Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

বঙ্গবন্ধু আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ

স্পোর্টস রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:৩৮ এএম

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকীতে মাসব্যাপী আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন করা হচ্ছে। ‘বঙ্গবন্ধুর চেতনায় গড়ি মাদকমুক্ত বাংলাদেশ’- এমন স্লোগান নিয়ে এই চ্যাম্পিয়নশিপের ১০টি ডিসিপ্লিনে অংশ নেবেন ৭০টি সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সাড়ে তিনহাজার শিক্ষার্থী। ১৮ মার্চ শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা। শেষ হবে ১৭ এপ্রিল। আসরের প্রত্যেক ইভেন্টে অংশ নেয়া প্রথম তিনজন বিজয়ীকে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জপদক দেয়া হবে। সবচেয়ে বেশি পদকজয়ী বিশ্ববিদ্যালয় পাবে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি। পরের বছর নতুন চ্যাম্পিয়ন বিশ্ববিদ্যালয়কে এই ট্রফি হস্তান্তর করা হবে।
চ্যাম্পিয়নশিপকে সামনে রেখে গতকাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান টুর্নামেন্টের উপদেষ্টা কমিটির সভাপতি এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি। এ সময় চ্যাম্পিয়নশিপের উপদেষ্টা কমিটির আহ্বায়ক নাহিম রাজ্জাক এমপি, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মুহাম্মদ আবদুল্লাহ ও যুগ্ম সচিব ওমর ফারুক, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মাসুদ করিম ও অন্যতম পৃষ্ঠপোষক পোলার আইসক্রীমের চিফ অপারেটিং অফিসার শাহ মাসুদ ইমাম উপস্থিত ছিলেন।
চ্যাম্পিয়নশিপের ডিসিপ্লিনগুলো হচ্ছে- ক্রিকেট, ফুটবল, হ্যান্ডবল, সুইমিং, সাইক্লিং, ভলিবল, সাঁতার, অ্যাথলেটিক্স, টেবিল টেনিস ও বাস্কেটবল। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের জিমন্যাশিয়ামে খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে। ফাইনাল খেলা হবে ক্রীড়া পরিষদের ডিসিপ্লিন সংশ্লিষ্ট মাঠে। জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘যুব সমাজকে খেলাধূলার প্রতি আগ্রহ করে তুলতে ক্রীড়াবান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নানামুখি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। যার প্রতিফলন বঙ্গবন্ধু আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ। আমরা এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে যুব সমাজকে খেলাধূলার প্রতি আগ্রহ করে তুলবো। সেই সঙ্গে চূড়ান্ত পর্বে বাছাইকৃতদের দীর্ঘমেয়াদী অনুশীলনের ব্যবস্থা করবো।’
নাহিম রাজ্জাক বলেন, ‘তরুন সমাজকে ক্রীড়ায় অংশগ্রহনের মাধ্যমে অনুপ্রেরণার চেষ্টা করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে এই টুর্নামেন্টের জন্য সংশ্লিষ্ট ফেডারেশনগুলোর কাছ থেকৈ রেফারি ও কোচিং স্টাফ চাওয়া হবে দীর্ঘ মেয়াদী প্রশিক্ষণের জন্য।’ তিনি আরো বলেনৈ, ‘এ বছর ১০টি ডিসিপ্লিন নিয়ে শুরু হয়েছে। আগামীতে ডিসিপ্লিন বাড়বে।’ চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠান বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন