Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বৈষম্য বিলোপ আইন পাস করা হবে- আইনমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫৮ পিএম | আপডেট : ৯:২৬ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বৈষম্য বিলোপ আইন তৈরির কাজ চলছে এবং এটি এখন শেষ পর্যায়ে রয়েছে। চলতি অধিবেশনে সম্ভব না হলে আগামী অধিবেশনে এটি পাস করা হবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বলেন, আমরা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস করেছি এবং এটা কার্যকর করেছি। এখন আমরা সাইবার ট্রাইব্যুনালকে জোরদার করবো। তার কারণ হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এর যদি উপযুক্ত বাস্তবায়ন প্রয়োজন হয় তাহলে কিন্তু সাইবার ট্রাইব্যুনালকে সুষ্ঠু এবং শক্ত করতে হবে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের যাতে কোন অপব্যবহার না হয় সেটার দিকেও আমরা লক্ষ রাখছি। বুধবার ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অ্যাজমা অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের ২২তম এজিএম ও আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, ১৭ কোটি মানুষের বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় এক কোটি মানুষ অ্যাজমা রোগে ভুগছে। এটা আমাদের জন্য খুশীর খবর নয়। তাই এ রোগের প্রকৃত কারণগুলো খুঁজে বের করতে হবে এবং তা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দশ হাজার চিকিৎসকের নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে। এর আগেও দশ হাজার চিকিৎসক ও দশ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে জনগণের স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, সরকারের স্বাস্থ্যখাতের চিকিৎসা সেবা ও বিভিন্ন প্রতিষেধকমূলক কার্যক্রমের ফলে দেশের মানুষের গড় আয়ু এখন পাকিস্তান ও ভারতের উপরে পৌঁছে গেছে। বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু এখন ৭২ এর উপরে। যেটা স্বাধীনতার অব্যবহিত পরে ছিল ৪৭ বৎসর। উন্নয়নের অনেক সূচকে আমরা সাউথ ইষ্ট এশিয়ার মধ্যে সেরা অবস্থানে আছি। ২০১৮ সালে আমরা উন্নয়নশীল দেশের সারিতে উঠার যোগ্যতা অর্জন করেছি। ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশে পরিণত হবই ইনশাআল্লাহ্‌
অ্যাজমা অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. বশীর আহাম্মদ এর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দীন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সনাল, বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব অধ্যাপক ডা. মো. কামরুল হাসান মিলন প্রমুখ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইনমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন