Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

মাইনাসের উদ্দেশ্যেই তারেক রহমানকে গ্রেফতার করা হয়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০১৯, ৯:০০ পিএম

জাতীয়তাবাদী শক্তি তথা বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করতেই ওয়ান-ইলেভেনের ফখরুদ্দিন-মইনউদ্দিন সরকার বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ওপর নির্মম নির্যাতন চালিয়েছিল বলে মন্তব্য করেছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সংগঠন ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব)। বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) সংগঠনের ৬২৫ জন শিক্ষক এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়- বর্তমান অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর দোসররা ২০১৭ সালের সেই বিভীষিকাময় কালরাতে বিনা মামলায় বিনা ওয়ারেন্টে বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক নেতা তারেক রহমানকে গ্রেফতার করে। এরপর তার ওপর চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন। তাকে প্রায় পঙ্গু করে ফেলা হয় নির্যাতনের মাধ্যমে। বর্তমানে তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন। তবে বর্তমান ভোটারবিহীন শাসকগোষ্ঠীরও নানা খড়গ তার ওপর চলমান রয়েছে। আমরা তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি এবং তার ওপর করা সমস্ত জুলুম-নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়- ওই সময় ‘মাইনাস টু ফর্মুলা’র নামে খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখা এবং দেশকে বিরাজনীতিকরণের চেষ্টা হয়েছিল। ‘মাইনাস টু ফর্মুলা’র অংশ হিসেবে খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ বিএনপির বহু সিনিয়র নেতাকে গ্রেফতার করে নির্যাতন করা হয়। যা ন্যাক্কারজনক ও কালো অধ্যায়।

বিবৃতি দাতাদের অন্যতম হলেন- সহসভাপতি প্রফেসর ড. আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রফেসর ড. মোর্শেদ হাসান খান, ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, ড. ফরিদ আহমেদ, প্রফেসর ড. আবদুর রশিদ, প্রফেসর আমিনুল ইসলাম মজুমদার, প্রফেসর সৈয়দ আবুল কালাম আযাদ, প্রফেসর লুৎফর রহমান, প্রফেসর ড. আল মোজাদ্দেদী আলফেছানী, প্রফেসর এম ফরিদ আহমেদ, ড. গোলাম রব্বানি, ড. মাহফুজুল হক, ইসরাফিল প্রামাণিক রতন, ড. সিদ্দিক আহমদ চৌধুরী (চবি), ড. এম এ বারি মিয়া, প্রফেসর খায়রুল (শাবিপ্রবি), ড. শামসুল আলম সেলিম (জাবি), ড. সাব্বির মোস্তফা খান (বুয়েট), প্রফেসর তোজাম্মেল (ইবি) প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তারেক রহমান


আরও
আরও পড়ুন