Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

মুসলিমদের ঘৃণা করতে শেখাচ্ছে মিয়ানমারের পাঠ্যবই

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০১৯, ৪:৫৯ পিএম

মিয়ানমারের পাঠ্যবইগুলোতে মুসলিমসহ সঙ্কর জাতির মানুষকে ঘৃণা করতে শেখানো হচ্ছে। মঙ্গলবার জাতিসংঘ প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে জানান মিয়ানমারের মানবাধিকার তদন্তে জাতিসংঘে নিযুক্ত বিশেষ দূত ইয়াং হি লি।

প্রতিবেদনে জাতিসংঘের শীর্ষ এ কর্মকর্তা অভিযোগ করেন, মিয়ানমার পাঠ্যবইয়ের মাধ্যমে ঘৃণাবাদী মন্তব্যকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত বিশেষ দূত ইয়ং হি লি বলেন, ‘মিয়ানমারে দশকের পর দশক ধরে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। রোহিঙ্গারা নির্যাতনের শিকার। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তবুও নিষ্ক্রিয়। ব্যবস্থা গ্রহণে বিলম্ব হতে থাকলে বৈষম্য বাড়বেই।’

মিয়ানমারে ঘৃণার ব্যবহার শুধু পাঠ্যবইতেই নয়, এর বিস্তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেশটিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হচ্ছে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মও মুসলিমবিরোধী হয়ে উঠছে। এর পেছনে সরকার ও সেনাবাহিনী মদদ দিচ্ছে, যা প্রতিরোধে কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।



 

Show all comments
  • Abdul hamid Khan ৮ মার্চ, ২০১৯, ১২:৪২ এএম says : 0
    জাতিসংঘকে যত দ্রুত সম্ভব এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mijan k c ৮ মার্চ, ২০১৯, ২:৪৪ এএম says : 0
    মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনী মিলে অসহায় সাধারন মুসলিম সহ অন্যান্য ধর্মিয় গোষ্ঠীর উপর হিংস্র জানোয়ারের থেকেও খুব খারাপ আচরণ করছে যা কোন বিবেকবান মানুষের পক্ষে এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয় আমাদের দাবি বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলো মিলে অত্যচারী হিংস্র মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হোক তাছাড়া মিয়ানমারে শান্তি ফেরানো সম্ভব নয় তা নাহলে রোহিঙ্গা মুসলমানসহ ও অন্যান্য জাতির লোকেরা মিয়ানমারে অনিরাপদ থেকে যাবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মিয়ানমার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ