Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ঠেকানো গেল না ইনিংস হার

তামিম-সৌম্যর প্রশংসায় মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

প্রথম ইনিংসে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরিতে তামিম ইকবাল আশা দেখিয়েছিলেন ভালো কিছুর। বাকিদের ব্যর্থতায় পরিণ । দ্বিতীয় ইনিংসেও থাকলো সেই ধারা। তামিমের দারুণ শুরুর পর রেকর্ড ছোঁয়া অসাধারণ সেঞ্চুরিতে সকালটা রাঙালেন সৌম্য সরকার। দ্বিতীয় সেশন আলোকিত করল মাহমুদউল্লাহর দুর্দান্ত সেঞ্চুরি। তবে অন্যরা থাকল সেই ব্যর্থতার চক্রেই। গতকাল বিকেলে তাই মেনে নিতে হলো অনুমিত পরিণতিই। বাংলাদেশ হারল ইনিংস ব্যবধানে। হ্যামিল্টন টেস্টে বাংলাদেশকে ইনিংস ও ৫২ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। তিন ম্যাচ সিরিজে এগিয়ে গেছে ১-০ ব্যবধানে।
নিজেদের টেস্ট ইতিহাসের রেকর্ড সংগ্রহ গড়ে প্রথম ইনিংসে ৪৮১ রানের লিড নিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। আগের দিন টেস্টের চতুর্থ দিন শেষ সেশনে বাংলাদেশ অলআউট হয়েছে ৪২৯ রানে। সৌম্য ও মাহমুদউল্লাহর জুটিতে এক সময় বাংলাদেশ আশা জাগিয়েছিল ইনিংস পরাজয় এড়ানোর। চতুর্থ উইকেটে দুজনের জুটির রান ২৩৫; পঞ্চম উইকেটে বাংলাদেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ। কিন্তু এই দুজন ছাড়া দাঁড়াতে পারেননি আর কেউ। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিতে সৌম্য ছুঁয়েছেন বাংলাদেশের দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড। লাঞ্চের পর ফিরেছেন ১৪৯ রান করে। ১৭১ বলের ইনিংসে মেরেছেন ২১ চার আর ৫ ছক্কা। হ্যামিল্টনে দ্বিতীয় আর ক্যারিয়ারের চতুর্থ টেস্ট সেঞ্চুরিতে মাহমুদউল্লাহ করেছেন ক্যারিয়ার সেরা ১৪৬।
প্রথম ইনিংসে তামিমের ১২৮ বলে ১২৬ রানের ইনিংসের পরও বাংলাদেশ করতে পারে মাত্র ২৩৪। দ্বিতীয় ইনিংসেও তামিম করেন ৭৪। দল হারলেও দ্বিতীয় টেস্টের আগে ইতিবাচক কিছু দেখছেন অধিনায়ক, ‘ব্যাটসম্যানদের জন্য ইতিবাচক কিছু নিয়ে যেতে পারছি দ্বিতীয় টেস্টে। তামিম খুব ভাল ব্যাট করেছে। সৌম্য ছিল দুর্দান্ত। তামিমের একটা বিষয় বলতে চাই। একটা পর্যায়ে তামিমকে যখন একের পর এক বাউন্সার মারছিল। ও সবচেয়ে ভালো পুল হুক খেলে। ওই সময়টায় ও সারভাইভ করে।’
সৌম্য আগ্রাসী ব্যাট করে সুর বেধে দিলেও দায়িত্ব মাথায় নিয়ে সর্বোচ্চ নিবেদনই দেখিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ নিজে। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউটের আগে ইনিংস হার এড়াতে লড়ছিলেন প্রাণপণে। ৩১৫ মিনিট ক্রিজে থেকে ২২৯ বলে করেন ১৪৬। নিজের ব্যাটিং নিয়ে জানালেন থিতু হয়ে ক্রিজ আঁকড়ে থাকতে চেয়েছিলেন তিনি, ‘আমি চেষ্টা করেছি একটু সময় নিতে যাতে ওরাও একটু ক্লান্ত হলে আমি আমার সুযোগগুলো নিতে পারব। আমি ওই চিন্তায় ব্যাট করছিলাম।’
সর্বনাশ যা হওয়ার হয়ে গেছে প্রথম ইনিংসেই। তবে তা থেকে ইতিবাচক কিছু দেখছেন অধিনায়ক। বিশেষ করে কিউই পেসারদের দুই কৌশল সম্পর্কে পেয়েছেন পাকা ধারণা, যা কাজে লাগাতে চান দ্বিতীয় টেস্টে। ৩১৫ মিনিট ক্রিজে থেকে ২২৯ বলে ১৪৬ রান করা মাহমুদউল্লাহ পর্যবেক্ষণে নতুন বল আর পুরনো বলে যেমন কৌশল আঁটে কিউইরা, ‘ওরা গতির বৈচিত্রে দারুণ বল করে, নতুন বলে স্যুয়িং করার চেষ্টা করে, বল পুরনো হলে শর্ট বল করে। আশা করি আমাদের ব্যাটসম্যানদের একটা ধারণা হয়ে গেছে। এইগুলা চিন্তা করে যেন দ্বিতীয় টেস্টে নামতে পারি তাহলে ভালো কিছু সম্ভব।’ বুঝেছেন কিন্তু সেটা দেরিতে। দ্বিতীয় ইনিংসে এমন খেলার পর প্রথম ইনিংসের ধসের আক্ষেপও পুড়াচ্ছে তাকে, ‘আমার মনে হয় প্রথম ইনিংসে আমার সুযোগ হাতছাড়া করেছি। আরও একজন কেউ যদি বড় স্কোর করতে পারত হয়তবা আজকে ভিন্ন কিছু হতো।’
ওয়েলিংটনে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে ৮ মার্চ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
বাংলাদেশ ১ম ইনিংস : ২৩৪।
নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস : ১৬৩ ওভারে ৭১৫/৬ ডিক্লে.।
বাংলাদেশ ২য় ইনিংস : ১০৩ ওভারে ৪২৯ (আগের দিন ১৭৪/৪) (সৌম্য ১৪৯, মাহমুদউল্লাহ ১৪৬, লিটন ১, মিরাজ ১, আবু জায়েদ ৩, খালেদ ৪*, ইবাদত ০; বোল্ট ২৮-৩-১২৩-৫, সাউদি ২৪-৪-৯৮-৩, ডি গ্র্যান্ডহোম ১০-১-৩৩-০, ওয়েগনার ২৪-৪-১০৪-২, অ্যাস্টল ১৫-৩-৫৮-০, উইলিয়ামসন ২-০-১৩-০)।
ফল : নিউজিল্যান্ড ইনিংস ও ৫২ রানে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : কেন উইলিয়ামসন।
সিরিজ : ৩ ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন