Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

ঠাকুরগাঁওয়ে অজ্ঞাত রোগে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু

জেলা প্রশাসনের আর্থিক সহায়তা, কারণ নির্ণয়ে এখনো কাজ করছে দুটি বিশেষজ্ঞ দল

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৫:৫৭ পিএম

অজ্ঞাত রোগে ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় মৃতদের দাফন কাফন দোয়া মাহফিলের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিবারটিকে ২০ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা দেয়া হয়েছে । এদিকে রোগের কারণ নির্ণয়ে ,ঢাকার রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ গবেষণা প্রতিষ্ঠানের ৫ সদস্যের একটি টিম এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের একটি টিম এলাকায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। 

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ভাণ্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামে অজ্ঞাত রোগে মাত্র ২০ দিনের ব্যবধানে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ওই পরিবারকে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ভাণ্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামে পরিদর্শন শেষে মৃত আবু তাহেরের বাবা ফজর আলীর হাতে ২০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় তিনি মৃতের পরিবারে লোকজন ও এলকাবাসীর সাথে কথা বলেন এবং তাদেরকে আতঙ্কিত না হবার পরামর্শ প্রদান করেন। পরিদর্শন শেষে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক বলেন, ঘটনাটি জানার সাথে সাথেই উপজেলা প্রশাসন এলাকায় মাইকিং করে ১ কিলোমিটার চলাচলে নিষেধাজ্ঞা, এলাকার দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ, নিরাপদে চলাচলের জন্য ২ শতাধিক মাকস বিতরণ করেছে। মৃতদের মরদেহ দাফন কাজের খরচ বাবদ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। প্রশাসন তাদের পাশে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেন জেলা প্রশাসক। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুর রহমান মাসুদ, স্থানীয় ধনতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সমর চ্যাটার্জী নুপুর তাঁর সাথে ছিলেন।
এদিকে মৃত্যুর আসল কারণ জানার জন্য রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের ৫ সদস্যের একটি টিম এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের একটি টিম এলাকায় এসেছেন। তারা বৃহষ্পতিবারও কাজ করছেন, তারা নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় ল্যাবে পাঠাবেন। ল্যাবে পরীক্ষা করেই রিপোর্ট আসলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে গবেষকদের পক্ষ থেকে ঠাকুরগাঁওয়ের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন শাহজাহান নেওয়াজ জানিয়েছেন। তবে গবেষকরা সাংবাদিকদের কাছে কিছু বলছেন না এ মুহূর্তে।
এর আগে গত বুধবার দুপুরে আবু তাহেরের বাড়ী পরিদর্শন করেছে ঢাকা থেকে আসা রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা প্রতিষ্ঠানের ৫ সদস্যের একটি তদন্ত টিম। উল্লেখ যে, গত ৯ ফেব্রæয়ারি অজ্ঞাত একটি রোগে ভান্ডারদহ মরিচপাড়া গ্রামের ফজর আলীর ছেলে আবু তাহের (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন। এরপর ২১ ফেব্রæয়ারি একই দিনে মারা যান আবু তাহেরের জামাতা হাবিবুর রহমান (৩৫) ও স্ত্রী হোসনে আরা (৪৫)। এর দুইদিন পর ২৪ ফেব্রæয়ারি আবু তাহেরের দুই ছেলে ইউসুফ আলী (৩০) ও মেহেদী হাসান মৃত্যুবরণ ও ওই পরিবারের ৬/৭ জন অসুস্থ্য হলে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অজ্ঞাত রোগ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ