Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

কথা রাখলেন পাঠানপুত্র ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:২৬ পিএম

ইমরান খান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর তার সঙ্গে কথোপকথন স্মরণ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, সেই সময় তিনি ইমরানকে দারিদ্র এবং অশিক্ষার বিরুদ্ধে এক সঙ্গে লড়াইয়ের আহ্বান জানিয়েছিলেন। মোদীর কথায়, ‘ইমরান বলেছিলেন, তিনি পাঠানের সন্তান। তাই কথা দিলে সেই কথা রাখেন।’ এর পরই মোদী চ্যালেঞ্জ ছোড়েন, ‘পাঠানের সন্তান হলে কথা রাখুন ইমরান।’

ইমরান খান তার কথা রেখেছেন। পুলওয়ামা হামলার এক সপ্তাহ পর গত ২১ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের বাহওয়ালপুরের একটি মাদ্রাসা এবং মসজিদে (যা জইশ-ই-মহম্মদের সদর কার্যালয় বলেই পরিচিত) প্রশাসনিক দখল নেয় পাক সরকার। ভারত দাবি করেছিল এটি জইশ এর প্রধান কার্যালয়। কিন্তু ওই মাদ্রাসা বা মসজিদের সঙ্গে জঙ্গি সংস্পর্শ পাওয়া যায়নি। নেহাতই সাদামাটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ধর্মীয় স্থান সেটি।

এর পরে এক দিকে শান্তির আহ্বান, অন্যদিকে আবারও ভারতের কাছে তথ্যপ্রমাণ চাইলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মোদী চ্যালেঞ্জ ছুড়েছিলেন, ‘পাঠানপুত্র’ হলে কথা রাখুন, সন্ত্রাসের বিরদ্ধে ব্যবস্থা নিন। জবাবে পাক প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘শান্তি ফেরানোর সুযোগ দিক ভারত’, এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ‘উপযুক্ত প্রমাণ’ দিলে ব্যবস্থা তিনি নেবেন।

তবে ইমরানের এই বার্তাকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে না নয়াদিল্লি। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুক্তি, ২৬/১১ থেকে পাঠানকোট হামলা, পাকিস্তানকে বহুবার পাক মদতে সন্ত্রাসের প্রমাণ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু হাত গুটিয়ে বসে থাকা ছাড়া আর কিছুই করেনি ইসলামাবাদ।

শনিবার রাজস্থানের টঙ্ক-এ মোদীর এই চ্যালেঞ্জের জবাব ইসলামাবাদ থেকে এল এক দিন পর। রোববার সংবাদ সংস্থা পিটিআই-এর দাবি, পাক প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে একটি বিবৃতি দিয়ে ইমরান খান বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার কথা রাখবেন।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘পাকিস্তানে জঙ্গি কার্যকলাপের কার্যকরী প্রমাণ দিলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এর পর মোদীর উদ্দেশে পাক প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান, ‘শান্তির জন্য একটা সুযোগ দিন।’ সূত্র: এনডিটিভি, ডন।

 

 



 

Show all comments
  • Habibul Bashar Mahbub ৪ মার্চ, ২০১৯, ১২:০১ এএম says : 0
    সাবাস ইমরান খান
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন