট নয়, সব খেলাতেই পাকিস্তানকে বয়কটের দাবি করেছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। আসন্ন বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ বয়কটের দাবি করেন অফ-স্পিনার হরভজন সিং। বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ছেঁটে ফেলার পক্ষে আর্জি জানায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।
তবে উল্টো মতও আছে। ম্যাচ না খেলার পক্ষে নন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সুনীল গাভাস্কার। তার মতে, পাকিস্তানকে হারিয়ে পুলওয়ামা হামলায় শহীদদের ম্যাচ উৎস্বর্গ করা উচিত টিম ইন্ডিয়ার। স্বভাবতই পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার, সাবেক অধিনায়ক জাভেদ মিঁয়াদাদ ম্যাচটি খেলার পক্ষে। তাদের দাবি, ঘটনাটি দুই দেশের রাজনৈতিক, ক্রীড়াঙ্গনে এর প্রভাব থাকা উচিত নয়।
ইতিহাস বলছে, কার্গিল যুদ্ধ চলার সময়ও ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছে ভারত। ১৯৯৯ বিশ্বকাপও হয়েছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে। ৪৭ রানে ম্যাচ জিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপে জয়ের ধারা বজায় রেখেছিল মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের দলটি। আগের সেই ম্যাচটিও হয়েছিল ম্যানচেস্টারে। কাকতালীয় হলেও ১৬ জুনের এই ম্যাচটিও ম্যানচেস্টারে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন