Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

মোদি দেশটাই চুরি করে করেছেন -মমতা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ মার্চ, ২০১৯, ৮:৩৯ পিএম

নারী দিবসে রাজপথে নেমে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সংক্ষিপ্ত ভাষণেও রাফাল থেকে পুলওয়ামা, নোটবন্দি থেকে নীরব মোদি, সিবিআই, আরবিআই-এর মতো প্রতিষ্ঠানগুলি ধ্বংস করার বিরুদ্ধে সরব তৃণমূল নেত্রী। আহ্বান জানালেন, মোদি সরকারকে সরিয়ে ইউনাইটেড ইন্ডিয়ার সরকার গঠন করার। নারী ক্ষমতায়নে রাজ্য সরকার এবং তৃণমূল কী ভাবে কাজ করছে, তার একটা ছবিও তুলে ধরার চেষ্টা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। উপলক্ষ নারী দিবস হলেও, লোকসভা ভোটের মুখে তৃণমূল নেত্রী যে জনসংযোগ বাড়ানোর পথেই পা বাড়ালেন, তা মানছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকেরা।

শুক্রবার আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে তৃণমূলের তরফে একটি পদযাত্রার আয়োজন করা হয়। শ্রদ্ধানন্দ পার্ক থেকে সেই মিছিলে হাঁটলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ডোরিনা ক্রসিংয়ে মিছিল শেষ হওয়ার পরে সেখানেই মমতা তুলে ধরেন, কী ভাবে নারীর অধিকার রক্ষা এবং তাদের হাত শক্তিশালী করতে বহুমুখী কাজ করছে রাজ্য সরকার এবং তৃণমূল কংগ্রেস। মমতা বলেন, ‘ভোট এলেই বিভিন্ন দলের পক্ষ থেকে দাবি তোলা হয়, মহিলাদের জন্য লোকসভায় ৩০ শতাংশ আসন সংরক্ষণ করা হোক। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের এমনিতেই লোকসভায় ৩৫ শতাংশ মহিলা সাংসদ রয়েছে। আগামী নির্বাচনেও সেই ধারা বজায় রেখে ৩৩ শতাংশেরও বেশি প্রার্থী দেওয়া হবে।’ আর সরকারের পক্ষ থেকে সব ছাত্রীকেই কন্যাশ্রীর আওতায় আনা, স্বাস্থ্যসাথীতে পরিবার প্রধান হিসেবে মহিলাদের কার্ড দেওয়া, ১০০ দিনের কাজে মহিলাদের ৪৮ শতাংশ উপস্থিতির মতো বিষয়ও উল্লেখ করেন মমতা।

লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হবে খুব শীঘ্রই। তার আগে পদযাত্রায় মমতা এবং যাত্রা শেষে পথসভা। এমন সময়ে লোকসভা নির্বাচনের প্রসঙ্গ যে উঠবেই, তা বোঝার জন্য রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ হওয়ার দরকার নেই। তাই স্বল্প সময়ের মধ্যেও মোদি তথা বিজেপি সরকারকে আক্রমণে ছুঁয়ে গেলেন সব ইস্যুই। দু’দিন আগেই কেন্দ্র সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকেই রাফালের বহু নথি চুরি গিয়েছে। সেই প্রসঙ্গ টেনে মমতার আক্রমণ, ‘উনি তো দেশটাকেই চুরি করে নিয়েছেন। আপনি চলে গেলে দেশের মানুষ বুঝবেন, সব চুরি করে নিয়ে গিয়েছেন আপনি।’

পুলওয়ামা হামলার পর ভারতীয় বিমানবাহিনীর অভিযানে পাকিস্তানের বালাকোটে কত জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন মমতা। এ দিন সে প্রসঙ্গে না গিয়েও মমতার তোপ, ‘পাঁচ বছরে মনে ছিল না? কী ভাবে উরি হামলা হল, কী ভাবে পুলওয়ামা হল? আর এখন ভোটের সময় মিসাইল দেখাচ্ছেন। আপনার তো এক্সপায়ারি ডেট হয়ে গিয়েছে। এর পর জনগণের সরকার এসে কাশ্মীরে শান্তি ফেরাবে।’

মোদি-অমিত শাহ জুটির সরকারকে সরিয়ে কেন্দ্রে ‘ইউনাইটেড ইন্ডিয়া’র সরকার গড়ার ডাক দেন মমতা। আর এই সরকারকেই জনগণের সরকারও বলেছেন তৃণমূল নেত্রী। বিজেপি লোকসভা ভোটে বিপুল পরিমাণ টাকা দিয়ে ভোট কেনার চেষ্টা করবে, এমন অভিযোগ আগেও শোনা গিয়েছে মমতার কণ্ঠে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মমতা
আরও পড়ুন