Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ০৯ চৈত্র ১৪২৫, ১৫ রজব ১৪৪০ হিজরী।

প্রশ্ন : আমাদের জামে মসজিদে বিদ্যুৎ সংযোগ থাকায় মানুষের দেয়া মোমবাতি কোনো কাজে লাগে না। এমতাবস্থায় মোমবাতিগুলো বিক্রি করে মসজিদের কাজে লাগাবে, না অন্যান্য মসজিদে বাতিগুলো দিয়ে দিতে হবে?

মোহাম্মাদ আশরাফুল
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১০ মার্চ, ২০১৯, ১২:১১ এএম

 উত্তর : অপ্রয়োজনীয় মোমবাতি বিক্রি করে এ মসজিদের কাজেই খরচ করতে হবে। এক মসজিদেরে টাকা বা সম্পদ অন্য মসজিদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থাপনা না থাকাবস্থায় ব্যয় করা যায় না। অবশ্য ইসলামী কর্তৃপক্ষ কেন্দ্রীয়ভাবে কোনো তহবিলের ব্যবস্থা করলে কর্তৃপক্ষের অনুমোদনক্রমে এমন করা যেতে পারে।

সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতাওয়া বিশ্বকোষ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • মোঃ মুজিবুর রহমান ১০ মার্চ, ২০১৯, ২:১৬ পিএম says : 0
    আমি গত ০৮/০৩/২০১৯ তারিখ রোজ শুক্রবার মাদারীপুর হতে ঢাকা আসার পথে লঞ্চে আসারের নামাজের সময় হলে আমি নাজাম পড়ার জন্য লঞ্চের পিছনে যাই। সেখানে আমিসহ আরো ৫ জন মুসল্লি ছিল। তারা আমাকে ইমামতি করতে বল্লে আমি মুসাফি বল্লে তারা দু’রাকাতে পড়ে বাকি নামাজ পড়ে নিবে বলে জানান। আমি রাজি হয়ে ইমামতি করি। ১ম রাকাত নামাজ শেষ হওয়ার পরে ২য় রাকাতের সময় আমার মনে পড়ে আমার ওজু নেই। লঞ্চে অনেক লোক থাকায় আমি লজ্জায় নামাজ ছেড়ে না দিয়ে ২য় রাকাত শেষ করে ছালাম ফিরিয়ে চলে আসি এবং মনে মনেে এস্তেগফার পড়তে থাকি। এখন আমি কি করলে ‍উক্ত গুনাহ হতে বাচতে পারি দয়া করে বলে দিলে কৃত্জ্ঞ থাকব।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ