Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ০৮ চৈত্র ১৪২৫, ১৪ রজব ১৪৪০ হিজরী।

পুনর্গঠিত হচ্ছে বিএনপি

আলোচনা সভায় ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

নেতাকর্মীদের হতাশ না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, দল পুনর্গঠনের কাজ শুরু হয়েছে। আমাদের দলের মধ্যে যেখানে দুর্বলতা রয়েছে, সেগুলো চিহ্নিত করে পুনর্গঠন করা হচ্ছে। কারণ সংগঠনকে শক্তিশালী করতে না পারলে আমরা জনগণকে নেতৃত্ব দিতে পারব না।
তিনি বলেন, এই দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করা, বিএনপির সামনে বিরাট সুযোগ। এটা আওয়ামী লীগ করবে না। দল হিসেবে বিএনপির দায়িত্ব। আর এ জন্য জনগণ ও বিএনপি প্রস্তুত আছে। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, তবে আমাদের একটু সুযোগ দেন। গতকাল (শনিবার) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপি নেতা তৈমুর আলম খন্দকারের দুটি বইয়ের প্রকাশনা-পাঠ ও আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, অনেকে মনে করছে, বিএনপি পরাজিত হয়েছে। আমরা পরাজিত হইনি। আবার অনেকেই বলেন যে, বিএনপির কর্মীরা হতাশ। আমি এটা বিশ্বাস করি না। বিএনপির নেতা-কর্মীরা হতাশ নয়, হতভম্ব। আমরা সময়ের অপেক্ষা করছি। এ দেশের মানুষ নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করবে। নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা মানেই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করা। আর ‘গণতন্ত্রের মা’ হচ্ছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তাঁকে ছাড়া গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে না। তাই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য দলমত-নির্বিশেষে সবার দায়িত্ব হচ্ছে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা। তিনি আরও বলেন, গত ২৯ ডিসেম্বর রাতে ভোট ডাকাতি একটি অস্বাভাবিক ঘটনা। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী, তিনি যে মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন সেটাকেও আরেকটি অস্বাভাবিক ঘটনা মনে করি। অস্বাভাবিক ঘটনা দিয়ে যেটি শুরু, সেটি বেশি দিন টিকবে না।
চকবাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে মোশাররফ হোসেন বলেন, এর আগে নিমতলীতে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। ওই সময়ও শোনা গিয়েছিল চকবাজারে কেমিক্যালের গুদাম, কোন দোকানপাট থাকবে না। কিন্তু বাস্তবে কী দেখা গেল? আজকে পুলিশ বলছে, সেখান থেকে শত শত ড্রাম কেমিক্যাল উদ্ধার করা হয়েছে। এই সরকার তাহলে কী কাজ করছে? সরকার অনেক কথা বলেছিল, কিন্তু একটিও বাস্তবায়ন হয়নি। তিনি বলেন, চকবাজারে যেসব কেমিক্যালের গুদাম আছে, সেগুলো অপসারণ করা উচিত। অতি দ্রুত ব্যবসার জন্য রাসায়নিক দ্রব্য অন্য জায়গায় নিতে হবে। না হলে চকবাজারের ট্র্যাজেডি আবার হতে পারে। বিএনপির এই নেতা পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল গুদাম সরিয়ে অন্য কোথাও নির্ধারণের দাবি জানান। তিনি বলেন, যে সব গুদাম আছে, দোকান-পাটে কেমিক্যাল বিক্রি করে, এগুলো অনতিবিলম্বে অপসারণ করা উচিত। অতি দ্রুত রাসায়নিক-কেমিক্যাল ব্যবসার জন্য আলাদা জায়গা নির্ধারণ করতে হবে। তাদের তো ব্যবসাটা করতে হবে। আলাদা জায়গা নির্ধারণ করে তাদেরকে সেখানে স্থানান্তর করতে হবে।
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় দলের ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, গ্রন্থের লেখক তৈমুর আলম খন্দকার, প্রকাশক সান্তা ফারজানা, কবি আবদুল হাই শিকদার, অবসরপ্রাপ্ত জজ শামসুল আলম, অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, তৈমুরের মেয়ে মরিয়ম খন্দকার বক্তব্য রাখেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন