Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

মসনবী শরীফ

মাওলানা জালাল উদ্দীন রূমী রহ.

কাব্যানুবাদ : রূহুল আমীন খান | প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০১৯, ১২:১১ এএম

১৪৬০. নৃত্য করে দেহটাই যখন এ মত

প্রেমস্পর্শে তাঁর
তখন কি হাল হয় সে পরশে চিন্ময় আত্মার ?
জিজ্ঞেস করোনা তুমি তাই
বর্ণনা প্রদান করা সে হালের
নাই কোন শক্তি সাধ্য নাই।
তদুপরি গোটা দেহ যে সময় হয়ে যায় প্রাণ
সেই হাল অবস্থার দিতে পারে কেই বা সন্ধান !

১৪৬১. যে সিংহকে বন্দি করে খরগোশ
অন্দরে কারার
লজ্জায় বাঁচার চেয়ে
অবশ্যই মৃত্যু ভাল তার।

১৪৬২. নফস-খরগোশের ওই ধূর্ত কূট ফেরেবের চালে
রয়েছে পতিত তুমি, আর
ভূষিত হইতে চাও উপাধি লকবে
ধর্মীয় সম্মান মর্যাদার !
১৪৬৩. পতিত হয়েছে তুমি ওহে বাঘ
মহাসর্বনেশে
পার্থিব কূপের তলদেশে।
প্রবৃত্তি করেছে হত্যা
তোমাকে তো খরগোশের মত
নফসের ধোকায় পড়ে তুমি মৃত
হয়েছ নিহত।

১৪৬৪. খরগোশ-নফসটি তোমার
মহামৌজে মত্ত হয়ে আছে দুনিয়ার
আর কূপ-তলদেশে তুমি
তর্ক-বিতর্ক নিয়ে করিতেছ সময় গোযার।

১৪৬৫. দৌড়ে গেল খরগোশ পশু পালে উল্লসিত মন
বলিল চিৎকার দিয়ে
সু সংবাদ! সুসংবাদ!! শোন বন্ধুগণ।

১৪৬৬. সু সংবাদ! সুসংবাদ!!
বিজয় উৎসব কর বন্ধুরা আমার
নরকের ওই কুত্তা ফিরে গেছে নরকে আবার।

১৪৬৭. সুসংবাদ! সুসংবাদ!! ভয় নাই ্রজ্বলিত প্রদীপের মত
ঘিরে তাকে বৃত্তাকারে
পশুকুল হলো সিজদা নত।

১৪৭২. আনন্দ উদ্বেল কণ্ঠে বলিল তাহারা
ওগো তুমি ফেরেশ্তা না পরী
যালিম বধের জন্য
এসেছ কি এই রূপ ধরি?

১৪৭৩. যাহাই হওনা তুমি হে বিজয়ী বীর
তোমার কীর্তির জন্য আমরা সবাই
উৎসর্গিত অবনত শির।
মহাযুলুমের থেকে বেঁচে গেছি আমরা সকলে
সুরক্ষা করেছ তুমি আমাদেরে
নিজ বাহু বলে।

১৪৭৪. আল্লা পাক সর্বশক্তিমান
তোমাতে এ বুদ্ধি শক্তি তিনিই তো করেছেন দান
আমাদের এই অভিলাষ
লও তুমি শ্রদ্ধার্ঘ্য
বীরবর সাবাস ! সাবাস !!

১৪৭৫. বলছি তোমাকে পুনঃ সাবাস ! সাবাস !!
বল বীর বর কী কৌশলে তুমি
ওই মহাযালিমকে করিলে বিনাশ ?

১৪৭৬. সে কাহিনী খুলে বলো
মোদেরে শুনাও বিরোত্তম
তা হবে মোদের ঘায়ে
ধন্বন্তরি পট্টি ও মলম।

১৪৭৭. খুলে বলো বীরবর তার কথা, বলো পুণ্যবান
ভীষণ যুলুম আর অত্যচারে যার
ক্ষত ও বিক্ষত হলো লাখো লাখো প্রাণ।

১৪৭৮. বলিল সে- শোনো শোনো
খোদার মদদ সব তারি মেহেরবাণী
তা না হলে ক্ষুদ্র প্রাণী এই খরগোশের
শক্তি কত খানি ?

১৪৭৯. খোদাই তো করেছেন দান
হৃদ-মাঝে জ্ঞানের এ নূর
সে নূরে হিম্মত এলো
শক্তি হলো চরণ-বাহুর।
অন্তরের নূর থেকে এই দেহ হয় বলিয়ান
জেনে রেখো সার কথা ওহে ভ্রাতাগণ
সকল শক্তির মূল সর্বশক্তিমান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন