Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ঝালকাঠিতে সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

ঝালকাঠি প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক এবং কালের কণ্ঠ ও এনটিভির জেলা প্রতিনিধি কে এম সবুজের ওপর মাদকসেবীদের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালিত হয়। ঝালকাঠি প্রেস ক্লাব এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। পরে আসামীদের শাস্তির দাবিতে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক ও পুলিশ সুপার মো. জোবায়েদুর রহমান স্মারকলিপি গ্রহন করেন।

মানববন্ধনে ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সদস্য ছাড়াও একাত্মতা প্রকাশ করে সামাজিক, সাস্কৃতিক, সেচ্ছাসেবী ও মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ নেয়। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী খলিলুর রহমান, সহ-সভাপতি আককাস সিকদার, সাধারণ সম্পাদক মানিক রায়, টেলিভিশন সাংবাদিক সমিতির সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন হিমু, সাধারণ সম্পাদক দুলাল সাহা, প্রবীন সাংবাদিক শ্যামল সরকার, প্রেস ক্লাবের সদস্য অলোক সাহা, রাজাপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি আহসান হাবিব সোহাগ ও কাঁঠালিয়া প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল আলম।

মানববন্ধনে বক্তারা সাংবাদিক কে এম সবুজের ওপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূল শাস্তির দাবি জানান। সাংবাদিকদের ওপর হামলা ও নির্যাতন বন্ধে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতিও আহ্বান জানান বক্তারা। এছাড়া মানববন্ধন থেকে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সংশ্লিষ্টদেরপ্রতি আহ্বান জানানো হয়।

গত শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে প্রেসক্লাবের সামনে থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে সাংবাদিক কে এম সবুজকে মারধর করে সন্ত্রাসী মায়েজ হোসেন, তরিকুল ইসলাম অপু ও কাজী মারুফ হোসেন ইরানসহ কয়েকজন যুবক। এ ঘটনায় রাতেই ঝালকাঠি থানায় তিনজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন কে এম সবুজ।
ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ

ঝালকাঠির রাজাপুরে পল্লী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর ওই চিকিৎসক পালিয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূর স্বজনরা জানায়, রাজাপুরের পুটিয়াখালী গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী ছালমা বেগম স্তনের অসুখে ভোগেন। গতকাল সকালে গৃহবধূ ছালমা স্থানীয় খায়েরহাট বাজারের একটি ওষুধের ফার্মেসি সাইমা মেডিকেলে পল্লী চিকিৎসক মুহসিন উদ্দিনের কাছে আসেন। এসময় ওই পল্লী চিকিৎসক ট্রাইজেক্ট নামের একটি ইনজেকশ্যান গৃহবধূর শরীরে পুশ করে। আর এরপরই ওই গৃহবধূ আসুস্থ হয়ে পড়েন। সাথে সাথে গৃহবধূকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার আবুল খায়ের মাহামুদ রাসেল প্রাথমিক ধারানা করে বলেন, ইনজেকশ্যানের প্রতিক্রিয়ায় গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।
এদিকে ঘটনার পর থেকেই ওই পল্লী চিকিৎসক ও ফার্মেসি মালিক মুহসিন পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে। গৃহবধূর পরিবার এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরে প্রস্তুতি নিয়েছে।


উদ্ভাবিত বিনা সরিষা-৪ এর মাঠ দিবস
ঝালকাঠিতে বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) উদ্ভাবিত উচ্চফলনশীল ‘বিনাসরিষা-৪’ চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করতে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘পরিবর্তিত আবহাওয়া উপযোগী বিভিন্ন ফসল ও ফলের জাত উন্নয়ন কর্মসূচি’ এর আওতায় গত সোমবার বিকালে ঝালকাঠি সদর উপজেলার চরভাটারাকান্দা গ্রামে এ মাঠ দিবসের আয়োজন করা হয়। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. ফজলুল হক এতে প্রধান অতিথি ও সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. খাইরুল ইসলাম মল্লিক বিশেষ অতিথি ছিলেন। পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. সোহেল রানা, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নাজমুন নাহার, সহকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কাজী এনায়েত হোসেন ও বৈজ্ঞানিক সহকারী মো. ইউনুছ আলী মাঠ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত কৃষক সমাবেশে বিনাসরিষা-৪ চাষাবাদের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। সবুজ খানের সভাপতিত্বে কৃষি কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট চাষীরাও আলোচনায় অংশ নেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ঝালকাঠিতে এবারে ‘বিনাসরিষা-৪’ এর ১০টি প্রদর্শণী ক্ষেত স্থাপন করা হয়েছে। সর্বত্রই বাম্পার ফলন হয়েছে। হেক্টরপ্রতি দেড় থেকে প্রায় দুই টন ফলন পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মানববন্ধন


আরও
আরও পড়ুন