Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সম্মেলন শুরু কাল উন্নয়নে পরামর্শ দিতে ঢাকায় ৩০০ প্রবাসী প্রকৌশলী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:৩৫ পিএম

উন্নত দেশে কাজ করা প্রবাসী প্রকৌশলীদের অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে এক সম্মেলন আগামীকাল মঙ্গলবার ঢাকায় শুরু হচ্ছে। সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, জার্মানি, জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়াসহ বিশ্বের ৩০টি দেশে কর্মরত প্রায় ৩০০ প্রবাসী বাংলাদেশি প্রকৌশলী এ সম্মেলনে অংশ নেবেন। বাংলাদেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ-ইআরডি, প্রধানমন্ত্রীর কার্য়ালয়ের এটুআই এবং ব্রীজ টু বাংলাদেশ (বিটুবি) এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সোনারগাঁ হোটেলে ‘কনভেনশন অব এনআরবি ইনজিনিয়ার্স’ শীর্ষক দু’দিনের এই সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইআরডি সচিব মনোয়ার আহমেদ এ সব তথ্য জানিয়েছেন।

মনোয়ার আহমেদ বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশি প্রকৌশলীদের অভিজ্ঞতা দেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে এ সম্মেলনের আয়োজন করা হচ্ছে। দেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধি এবং উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত করা এ সম্মেলনের প্রধান উদ্দেশ্য।

আমাদের প্রবাসী প্রকৌশলীরা উন্নত বিশ্বের উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশ নিয়ে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে তা আমাদের জাতীয় উন্নয়নে কাজে লাগাতেই এ সম্মেলন করছে সরকার। তিনি বলেন, বিভিন্ন সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন দেশে কাজ করা প্রবাসী প্রকৌশলদের দেশের উন্নয়নে অবদান রাখার আহবান জানিয়েছিলেন। ওই আহবানে সাড়া দিয়ে প্রবাসীরাও তাদের মেধা আর অর্জিত প্রজ্ঞা দেশকে ফিরিয়ে দিতে আগ্রহী।

আমাদের প্রবাসীদের চেয়েও কম দক্ষ বিদেশি প্রকৌশলীরা আমাদের উন্নয়নে যুক্ত থেকে বছরে প্রায় ৭/৮ বিলিয়ন ডলার নিয়ে যাচ্ছে। আমাদের প্রবাসীরা কাজ করতে পারলে অর্থও সাশ্রয়ী হবে আবার কাজের মানও বাড়বে বলে আমার বিশ্বাস।

মনোয়ার আহমেদ বলেন, সম্মেলনে জাতীয় পরিবহণ ব্যবস্থা উন্নয়ন, স্যাটেলাইট সাইবার নিরাপত্তা, ন্যানো প্রযুক্তি, টেকসই পরিবেশ উন্নয়ন, টেলিযোগাযোগ, জ্বালানী ও বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়ন এবং কৃষি প্রযুক্তির উন্নয়নসহ নানাবিধ কারিগরি বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

এটুআই এর উপদেষ্টা আনিস চৌধুরী বলেন, দুদিনের সম্মেলনে ৯টি বিজনেস সেশন অনুষ্ঠিত হবে। এসব সেশনে ৩৮টি উদ্ভাবনী প্রকল্প উপস্থাপন করা হবে। প্রকল্পগুলো থেকে বাচাই করে প্রাথমিকভাবে তিনটি প্রকল্পের জন্য ২৫ লাখ টাকা করে সিড মানি দেওয়া হবে। প্রকল্প কর্তৃপক্ষ এক বছরের মধ্যে ওই প্রকল্প বাস্তবায়ন করে দেখাবেন।

প্রবাসী প্রকৌশলীদের নিয়ে কাজ করার আগ্রহ সরকার এর আগেও দেখিয়েছিল। কিন্তু এবার সরকার প্রস্তুতি নিয়েছে। তাই সরকার, প্রবাসী এবং সমাজ সকল পক্ষ মিলেই এই কার্য়ক্রমে সফলতা পাওয়া যাবে অমার বিশ্বাস।

ব্রীজ টু বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আজাদুল হক বলেন, সম্মেলনে প্রবাসীরা যে ৩৮টি পেপার উপস্থাপন করবে তার সবগুলো বাস্তব ভিত্তিক; কোনও পেপার একাডেমিক হবে না। ম্যাক্স গ্রুপ এই সম্মেলনের পৃষ্ঠপোষকতা করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ