Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

রাণীশংকৈলে আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে আ. লীগের দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

রাণীশকৈল(ঠাকুরগাঁও) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০১৯, ৩:৫৯ পিএম | আপডেট : ৭:২৯ পিএম, ৬ মার্চ, ২০১৯

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনে আ'লীগে সভাপতি অধ্যাপক সইদুল হক (নৌকা) প্রতীক নিয়ে দলীয় মনোনয়ন পেলেও নৌকার বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সভাপতি শাহারিয়ার আজম মুন্না (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছেন। এমন তথ্য উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে সাধারণ ভোটারদের কাছ থেকে জানা গেছে। তবে সইদুল হকও বসে নেই। তিনিও তার সমর্থকদের নিয়ে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে সারা উপজেলায় ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট সংগ্রহ করে বেড়াচ্ছন।

উপজেলার নেকমরদ, ধর্মগড়, হোসেনগাঁও, বাচোর, রাতোর, কাশিপুর, নন্দুয়ার, লেহেম্বা সহ পৌরসভা ঘুরে ভোটারদের কাছ থেকে জানাগেছে, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মরহুম মিজনুর রহমানের ছেলে "মুন্নার ফিল্ড ভাল দেখা যাচ্ছে। ভোটারা মনে করছেন মুন্না এখন অনেক ভোটে এগিয়ে রয়েছেন।

এদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাহফুজা বেগম পুতুল (কলস) প্রতীক নিয়ে ভোট ভিক্ষা করছেন। তবে তার চেয়ে মহিলালীগের সম্পাদিকা সহকারী শিক্ষিকা ফরিদা ইয়াসমিন (ফুটবল) প্রতিক নিয়ে অনেক ভোটে এগিয়ে আছেন বলে সাধারণ ভোটাররা সাড়া দিয়েছেন। একই পদে শেফালী বেগম হাই কোর্টের রায় পেয়েছেন বলে সুত্রে জানগেছে। ভাইস চেয়ারম্যান পদে ত্রীমূখী লড়ায়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সাবেক ছাত্রনেতা প্রধান শিক্ষক বাবর আলী ( চসমা) প্রতীক নিয়ে, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা (টিউবওয়েল) প্রতীক নিয়ে, আ'লীগ নেতা দিগেন চন্দ্র রায় (তালা) প্রতীক নিয়ে ত্রীমূখী লড়ায় করছেন। বসে নেই রস্তম আলী (উড়ো জাহাজ) প্রতীক নিয়ে। তিনিও ভোটারদের কাছে ভোট চুসে বেড়াচ্ছেন। তবে উপজেলা নির্বাচনী এলাকা ঘুরে সাধারণ ভোটারদের কাছ থেকে জানা গেছে বাবর আলী এখন পর্যন্ত ভোটে এগিয়ে আছেন।
চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী মুন্না অনেক সংগ্রামের পর হাইকোর্ট থেকে রায় পেয়ে মটরসাইকেল নিয়ে ভোটযুদ্ধে নেমে পরেছে। তার নির্বাচনী প্রচারনায় অসংখ্য সারা পাওয়া গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ